ঢাকা ১২:৪৯ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২৩, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
মশার কামড়ে দিশেহারা ডেমরা কোনাপাড়ার এলাকাবাসী। দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিদেশি কোনো চাপ নেই : ইসি আলমগীর “নাদিহা আলীর মৃত্যতে বসুন্ধরা পরিবারের শোক” বিএনপিই দেশের প্রথম কিংস পার্টি, সুবিধাবাদী বুদ্ধিজীবীদের মুখোশ উন্মোচিত : তথ্যমন্ত্রী বাকেরগঞ্জে জনপ্রিয়তার শীর্ষে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী আলহাজ্ব মেজর জেনারেল (অবঃ) আব্দুল হাফিজ মল্লিক।। “শালবন ইকো রিসোর্ট অংশ নিচ্ছে ২২তম রিয়েল এস্টেট এক্সপো তে” “সিটি গ্রুপ নারী কাবাডি লিগে পুলিশ চ্যাম্পিয়ন” গজারিয়ায় ভবেরচর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের মত বিনিময় সভা অনুষ্ঠিত আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মুন্সীগঞ্জ-৩ আসনে এক প্রার্থীর পক্ষে অবস্থান নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে গজারিয়া উপজেলা সরকারি দুই দপ্তরের দুই কর্মকর্তার বিরুদ্ধে দলীয় নেতাকর্মীর নৌকার বাইরে কাজ করার কোন সুযোগ নেই : কৃষিমন্ত্রী

চীনে করোনা ভাইরাসে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৬৩৬

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:  চীনে মহামারি আকারে ছড়িয়ে পড়া করোভাইরাসে নতুন করে আরো ৭৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর ফলে দেশটিতে এই ভাইরাসে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো ৬৩৬ জনে। চীনের জাতীয় স্বাস্থ্য কমিশনের বরাত দিয়ে এ খবর জানিয়েছে কাতারভিত্তিক সংবাদ মাধ্যম আল জাজিরা।

আরো পড়ুন: রোহিঙ্গাদের সহায়তায় ইতালির ১০ লাখ ইউরোর প্রতিশ্রুতি

চীনা স্বাস্থ্য কমিশন শুক্রবার এক বিবৃতিতে জানায়, দেশে ভয়াবহ এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে রাতারাতি আরো ৭৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে ৬৪ জনই হুবেই প্রদেশের উহান নগরীর বাসিন্দা। গত বছরের শেষ দিকে চীনের এই শহরটি থেকেই ছড়িয়ে পড়েছে এই করোনাভাইরাস। এতে আক্রান্ত হয়ে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত কেবল চীনের মেইনল্যান্ডেই মারা গেছে ৬৩৬ জন। এছাড়া চীনের বাইরে হংকং ও ফিলিপাইনে মারা গেছে দুইজন। এই হিসাব ধরলে বিশ্বে এই নতুন ভাইরাসে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো ৬৩৮য়ে।

এদিকে চীনে নতুন করে আরো ৩ হাজার ১৪৩ জনের দেহে করোনাভাইরাস সনাক্ত করা হয়েছে। এর ফলে দেশটিতে এ পর্যন্ত আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ৩১ হাজার ১৬১তে গিয়ে দাঁড়ালো।

চীনের বাইরে আরো কমপক্ষে ২৫টি দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

বিশ্বজুড়ে নভেল করোনাভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে জরুরি ভিত্তিতে ৬৭ কোটি ৫০ লাখ ডলার প্রয়োজন বলে জানিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (হু)।

এদিকে চীনে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস সম্পর্কে আগেই সতর্ক করে দেয়া চিকিৎসক লি ওয়েনলিয়াং মারা গেছেন। ভাইরাসের কেন্দ্রস্থল উহানে মারা যান তিনি। গত ১২ জানুয়ারি তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তার শরীরে করোনাভাইরাসের বিষয়টি ধরা পড়েছিলো গত পহেলা ফেব্রুয়ারি। রোগীর দেহ থেকে লির শরীরে করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছিলো বলে জানা যায়।

