ঢাকা ১০:১৮ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৮ মে ২০২২, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
মালদ্বীপের বাংলাদেশ দূতাবাসের উদ্যোগে প্রবাসীদের বর্ষবরণ ও ঈদ পৃর্নমিলন উদযাপন ঝড়ে লন্ডভন্ড নড়াইলের একটি মাদ্রাসা কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলায় কবি কাজী নজরুল ইসলামের জন্মজয়ন্তী উদযাপন কুসিক নির্বাচনে প্রতীক বরাদ্দ পেলেন যারা সিলেটের বন‍্যার্তদের পাশে বঞ্চিত নারী ও শিশু অধিকার ফাউন্ডেশন টাঙ্গাইলের ঘাটাইল থানা আকস্মিক পরিদর্শনে পুলিশ সুপার সরকার মোহাম্মদ কায়সার গজারিয়ায় মাদক, সন্ত্রাস,জঙ্গীবাদ ইভটিজিং, বাল্যবিবাহ,প্রতিরোধে বিট পুলিশের সভা অনুষ্ঠিত। নওগাঁর নিয়ামতপুরে শ্রীমন্তপুর ইউনিয়ন আওয়ামী যুবলীগ ও স্বেচ্ছাসেবক লীগের ত্রিবার্ষিক কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। কুমিল্লায় ট্রেনের চাকা লাইনচ্যুত হয়ে তিন রুটে চলাচল বন্ধ।

লিটন রান করতেই চান

পরশু নিল ম্যাকেঞ্জির সঙ্গে আলাদাভাবে সময় কাটাতে দেখা গেল লিটন দাসকে। ব্যাটিং কোচের কাছ থেকে কী শিখছেন বাংলাদেশ ওপেনার? লিটন শুধু জানালেন, ব্যাটিংয়ের কিছু টেকনিক নিয়ে ম্যাকেঞ্জির সঙ্গে কথা হয়েছে।

দক্ষতায় উন্নতির উদ্দেশ্য একটাই, ২২ গজের দুর্দান্ত কিছু করা, ইনিংস লম্বা করা। লিটনের সমস্যাটা এখানেই, কখনো অসাধারণ শুরু করেন, কিন্তু সেটি লম্বা করতে পারেন না। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে খেলা ৩৭ ইনিংসটির ১২টিই লিটন আউট হয়েছেন ২০ থেকে ৪০ রানের মধ্যে। এখনো পর্যন্ত ফিফটি পেয়েছেন মাত্র ৪টি। ভালো শুরুর পর লিটনের ইনিংস ‘বড়’ হয় না কেন? ‘যারা বড় বড় ক্রিকেটার তাঁরা ভালো শুরু করতে পারলে ইনিংস লম্বা করে। এখনো বড়দের কাতারে যেতে পারিনি তো, তাই বড় ইনিংস খেলা হচ্ছে না। চেষ্টা করছি ভালো কিছু করার, যেন বড় কিছু করতে পারি।’

ইনিংস বড় করার উপায়ও অজানা নয় লিটনের, ‘আউট হতে একটি বলই যথেষ্ট। কাজ করছি যে কোন শটগুলো নিখুঁত করা যায়। আপনাকে শুধু উইকেটে থাকলে তো হবে না, রানও করতে হবে। আর রান করতে হলে উইকেটে টিকে থাকলেই হবে না, ব্যাটও চালাতে হবে। এ বিষয়গুলোই এখন বিবেচনা করছি যে কোন শটটি খেললে রান পাওয়া যাবে।’

এবার এশিয়া কাপের দলে দুই ওপেনার সৌম্য সরকার নেই, এনামুল হক নেই। বোঝা যাচ্ছে, তামিম ইকবালের সঙ্গে ওপেন করবেন লিটন। এটিকে বড় সুযোগ হিসেবে নিচ্ছেন তরুণ ওপেনার, ‘এটি একটি ভালো সুযোগ। অনেক দিন ওয়ানডে দলের বাইরে আছি। যদি সুযোগ পাই অবশ্যই ভালো করার চেষ্টা করব।’ সেই ভালোটি কেমন—লিটনের ব্যাখ্যাটা যথারীতি তির্যক, ‘এখন পারফর্ম করার চেয়ে তো ভালো কিছু নেই। আপনারা রান চান, আমিও রান চাই।’

