ঢাকা ০৮:২৭ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৫ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

হবিগঞ্জে দুলা মিয়া হত্যা মামলার জের ধরে, বৃদ্ধিকে পিটিয়ে আহত, আত্মীয় স্বজনরা ৩ বছর যাবৎ বাড়ি ছাড়া।

, হবিগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি

হবিগঞ্জের চুনারুঘাট উপজেলা ৫নং শানখলা ইউনিয়নে পাট্রাশরিফ গ্রামে গত তিন বছর পূর্বে দুলা মিয়া নামে এক লোক কে অপহরণ করে ঢাকায় নিয়ে হত্যা করা হয়।পরবর্তীতে চুনারুঘাট থানা পুলিশের সহযোগিতা সেই হত্যা রহস্য উদঘাটন করা হলে আসামি হয়, দুলা মিয়ার আপনা চাচাত ভাই ছাদেক মিয়া সহ ২৩জন কে আসামি করে চুনারুঘাট থানায় মামলা দায় করা হয়। বিজ্ঞ আদালতের নির্দেশে পুলিশ তদন্ত সাপেক্ষে ছাদেক সহা ৩ জন কে আসামি করে আদালতে সার্সিট প্রদান করা হয়।

ভুক্তভোগীরা বলেন আদালত সুষ্ঠু তদন্তের মাঝে বিচার করবে কিন্তূ নির অপরাধ লোক জন কে গৃহ থেকে উচ্ছেদ করা কি আইন বহির্ভূত কাজ নহে । ভুক্তভোগীরা আরো জানান দুলা মিয়া হত্যার সাথে জড়িত নেই অথচ আমাদের সন্তানাদী নিয়ে বাড়ি ঘরে উঠতে পারতেছিনা তারা আমাদের বাড়ি ঘরের দরজা জানালা ভেঙ্গে ঘরে সকল আসবাবপত্র মালামাল নিয়ে যায় এবং বাড়িতে আসলে তাদেরকে দলবল নিয়ে মারধোর করে বাড়িতে উঠতে দেয় নাই দুলা মিয়ার ভাই ভাতিজাগন।

বর্তমানে তারা তাদের আত্নীয় স্বজনদের বাড়িতে থেকে মানবেতর জীবনযাপন করছেন। বাড়িতে আসতে চাইলে তারা তাদের কে মারধর করে বাড়ি হতে বের করে দেয়। ভুক্তভোগী হয়ে আইনি সহায়তা জন্য গত ২৫/১০/২১ ইং তারিখে চুনারুঘাট নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর লিখিত আবেদন করলে চুনারুঘাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নির্দেশে বাড়িতে গেলে তাদের কে আবারো মারধর করে বাড়ি থেকে বের করে দেওয়া হয়।

পরে পুলিশ অবগত করা হলে ঘটনাস্থল হতে পুলিশ তাদের কে উদ্ধার করে চুনারুঘাট হাসপাতালে ভর্তি করা হয়, প্রায় ১০০বছর বয়সি এক বৃদ্ধ সহ দুই মহিলা আহত হন। চুনারুঘাট থানায় ৯ জনের বিরুদ্ধে একটি লিখিত অভিযোগ প্রদান করা হয়, বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নিকট জানতে চাইলে তিনি বলেন বিষয়টি আমার জানা নেই।

Tag :
জনপ্রিয় সংবাদ

হবিগঞ্জে দুলা মিয়া হত্যা মামলার জের ধরে, বৃদ্ধিকে পিটিয়ে আহত, আত্মীয় স্বজনরা ৩ বছর যাবৎ বাড়ি ছাড়া।

আপডেট টাইম ০৬:৫১:০৯ অপরাহ্ন, রবিবার, ৩১ অক্টোবর ২০২১

, হবিগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি

হবিগঞ্জের চুনারুঘাট উপজেলা ৫নং শানখলা ইউনিয়নে পাট্রাশরিফ গ্রামে গত তিন বছর পূর্বে দুলা মিয়া নামে এক লোক কে অপহরণ করে ঢাকায় নিয়ে হত্যা করা হয়।পরবর্তীতে চুনারুঘাট থানা পুলিশের সহযোগিতা সেই হত্যা রহস্য উদঘাটন করা হলে আসামি হয়, দুলা মিয়ার আপনা চাচাত ভাই ছাদেক মিয়া সহ ২৩জন কে আসামি করে চুনারুঘাট থানায় মামলা দায় করা হয়। বিজ্ঞ আদালতের নির্দেশে পুলিশ তদন্ত সাপেক্ষে ছাদেক সহা ৩ জন কে আসামি করে আদালতে সার্সিট প্রদান করা হয়।

ভুক্তভোগীরা বলেন আদালত সুষ্ঠু তদন্তের মাঝে বিচার করবে কিন্তূ নির অপরাধ লোক জন কে গৃহ থেকে উচ্ছেদ করা কি আইন বহির্ভূত কাজ নহে । ভুক্তভোগীরা আরো জানান দুলা মিয়া হত্যার সাথে জড়িত নেই অথচ আমাদের সন্তানাদী নিয়ে বাড়ি ঘরে উঠতে পারতেছিনা তারা আমাদের বাড়ি ঘরের দরজা জানালা ভেঙ্গে ঘরে সকল আসবাবপত্র মালামাল নিয়ে যায় এবং বাড়িতে আসলে তাদেরকে দলবল নিয়ে মারধোর করে বাড়িতে উঠতে দেয় নাই দুলা মিয়ার ভাই ভাতিজাগন।

বর্তমানে তারা তাদের আত্নীয় স্বজনদের বাড়িতে থেকে মানবেতর জীবনযাপন করছেন। বাড়িতে আসতে চাইলে তারা তাদের কে মারধর করে বাড়ি হতে বের করে দেয়। ভুক্তভোগী হয়ে আইনি সহায়তা জন্য গত ২৫/১০/২১ ইং তারিখে চুনারুঘাট নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর লিখিত আবেদন করলে চুনারুঘাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নির্দেশে বাড়িতে গেলে তাদের কে আবারো মারধর করে বাড়ি থেকে বের করে দেওয়া হয়।

পরে পুলিশ অবগত করা হলে ঘটনাস্থল হতে পুলিশ তাদের কে উদ্ধার করে চুনারুঘাট হাসপাতালে ভর্তি করা হয়, প্রায় ১০০বছর বয়সি এক বৃদ্ধ সহ দুই মহিলা আহত হন। চুনারুঘাট থানায় ৯ জনের বিরুদ্ধে একটি লিখিত অভিযোগ প্রদান করা হয়, বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নিকট জানতে চাইলে তিনি বলেন বিষয়টি আমার জানা নেই।