ঢাকা ০৩:৩৩ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ০৪ জুলাই ২০২২, ১৯ আষাঢ় ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
ইউএসটিসি ছাত্রদলের ৫ সদস্যের আহবায়ক কমিটির ৩ সদস্যের পদত্যাগ। পবিপ্রবিতে নিরাপদ খাদ্য ব্যবস্থাপনায় উৎপাদিত তেলাপিয়া ও পাঙ্গাস মাছের নিলাম অনুষ্ঠিত টাঙ্গাইলে এনটিভির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন লক্ষ্মীপুরে পুলিশের নায়েক থেকে সহকারী উপ পরিদর্শক হলেন ৬ জন পানি, খাবার এবং ঔষধ বিতরণ করেন KSA গোল্ডেন বয় সোসাইটি বোয়ালমারীতে গরুবাহী ট্রাকের চাপায় মা-মেয়ে নিহত কাঞ্চনায় স্কুল পরিচালনা নিয়ে মন্তব্য করায় হেনস্তার অভিযোগ মাত্র ৩০ সেকেন্ড টর্নেডোতে লন্ডভন্ড পটুয়াখালীর চরপাড়া। একটি মানবিক সাহায্যের জন্য আবেদন বাঁচতে চাই ক্যান্সারে আক্রান্ত মোহাম্মদ আরমান গজারিয়ায় ঢাকা চট্টগ্রাম মহাসড়কে ভবেরচর কলেজ রোডে সড়ক দূর্ঘটনা আহত ৫

সোহরাওয়ার্দীতে শুকরানা মাহফিলে প্রধানমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক :  বহুল কাঙ্ক্ষিত কওমি সনদের সরকারি স্বীকৃতি বাস্তবায়ন হওয়ায় রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আলেমদের আয়োজিত ‘শুকরানা মাহফিল’ শুরু হয়েছে। সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে শুকরানা মাহফিলে পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আজ রোববার বেলা পৌনে ১১টার দিকে তিনি শোকরানা মাহফিলে পৌঁছান। এর আগে সকাল ৯টায় পবিত্র কোরআন তেলাওয়াতের মধ্যদিয়ে মাহফিল শুরু হয়।

এর আগে ফজরের পর থেকেই সোহরাওয়ার্দীমুখি আলেম-উলামা ও মাদ্রাসা ছাত্রদের ঢল নামে। দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে রাতে রওয়ানা দিয়ে ভোরে অনেকে ঢাকায় পৌঁছে সরাসরি সমাবেশস্থলে চলে আসেন।

সকাল সাতটা থেকেই সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের আশপাশে বিভিন্ন রাস্তায় দেখা যায়, মিছিল নিয়ে আলেম ও মাদ্রাসা ছাত্ররা আসছেন। এতে সকাল থেকে রাজধানীর বিভিন্ন রাস্তায় যানজটের সৃষ্টি হয়। তবে যানজট এড়াতে ট্রাফিকের পক্ষ থেকে আগেই দেয়া হয়েছে বিশেষ নির্দেশনা। আজকের জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষাও করা হয়েছে স্থগিত।

২০১৭ সালের ১১ এপ্রিল গণভবনে আল্লামা শফীর নেতৃত্বে শীর্ষ আলেমদের উপস্থিতিতে কওমি মাদ্রাসার সর্বোচ্চ সনদ দাওরায়ে হাদিসকে ইসলামিক স্টাডিজ ও আরবি বিষয়ের মাস্টার্সের সমমান দেয়ার ঘোষণা দেন প্রধানমন্ত্রী। গত ১৯ সেপ্টেম্বর এ-সংক্রান্ত বিলটি সংসদে পাস হয়। এর মাধ্যমে কওমি মাদ্রাসার লাখ লাখ শিক্ষার্থীর দীর্ঘদিনের দাবি পূরণ হয়।

কওমি আলেমরা মনে করেন, কওমি সনদের স্বীকৃতি দেয়ার বিষয়টি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিশেষ অনুগ্রহ। তিনি একক চেষ্টায় দেশের পিছিয়ে পড়া বড় একটি জনগোষ্ঠীকে এগিয়ে যাওয়ার সুযোগ করে দিয়েছেন। এ জন্য কওমি মাদ্রাসাসংশ্লিষ্টরা প্রধানমন্ত্রীর প্রতি বিশেষভাবে কৃতজ্ঞ। আর এর প্রতিদান হিসেবেই তাকে সংবর্ধিত করতে চান আলেমরা। তবে প্রধানমন্ত্রী সংবর্ধনা নিতে বিব্রত বোধ করায় তার পরামর্শে আলেমরা এর নাম দিয়েছেন ‘শুকরানা মাহফিল’।

এদিকে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানকে কেন্দ্র করে সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ও এর চারপাশের এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। শাহবাগ ও টিএসসি মোড়ে প্রস্তুত রাখা হয়েছে পুলিশের সাঁজোয়া যান। ইউনিফর্মের পাশাপাশি সাদা পোশাকে বিপুল সংখ্যক পুলিশ সদস্য দায়িত্ব পালন করছেন।