প্রায় তিন বছরের আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ার। এখনো দলে থিতু হতে পারেননি লিটন। প্রতিভাবান ব্যাটসম্যান, কিন্তু সম্ভাবনার ডালপালা ছড়ায়নি প্রত্যাশা অনুযায়ী। দলে নিয়মিত হওয়ার চ্যালেঞ্জটা উতরে যাওয়ার লক্ষ্য লিটনের, ‘একটি বড় টুর্নামেন্টে যাচ্ছি। আর যদি ওপেনিংয়ে খেলি এখানে ভালো করাটা অবশ্যই অনেক বড় চ্যালেঞ্জিং। চেষ্টা করব নিজের শতভাগ দেওয়ার। সে অনুযায়ী অনুশীলন করছি। ব্যাটিংয়ের কাজও চলছে। দেখা যাক কী করা যায়।’

পাকিস্তান কাল দল দিয়েছে ছয় পেসারকে নিয়ে। টুর্নামেন্টের অন্যতম ফেবারিট পাকিস্তানের পেস আক্রমণ তো আছেই, প্রতিটি দলেই ভালো মানের পেসার আছে। বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানরা প্রতিপক্ষের পেস আক্রমণ সামলাতে প্রস্তুত সেটিই বললেন লিটন, ‘দক্ষিণ আফ্রিকা, ওয়েস্ট ইন্ডিজের মতো এতটা কুইক বোলার নেই (এশিয়া কাপে)। দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতে যেমন দ্রুত গতির বল খেলে এসেছি সেটির তুলনায় এই টুর্নামেন্টের পেস বোলাররা তেমন কিছুই না। হয়তো ভালো খেলতে পারিনি দক্ষিণ আফ্রিকায়, তবে খেলার অভিজ্ঞতা তো হয়েছে।’

শুধু পেস আক্রমণ কেন, বাংলাদেশকে চ্যালেঞ্জ জানাতে প্রতিপক্ষ দলগুলোয় ভালো মানের স্পিনাররাও আছে। স্পিনারদের কথা বললে সবার আগে আসবে রশিদ খান। আফগান লেগ স্পিনার কতটা মূর্তিমান আতঙ্ক হয়ে উঠেছিলেন, সেটি গত জুনে দেরাদুনে দেখা গেছে। এবার অবশ্য ভিন্ন প্রেক্ষাপট। টুর্নামেন্টটা ৫০ ওভারে হবে বলেই, রশিদকে বড় চ্যালেঞ্জ হিসেবে মনে করেন না লিটন, ‘সে (রশিদ) অনেক ভালো বোলিং করে, বিশ্বে এখন সে দাপট দেখাচ্ছে। তবে আপনাকে এটাও বুঝতে হবে যে এখানে সংস্করণ ভিন্ন। টি টোয়েন্টিতে দ্রুত রান করার তাগিদ থাকে। ওয়ানডে ক্রিকেটে সময় পাওয়া যাবে তাঁকে খেলতে।’

Tag :
আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

মালদ্বীপের বাংলাদেশ দূতাবাসের উদ্যোগে প্রবাসীদের বর্ষবরণ ও ঈদ পৃর্নমিলন উদযাপন

লিটন রান করতেই চান

আপডেট টাইম ১০:৫৯:২৭ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮

পরশু নিল ম্যাকেঞ্জির সঙ্গে আলাদাভাবে সময় কাটাতে দেখা গেল লিটন দাসকে। ব্যাটিং কোচের কাছ থেকে কী শিখছেন বাংলাদেশ ওপেনার? লিটন শুধু জানালেন, ব্যাটিংয়ের কিছু টেকনিক নিয়ে ম্যাকেঞ্জির সঙ্গে কথা হয়েছে।

