রবিবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২০, ০৬:৪১ পূর্বাহ্ন

শ্বশুরবাড়ির রাস্তাও করে দেবেন পরিকল্পনামন্ত্রী

বাড়িতে যাওয়ার রাস্তা ভালো না হলে তা সংস্কার ও প্রশস্ত করে দিতে পারবেন পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। তিনি বলেছেন, নিজের বাড়ির রাস্তা ভালো, কিন্তু শ্বশুর বাড়ির খারাপ, সেটাও তিনি ভালো করে দিতে পারবেন।

বাংলাদেশ-জার্মান চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির (বিজিসিসিআই) এক সভায় মন্ত্রী এসব কথা বলেন। আজ বৃহস্পতিবার রাজধানীর একটি পাঁচ তারকা হোটেলে সভাটি অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন মুস্তফা কামাল।

অনুষ্ঠানে ৩৪ মিনিটের বক্তব্যে সরকারের উন্নয়নের চিত্র ও ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা তুলে ধরেন পরিকল্পনা মন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘আমরা সঠিক পথেই আছি। ২০১৭-১৮ অর্থবছরের চূড়ান্ত হিসাবে দেশের মোট দেশজ উৎপাদনের (জিডিপি) প্রবৃদ্ধি হবে ৭ দশমিক ৮ শতাংশের ওপরে। চলতি অর্থবছর শেষে এটা ৮ দশমিক ২৫ শতাংশে দাঁড়াবে।’ তিনি বলেন, আগামী পাঁচ বছরে জিডিপির প্রবৃদ্ধির হার ৯ শতাংশে রাখা এবং পাঁচ বছরে ১০ শতাংশে উন্নীত করার পরিকল্পনা সরকারের। সব মিলিয়ে সরকার বাংলাদেশকে ২০৪১ সালে উন্নত দেশে পরিণত করতে চায়।

বক্তব্যের শেষ দিকে পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, ‘আমার অনেক বন্ধুবান্ধব। তারা আমার কাছে আসে না কেন জানি না। মনে হয় এলাকা দূর হয়ে যায়। তিনি বলেন, ‘আমি এই মুহূর্তে তাদের সাহায্য করতে পারব না। একটা কাজ করতে পারব, বাড়িতে যাওয়ার জন্য রাস্তা যদি সুন্দর না থাকে, প্রশস্ত না থাকে, আমি সেটা করে দিতে পারব। যার যার নিজের বাড়ির রাস্তা ঠিক আছে, শ্বশুর বাড়ির রাস্তা ঠিক নেই, সেটাও করে দিতে পারব।’ মন্ত্রী বলেন, ‘আমি সেতু ও কালভার্ট নির্মাণ করে দিতে পারব। বিদ্যুৎ দিতে পারব। গ্রামের যে বিদ্যালয়ে লেখাপড়া করেছেন, সেখানে ভবন করে দিতে পারব। আসলে খালি হাতে আসবেন, খালি হাতে ফিরবেন না। আপনাদের খিচুড়িও খাওয়াব।’

অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (বিডা) সভাপতি কাজী মো. আমিনুল ইসলাম, বিজিসিসিআইয়ের সভাপতি ওমর সাদাত প্রমুখ বক্তব্য দেন। ওমর সাদাত বলেন, অবকাঠামো, জমি, মূলধনের ঘাটতি, দক্ষ জনশক্তির অভাব, গ্যাসের সমস্যা ইত্যাদির কারণে দেশে পর্যাপ্ত বিদেশি বিনিয়োগ আসছে না।

নিউজটি শেয়ার করুন





সর্বস্বত্ব © ২০১৯ মাতৃভূমির খবর কর্তৃক সংরক্ষিত

Design & Developed BY ThemesBazar