ঢাকা ০৯:০১ অপরাহ্ন, সোমবার, ০৪ জুলাই ২০২২, ২০ আষাঢ় ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
নবীনগরে ভয়াবহ নদী ভাঙ্গনে চোখের পলকে বাস্তুহারা ৩০ পরিবার, ইউএনওর সহায়তা- নিয়ামতপুরে ইউনিয়ন ছাত্র লীগের বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত। হারিয়ে যাওয়া ল্যাপটপ, নগদ ৫০ হাজার টাকা (সিএমপি) চকবাজার থানার পুলিশের সহায়তায় ফিরে পেয়ে আবেগ আপ্লুত, ট্রান্সপোর্ট ব্যবসায়ী ফরহাদ, আনোয়ারার প্রান্তে স্বপ্নের বঙ্গবন্ধু টানেল দেখতে পর্যটকের ভিড় দেখা হলনা হাট পথেই মৃত্যু বেপারীর বিশিষ্ট সাংবাদিক মো. সাইফুল ইসলাম রণি’র ৩৮ তম জন্মদিন আজ ইউএসটিসি ছাত্রদলের ৫ সদস্যের আহবায়ক কমিটির ৩ সদস্যের পদত্যাগ। পবিপ্রবিতে নিরাপদ খাদ্য ব্যবস্থাপনায় উৎপাদিত তেলাপিয়া ও পাঙ্গাস মাছের নিলাম অনুষ্ঠিত টাঙ্গাইলে এনটিভির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন লক্ষ্মীপুরে পুলিশের নায়েক থেকে সহকারী উপ পরিদর্শক হলেন ৬ জন

সাতক্ষীরা আশাশুনিতে বেড়িবাঁধ ভেঙে শতাধিক মৎস্য ঘের প্লাবিত

পলাশ, সাতক্ষীরা :   সাতক্ষীরা জেলার আশাশুনি উপজেলার প্রতাপনগরে হাইল চরের ভেড়িবাঁধ ভেঙ্গে দুই গ্রাম ও শতাধিক ছোট বড় মৎস্য ঘের প্লাবিত হয়েছে। শুক্রবার গভীর রাতে প্রতাপনগর ইউনিয়নের চাকলা গ্রামের হাইল চরের ১শত হাত ভেড়িবাঁধ ভেঙ্গে ক্ষয়ক্ষতির হয়েছে বলে জানা যায়।

আশাশুনির প্রতাপনগর ইউপি চেয়ারম্যান জাকির হোসেন দৈনিক মাতৃভূমির খবরকে জানান, চাকলা ভেড়িবাঁধটি দীর্ঘদিন জরাজীর্ন অবস্থায় ছিল। পানি উন্নয়ন বোর্ডকে বারবার বলা হলেও তারা কোন ভুরুক্ষেপ করেনি। শুক্রবার গভীর রাতে কপতাক্ষ নদীর প্রবল জোয়ারে বাঁধটি ভেঙ্গে যায়। নদীর পানি ঢুকে দুই গ্রাম প্লাবিত ও শতাধিক মৎস্য ঘের ও ঘরবাড়ি প্লাবিত হয়েছে।

তিনি আরও জানান, ভেড়িবাঁধটি ভেঙ্গে যাওয়ার পর পানি উন্নয়ন বোর্ডকে বলা হলেও তারা এখনও পর্যন্ত ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেনি। এলাকাবাসির সাথে কথা বলে যানা যায়, সেচ্ছাশ্রমের ভিত্তিতে ভেড়িবাঁধটি সংস্কারের উদ্দ্যেগ নেওয়া হলেও কপতাক্ষের প্রবল জোয়ারের চাপে সেটি সম্ভব হচ্ছে না। দ্রুত বাঁধটি সংস্কার না হলে আরও নতুন নতুন এলাকা প্লাবিত ও ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হবে বলে তিনি জানান।

সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক এস এম মোস্তফা বলেন, ঘটনাটি জানার পর আমি আশাশুনি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ প্রদান করেছি। একই সাথে পানি উন্নয়ন বোর্ডকে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য বলা হয়েছে।

 

Tag :
জনপ্রিয় সংবাদ

নবীনগরে ভয়াবহ নদী ভাঙ্গনে চোখের পলকে বাস্তুহারা ৩০ পরিবার, ইউএনওর সহায়তা-

সাতক্ষীরা আশাশুনিতে বেড়িবাঁধ ভেঙে শতাধিক মৎস্য ঘের প্লাবিত

আপডেট টাইম ১১:১৪:৪৩ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৪ নভেম্বর ২০১৮

পলাশ, সাতক্ষীরা :   সাতক্ষীরা জেলার আশাশুনি উপজেলার প্রতাপনগরে হাইল চরের ভেড়িবাঁধ ভেঙ্গে দুই গ্রাম ও শতাধিক ছোট বড় মৎস্য ঘের প্লাবিত হয়েছে। শুক্রবার গভীর রাতে প্রতাপনগর ইউনিয়নের চাকলা গ্রামের হাইল চরের ১শত হাত ভেড়িবাঁধ ভেঙ্গে ক্ষয়ক্ষতির হয়েছে বলে জানা যায়।

আশাশুনির প্রতাপনগর ইউপি চেয়ারম্যান জাকির হোসেন দৈনিক মাতৃভূমির খবরকে জানান, চাকলা ভেড়িবাঁধটি দীর্ঘদিন জরাজীর্ন অবস্থায় ছিল। পানি উন্নয়ন বোর্ডকে বারবার বলা হলেও তারা কোন ভুরুক্ষেপ করেনি। শুক্রবার গভীর রাতে কপতাক্ষ নদীর প্রবল জোয়ারে বাঁধটি ভেঙ্গে যায়। নদীর পানি ঢুকে দুই গ্রাম প্লাবিত ও শতাধিক মৎস্য ঘের ও ঘরবাড়ি প্লাবিত হয়েছে।

তিনি আরও জানান, ভেড়িবাঁধটি ভেঙ্গে যাওয়ার পর পানি উন্নয়ন বোর্ডকে বলা হলেও তারা এখনও পর্যন্ত ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেনি। এলাকাবাসির সাথে কথা বলে যানা যায়, সেচ্ছাশ্রমের ভিত্তিতে ভেড়িবাঁধটি সংস্কারের উদ্দ্যেগ নেওয়া হলেও কপতাক্ষের প্রবল জোয়ারের চাপে সেটি সম্ভব হচ্ছে না। দ্রুত বাঁধটি সংস্কার না হলে আরও নতুন নতুন এলাকা প্লাবিত ও ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হবে বলে তিনি জানান।

সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক এস এম মোস্তফা বলেন, ঘটনাটি জানার পর আমি আশাশুনি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ প্রদান করেছি। একই সাথে পানি উন্নয়ন বোর্ডকে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য বলা হয়েছে।