ঢাকা ০৮:৫৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ০৩ মার্চ ২০২৪, ২০ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
কুমিল্লা সাংবাদিক ফোরাম ঢাকা’র সভাপতি সাজ্জাদ সাধারণ সম্পাদক মোশাররফ নির্বাচিত ভর্তুকি দিয়ে গ্যাস বিদ্যুৎ ও দ্রব্যমূল্য কমানোর দাবিতে সমাবেশ ও মিছিল “সফল সংগঠক হিসেবে ‘সাকসেস এ্যাওয়ার্ড-২০২৪’ পাচ্ছেন ব্যারিস্টার সাইফুর রহমান “ পুলিশ সার্ভিস এসোসিয়েশনের নব নির্বাচিত সভাপতি মনিরুল ইসলাম ,এবং সাধারণ সম্পাদক নারায়ণগঞ্জ জেলার পুলিশ সুপার গোলাম মোস্তফা রাসেল সাংবাদিক নাসির উদ্দীন বাবুলের ইন্তেকাল। দুমকিতে আন্তঃ উপজেলা ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠান। মুন্সীগঞ্জ পৌর নির্বাচনে আমিরুল ইসলাম এর নির্দেশে জগ মার্কার গনসংযোগ রাজধানীর বেইলি রোডে আগুন লাগার ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে মামলা করেন। “গুলশানে বিশ্বমানের জুয়েলারী শোরুম চালু করছে ডায়মন্ড ওয়ার্ল্ড” ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের চিটাগাং রোড সিমরাইল ট্রাক ও ইজিবাইকের সংঘর্ষে এক বৃদ্ধার মৃত্যু ও আহত ২

রাজাপুরে উপজেলা সমবায় অফিসারের বিরুদ্ধে ব্যাপক দূর্নীতির অভিযোগ

মোঃ সাইদুল ইসলাম, রাজাপুর (ঝালকাঠি) প্রতিনিধিঃ ঝালকাঠির রাজাপুরের উপজেলা সমবায় কর্মকর্তা দিলীপ কুমার মিস্ত্রীর বিরুদ্ধে ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে, সমবায় কর্মকর্তা রাজাপুরে যোগদানের পর থেকে সমিতি রেজিষ্ট্রেশন এর নামে লোকজনকে হয়রানি করছেন দিনের পর দিন। রাজাপুর উপজেলায় বিভিন্ন নামে সমবায় সমিতি রেজিষ্ট্রেশনের জন্য কাগজপত্র সমবায় অফিসে জমা দিলে সমবায় কর্মকর্তা প্রতিটি সমিতি রেজিষ্ট্রেশনের নামে ৩০ হাজার থেকে ৪০ হাজার টাকা নিয়ে সমিতি রেজিষ্ট্রেশন দিয়েছেন। এছাড়াও একাধিক সমিতির উৎকোচ নেওয়ার পরেও দিনের পর দিন আটকিয়ে রেখেছে ফাইলপত্র। ভূক্তভোগী কৃষক সমিতির লোকজন জানান, সমবায় কর্মকর্তা আরও অতিরিক্ত টাকা উৎকোচ দাবী করেন। টাকা দিতে না পারায় সমিতি রেজিষ্ট্রেশন বন্ধ রয়েছে। রাজাপুরের নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক কর্মকর্তা জানান, সমবায় সমিতি রেজিষ্ট্রেশন এর জন্য দিলীপ উৎকোচ দাবী করে। উৎকোচ না দিলে সমিতি রেজিষ্ট্রেশন হয়না। ইতিপূর্বে অসংখ্য সমিতি রেজিষ্ট্রেশন দিয়েছেন সমবায় কর্মকর্তা মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে। একাধিক সূত্রে জানা গেছে, দিলীপের এলপিআরে যাওয়ার সময় হয়েছে আর তিনি এর আগে সমিটি রেজিষ্ট্রেশন দেয়ার নামে প্রচুর অর্থ কামিয়ে নিচ্ছেন। প্রতিটি সমিতি অডিটের জন্য হাজার হাজার টাকা নিচ্ছে। কাগজপত্রে ভুল হলেই উৎকোচের পরিনাম বেড়ে যায়। দিলিপ একজন দুরন্ধর লোক ইতিমধ্য রাজাপুর সমবায় অফিসের গুরুত্বপূর্ণ ফাইলপত্র নিজের অনিয়ম ঢাকার জন্য সরিয়ে ফেলেছে। নামে বেনামে কোটি টাকার মালিক হয়েছে এই দিলীপ কুমার মিস্ত্রী। ভারতেও ক্রয় করেছেন জমি। পেনশনের টাকা নিয়ে ভারত চলে যাবেন বলে অনেকের কাছেই বলে বেড়াচ্ছেন। রাজাপুর সমবায় অফিসের এক কর্মকর্তা জানান, দিলীপ বাবু একজন ঘুষখোর লোক। তিনি গোপনে গোপনে সমবায় অফিসের লোকজনদের আড়াল করে মোটা অংকের ঘুষ নেন। দুদকসহ সংশ্লিষ্ট দপ্তরে দিলীপের নামে অভিযোগ করেছে ভুক্তভোগীরা। ভুক্তভোগীরা উর্ধতন কর্তৃপক্ষের নিকট এই দূর্নীতি পরায়ন দিলীপ কুমার মিস্ত্রীর বিরুদ্ধে শাস্তি মূলক ব্যবস্থা গ্রহনের দাবী জানান । এ ব্যাপারে দিলীপ কুমার মিস্ত্রীর কাছে জানতে চাইলে তিনি সম্পূর্ণ অভিযোগ অস্বিকার করে বলেন, “আমি কোথাও কোন সমিতির রেজিষ্ট্রেশনের জন্য একটি টাকাও নেয়নি বরং এটা আমার বিরুদ্ধে কে বা করার মিথ্যা অভিযোগ দিয়েছে তা আমি জানিনা।”

