শুক্রবার, ১৪ মে ২০২১, ০৮:০২ পূর্বাহ্ন

হরিনারায়নপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের কান্ডারী চেয়ারম্যান হিসেবে মহিউদ্দিনকে দেখতে চান নেতা-কর্মীরা

মোহাম্মদ রফিক, কুষ্টিয়া:   আসন্ন হরিনারায়নপুর  ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের কান্ডারি হিসেবে  চেয়ারম্যান মহিউদ্দিনকে দেখতে  চান নেতাকর্মীরা। দীর্ঘ ৮ বছর পরে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া  কুষ্টিয়া সদর উপজেলার ইবি থানার হরিনারায়নপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সম্মেলন।
আগামী ২২ই অক্টোবর সম্মেলন কে ঘিরে উৎসবের আমেজে দিন অতিবাহিত করছে ইউনিয়নের সকল নেতাকর্মীরা। সম্মেলনে সবাই সম্মানজনক পদ পেতে নেতাকর্মীরা ইতিমধ্যে লবিং শুরু করেছে।
চলতি মাসের গত ২ অক্টোবর এই ইউনিয়নে পর্যায়ক্রমে ৯ টি ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সম্মেলন সুন্দর ও শান্তি পূর্ণভাবে শেষ হয়েছে।  এর ফলে ওয়ার্ডের নেতাকর্মীরা চাঙ্গা হয়ে উঠেছেন। এবার ওয়ার্ড সম্মেলনে বেশ কিছু সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদে নতুন মুখের আর্বিভাব ঘটে। এতে করে নতুন নেতৃত্ব করার সুযোগ সৃষ্টি হল । সব মিলে ইউনিয়নের সকল নেতা কর্মীরা তাঁদের সকলের প্রত্যাশা ইউনিয়নের সম্মেলনও  হবে শান্তিপূর্ণ এবং জাকজমক । তাঁদের একটাই চাওয়া দলে নতুন যারাই আসুক না কেন যোগ্য লোক যেন বাদ না পড়ে। তাঁরা বিষয়টি খোলাসা ভাবেই বলেন, যোগ্য লোকের কথা যদি বলতে হয় তাহলে এক কথায়, সভাপতি অথবা সাধারণ সম্পাদক হিসেবে এই ইউনিয়নে মহিউদ্দিনের কোন বিকল্প নাই। কারণ মহিউদ্দিনের মত নিবেদিত মানুষ আর একটাও নাই। তিনি দলের জন্য যেমন শ্রম যোগ্য আর মেধা দিয়ে দলকে গতিশীল করার লক্ষে যা কিছু প্রয়োজন সব কিছু দিয়ে সার্বক্ষণিক কর্মরত থাকেন। যা এরকম কেউই করতে পারে না । আরেকটা বিষয় বলা যায়, একটি দলের মূল চালিকা শক্তি জোগান দেয় সাধারণ সম্পাদক। সে দিক দিয়ে মহিউদ্দিন অল স্কারম্যান।
এ ব্যাপারে বর্তমান ইউনিয়নের অত্যান্ত জনপ্রিয় চেয়ারম্যান ও সাধারণ সম্পাদক মহিউদ্দিন বলেন, আমি জনগণের রাজনীতি করি। তার থেকেও বড় কথা আমার প্রাণের সংগঠন বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ। এই দলকে আমি মণ প্রাণ দিয়ে ভালোবাসি। আমার রাজনৈতিক অভিভাবক কুষ্টিয়া সদর ৩ আসনের সংসদ সদস্য মাহাবুব-উল-আলম হানিফ তাঁর দিক নির্দেশিত ভাবে আমি রাজনীতি করি। এখানে আমার কোন চাওয়া-পাওয়া নাই। আমি পদ নিয়ে লালায়িত না। আমি কাজ প্রিয় মানুষ, কাজে আমি বিশ্বাসী। দল যদি আমাকে কোন পদে দেয় তাহলে আমি আনন্দের সাথে মেনে নেব। আর যদি কোন পদ না দেয় তাতেও আমি খুঁশি। কারণ দলের বাইরে আমি কোন কাজ করবো না। এটা পরিস্কার কথা।
তিনি আরও বলেন, আমি বঙ্গবন্ধুর আদর্শে  রাজনীতি করি। তারই সুযোগ্য কণ্যা দেশরত্ন জননেত্রী শেখ হাসিনা এই বাংলাদেশকে যেভাবে এগিয়ে নিয়ে বিশ্বের বুকে মাথা উঁচু করে দাঁড় করিয়েছেন তা নজিরহীন। আজকে তাঁরই হাতকে শক্তিশালী করতে আমরা সবাই বদ্ধপরি কর। আমি প্রথম ২০০৩ সালে এই ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্বভার গ্রহণ করি। এরপর  ২০১২ সালে  আবারও হরিনারায়নপুর  ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়ে আজ অবদি এর দায়িত্ব পালন করছি এবং আগামী ২২ অক্টোবর পর্যন্ত নিষ্টার সাথে দায়িত্ব পালন করবো। সুদীর্ঘ ১৭ বছর আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদকের হিসেবে দায়িত্ব পালন করা অবস্থায় আমি চেষ্টা করেছি দলকে ঢেলে সাজাতে। জানিনা কতটুকু করতে পেরেছি। হয়তো চলা এবং বলার মাঝে অনেক কিছু ভূল-ট্রুটি থাকতে পারে । এটা অস্বীকার করবো না। এরপরেও বলবো, জানিনা কতটুকু দায়িত্ব পালন করতে পেরেছি। তবে এতটুকু বলতে পারি এরমধ্যে দলের জন্য কোন ভাল কাজ করে থাকি এর জন্য পুরাটায় নেতাকর্মীদের কল্যাণের জন্যই করেছি।
নিউজটি শেয়ার করুন





সর্বস্বত্ব © ২০১৯ মাতৃভূমির খবর কর্তৃক সংরক্ষিত

Design & Developed BY ThemesBazar