লি ওয়েনলিয়াং সতর্ক করে দিয়ে বলেছিলেন, সার্সের মতো মহামারি আকার ধারণ করতে পারে এই নতুন ভাইরাস। তবে তখন তার কথাকে পাত্তা দেয়নি চীনা কর্তৃপক্ষ। বরং তার এ সতর্কবার্তাকে গুজব বলে উল্লেখ করেছিলো বেইজিং সরকার এবং তাকে এসব ‘গুজব’ ছড়ানো বন্ধ করারও হুমকি দেয়া হয়েছিলো।

Tag :

জনপ্রিয় সংবাদ

মশার কামড়ে দিশেহারা ডেমরা কোনাপাড়ার এলাকাবাসী।

চীনে করোনা ভাইরাসে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৬৩৬

আপডেট টাইম ১১:৫২:৫৭ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ৭ ফেব্রুয়ারী ২০২০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:  চীনে মহামারি আকারে ছড়িয়ে পড়া করোভাইরাসে নতুন করে আরো ৭৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর ফলে দেশটিতে এই ভাইরাসে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো ৬৩৬ জনে। চীনের জাতীয় স্বাস্থ্য কমিশনের বরাত দিয়ে এ খবর জানিয়েছে কাতারভিত্তিক সংবাদ মাধ্যম আল জাজিরা।

আরো পড়ুন: রোহিঙ্গাদের সহায়তায় ইতালির ১০ লাখ ইউরোর প্রতিশ্রুতি

চীনা স্বাস্থ্য কমিশন শুক্রবার এক বিবৃতিতে জানায়, দেশে ভয়াবহ এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে রাতারাতি আরো ৭৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে ৬৪ জনই হুবেই প্রদেশের উহান নগরীর বাসিন্দা। গত বছরের শেষ দিকে চীনের এই শহরটি থেকেই ছড়িয়ে পড়েছে এই করোনাভাইরাস। এতে আক্রান্ত হয়ে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত কেবল চীনের মেইনল্যান্ডেই মারা গেছে ৬৩৬ জন। এছাড়া চীনের বাইরে হংকং ও ফিলিপাইনে মারা গেছে দুইজন। এই হিসাব ধরলে বিশ্বে এই নতুন ভাইরাসে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো ৬৩৮য়ে।

এদিকে চীনে নতুন করে আরো ৩ হাজার ১৪৩ জনের দেহে করোনাভাইরাস সনাক্ত করা হয়েছে। এর ফলে দেশটিতে এ পর্যন্ত আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ৩১ হাজার ১৬১তে গিয়ে দাঁড়ালো।

চীনের বাইরে আরো কমপক্ষে ২৫টি দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

বিশ্বজুড়ে নভেল করোনাভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে জরুরি ভিত্তিতে ৬৭ কোটি ৫০ লাখ ডলার প্রয়োজন বলে জানিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (হু)।

এদিকে চীনে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস সম্পর্কে আগেই সতর্ক করে দেয়া চিকিৎসক লি ওয়েনলিয়াং মারা গেছেন। ভাইরাসের কেন্দ্রস্থল উহানে মারা যান তিনি। গত ১২ জানুয়ারি তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তার শরীরে করোনাভাইরাসের বিষয়টি ধরা পড়েছিলো গত পহেলা ফেব্রুয়ারি। রোগীর দেহ থেকে লির শরীরে করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছিলো বলে জানা যায়।

লি ওয়েনলিয়াং সতর্ক করে দিয়ে বলেছিলেন, সার্সের মতো মহামারি আকার ধারণ করতে পারে এই নতুন ভাইরাস। তবে তখন তার কথাকে পাত্তা দেয়নি চীনা কর্তৃপক্ষ। বরং তার এ সতর্কবার্তাকে গুজব বলে উল্লেখ করেছিলো বেইজিং সরকার এবং তাকে এসব ‘গুজব’ ছড়ানো বন্ধ করারও হুমকি দেয়া হয়েছিলো।