Tag :

জনপ্রিয় সংবাদ

কুমিল্লা সাংবাদিক ফোরাম ঢাকা’র সভাপতি সাজ্জাদ সাধারণ সম্পাদক মোশাররফ নির্বাচিত

রাজাপুরে উপজেলা সমবায় অফিসারের বিরুদ্ধে ব্যাপক দূর্নীতির অভিযোগ

আপডেট টাইম ০৫:৪৮:১৬ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ৩ অগাস্ট ২০১৯

মোঃ সাইদুল ইসলাম, রাজাপুর (ঝালকাঠি) প্রতিনিধিঃ ঝালকাঠির রাজাপুরের উপজেলা সমবায় কর্মকর্তা দিলীপ কুমার মিস্ত্রীর বিরুদ্ধে ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে, সমবায় কর্মকর্তা রাজাপুরে যোগদানের পর থেকে সমিতি রেজিষ্ট্রেশন এর নামে লোকজনকে হয়রানি করছেন দিনের পর দিন। রাজাপুর উপজেলায় বিভিন্ন নামে সমবায় সমিতি রেজিষ্ট্রেশনের জন্য কাগজপত্র সমবায় অফিসে জমা দিলে সমবায় কর্মকর্তা প্রতিটি সমিতি রেজিষ্ট্রেশনের নামে ৩০ হাজার থেকে ৪০ হাজার টাকা নিয়ে সমিতি রেজিষ্ট্রেশন দিয়েছেন। এছাড়াও একাধিক সমিতির উৎকোচ নেওয়ার পরেও দিনের পর দিন আটকিয়ে রেখেছে ফাইলপত্র। ভূক্তভোগী কৃষক সমিতির লোকজন জানান, সমবায় কর্মকর্তা আরও অতিরিক্ত টাকা উৎকোচ দাবী করেন। টাকা দিতে না পারায় সমিতি রেজিষ্ট্রেশন বন্ধ রয়েছে। রাজাপুরের নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক কর্মকর্তা জানান, সমবায় সমিতি রেজিষ্ট্রেশন এর জন্য দিলীপ উৎকোচ দাবী করে। উৎকোচ না দিলে সমিতি রেজিষ্ট্রেশন হয়না। ইতিপূর্বে অসংখ্য সমিতি রেজিষ্ট্রেশন দিয়েছেন সমবায় কর্মকর্তা মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে। একাধিক সূত্রে জানা গেছে, দিলীপের এলপিআরে যাওয়ার সময় হয়েছে আর তিনি এর আগে সমিটি রেজিষ্ট্রেশন দেয়ার নামে প্রচুর অর্থ কামিয়ে নিচ্ছেন। প্রতিটি সমিতি অডিটের জন্য হাজার হাজার টাকা নিচ্ছে। কাগজপত্রে ভুল হলেই উৎকোচের পরিনাম বেড়ে যায়। দিলিপ একজন দুরন্ধর লোক ইতিমধ্য রাজাপুর সমবায় অফিসের গুরুত্বপূর্ণ ফাইলপত্র নিজের অনিয়ম ঢাকার জন্য সরিয়ে ফেলেছে। নামে বেনামে কোটি টাকার মালিক হয়েছে এই দিলীপ কুমার মিস্ত্রী। ভারতেও ক্রয় করেছেন জমি। পেনশনের টাকা নিয়ে ভারত চলে যাবেন বলে অনেকের কাছেই বলে বেড়াচ্ছেন। রাজাপুর সমবায় অফিসের এক কর্মকর্তা জানান, দিলীপ বাবু একজন ঘুষখোর লোক। তিনি গোপনে গোপনে সমবায় অফিসের লোকজনদের আড়াল করে মোটা অংকের ঘুষ নেন। দুদকসহ সংশ্লিষ্ট দপ্তরে দিলীপের নামে অভিযোগ করেছে ভুক্তভোগীরা। ভুক্তভোগীরা উর্ধতন কর্তৃপক্ষের নিকট এই দূর্নীতি পরায়ন দিলীপ কুমার মিস্ত্রীর বিরুদ্ধে শাস্তি মূলক ব্যবস্থা গ্রহনের দাবী জানান । এ ব্যাপারে দিলীপ কুমার মিস্ত্রীর কাছে জানতে চাইলে তিনি সম্পূর্ণ অভিযোগ অস্বিকার করে বলেন, “আমি কোথাও কোন সমিতির রেজিষ্ট্রেশনের জন্য একটি টাকাও নেয়নি বরং এটা আমার বিরুদ্ধে কে বা করার মিথ্যা অভিযোগ দিয়েছে তা আমি জানিনা।”