মৎস্যভবন, হাইকোর্টের সামনের এলাকা, দোয়েল চত্ত্বর, টিএসসি থেকে সোহরাওয়র্দী উদ্যানের প্রতিটি প্রবেশ পথে সতর্ক অবস্থা দেখা গেছে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী সদস্যদের। এ ছাড়া প্রতিটি প্রবেশপথে বসানো হয়েছে আর্চওয়ে। মেটাল ডিটেক্টর ও হাতে তল্লাশির মধ্য দিয়ে সভাস্থলে প্রবেশ করতে দেয়া হচ্ছে।

 

Tag :
জনপ্রিয় সংবাদ

ইউএসটিসি ছাত্রদলের ৫ সদস্যের আহবায়ক কমিটির ৩ সদস্যের পদত্যাগ।

সোহরাওয়ার্দীতে শুকরানা মাহফিলে প্রধানমন্ত্রী

আপডেট টাইম ০৫:৪৪:২১ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ৪ নভেম্বর ২০১৮

নিজস্ব প্রতিবেদক :  বহুল কাঙ্ক্ষিত কওমি সনদের সরকারি স্বীকৃতি বাস্তবায়ন হওয়ায় রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আলেমদের আয়োজিত ‘শুকরানা মাহফিল’ শুরু হয়েছে। সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে শুকরানা মাহফিলে পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আজ রোববার বেলা পৌনে ১১টার দিকে তিনি শোকরানা মাহফিলে পৌঁছান। এর আগে সকাল ৯টায় পবিত্র কোরআন তেলাওয়াতের মধ্যদিয়ে মাহফিল শুরু হয়।

এর আগে ফজরের পর থেকেই সোহরাওয়ার্দীমুখি আলেম-উলামা ও মাদ্রাসা ছাত্রদের ঢল নামে। দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে রাতে রওয়ানা দিয়ে ভোরে অনেকে ঢাকায় পৌঁছে সরাসরি সমাবেশস্থলে চলে আসেন।

সকাল সাতটা থেকেই সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের আশপাশে বিভিন্ন রাস্তায় দেখা যায়, মিছিল নিয়ে আলেম ও মাদ্রাসা ছাত্ররা আসছেন। এতে সকাল থেকে রাজধানীর বিভিন্ন রাস্তায় যানজটের সৃষ্টি হয়। তবে যানজট এড়াতে ট্রাফিকের পক্ষ থেকে আগেই দেয়া হয়েছে বিশেষ নির্দেশনা। আজকের জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষাও করা হয়েছে স্থগিত।

২০১৭ সালের ১১ এপ্রিল গণভবনে আল্লামা শফীর নেতৃত্বে শীর্ষ আলেমদের উপস্থিতিতে কওমি মাদ্রাসার সর্বোচ্চ সনদ দাওরায়ে হাদিসকে ইসলামিক স্টাডিজ ও আরবি বিষয়ের মাস্টার্সের সমমান দেয়ার ঘোষণা দেন প্রধানমন্ত্রী। গত ১৯ সেপ্টেম্বর এ-সংক্রান্ত বিলটি সংসদে পাস হয়। এর মাধ্যমে কওমি মাদ্রাসার লাখ লাখ শিক্ষার্থীর দীর্ঘদিনের দাবি পূরণ হয়।

কওমি আলেমরা মনে করেন, কওমি সনদের স্বীকৃতি দেয়ার বিষয়টি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিশেষ অনুগ্রহ। তিনি একক চেষ্টায় দেশের পিছিয়ে পড়া বড় একটি জনগোষ্ঠীকে এগিয়ে যাওয়ার সুযোগ করে দিয়েছেন। এ জন্য কওমি মাদ্রাসাসংশ্লিষ্টরা প্রধানমন্ত্রীর প্রতি বিশেষভাবে কৃতজ্ঞ। আর এর প্রতিদান হিসেবেই তাকে সংবর্ধিত করতে চান আলেমরা। তবে প্রধানমন্ত্রী সংবর্ধনা নিতে বিব্রত বোধ করায় তার পরামর্শে আলেমরা এর নাম দিয়েছেন ‘শুকরানা মাহফিল’।

এদিকে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানকে কেন্দ্র করে সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ও এর চারপাশের এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। শাহবাগ ও টিএসসি মোড়ে প্রস্তুত রাখা হয়েছে পুলিশের সাঁজোয়া যান। ইউনিফর্মের পাশাপাশি সাদা পোশাকে বিপুল সংখ্যক পুলিশ সদস্য দায়িত্ব পালন করছেন।

মৎস্যভবন, হাইকোর্টের সামনের এলাকা, দোয়েল চত্ত্বর, টিএসসি থেকে সোহরাওয়র্দী উদ্যানের প্রতিটি প্রবেশ পথে সতর্ক অবস্থা দেখা গেছে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী সদস্যদের। এ ছাড়া প্রতিটি প্রবেশপথে বসানো হয়েছে আর্চওয়ে। মেটাল ডিটেক্টর ও হাতে তল্লাশির মধ্য দিয়ে সভাস্থলে প্রবেশ করতে দেয়া হচ্ছে।