দক্ষতায় উন্নতির উদ্দেশ্য একটাই, ২২ গজের দুর্দান্ত কিছু করা, ইনিংস লম্বা করা। লিটনের সমস্যাটা এখানেই, কখনো অসাধারণ শুরু করেন, কিন্তু সেটি লম্বা করতে পারেন না। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে খেলা ৩৭ ইনিংসটির ১২টিই লিটন আউট হয়েছেন ২০ থেকে ৪০ রানের মধ্যে। এখনো পর্যন্ত ফিফটি পেয়েছেন মাত্র ৪টি। ভালো শুরুর পর লিটনের ইনিংস ‘বড়’ হয় না কেন? ‘যারা বড় বড় ক্রিকেটার তাঁরা ভালো শুরু করতে পারলে ইনিংস লম্বা করে। এখনো বড়দের কাতারে যেতে পারিনি তো, তাই বড় ইনিংস খেলা হচ্ছে না। চেষ্টা করছি ভালো কিছু করার, যেন বড় কিছু করতে পারি।’

ইনিংস বড় করার উপায়ও অজানা নয় লিটনের, ‘আউট হতে একটি বলই যথেষ্ট। কাজ করছি যে কোন শটগুলো নিখুঁত করা যায়। আপনাকে শুধু উইকেটে থাকলে তো হবে না, রানও করতে হবে। আর রান করতে হলে উইকেটে টিকে থাকলেই হবে না, ব্যাটও চালাতে হবে। এ বিষয়গুলোই এখন বিবেচনা করছি যে কোন শটটি খেললে রান পাওয়া যাবে।’

এবার এশিয়া কাপের দলে দুই ওপেনার সৌম্য সরকার নেই, এনামুল হক নেই। বোঝা যাচ্ছে, তামিম ইকবালের সঙ্গে ওপেন করবেন লিটন। এটিকে বড় সুযোগ হিসেবে নিচ্ছেন তরুণ ওপেনার, ‘এটি একটি ভালো সুযোগ। অনেক দিন ওয়ানডে দলের বাইরে আছি। যদি সুযোগ পাই অবশ্যই ভালো করার চেষ্টা করব।’ সেই ভালোটি কেমন—লিটনের ব্যাখ্যাটা যথারীতি তির্যক, ‘এখন পারফর্ম করার চেয়ে তো ভালো কিছু নেই। আপনারা রান চান, আমিও রান চাই।’

প্রায় তিন বছরের আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ার। এখনো দলে থিতু হতে পারেননি লিটন। প্রতিভাবান ব্যাটসম্যান, কিন্তু সম্ভাবনার ডালপালা ছড়ায়নি প্রত্যাশা অনুযায়ী। দলে নিয়মিত হওয়ার চ্যালেঞ্জটা উতরে যাওয়ার লক্ষ্য লিটনের, ‘একটি বড় টুর্নামেন্টে যাচ্ছি। আর যদি ওপেনিংয়ে খেলি এখানে ভালো করাটা অবশ্যই অনেক বড় চ্যালেঞ্জিং। চেষ্টা করব নিজের শতভাগ দেওয়ার। সে অনুযায়ী অনুশীলন করছি। ব্যাটিংয়ের কাজও চলছে। দেখা যাক কী করা যায়।’

পাকিস্তান কাল দল দিয়েছে ছয় পেসারকে নিয়ে। টুর্নামেন্টের অন্যতম ফেবারিট পাকিস্তানের পেস আক্রমণ তো আছেই, প্রতিটি দলেই ভালো মানের পেসার আছে। বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানরা প্রতিপক্ষের পেস আক্রমণ সামলাতে প্রস্তুত সেটিই বললেন লিটন, ‘দক্ষিণ আফ্রিকা, ওয়েস্ট ইন্ডিজের মতো এতটা কুইক বোলার নেই (এশিয়া কাপে)। দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতে যেমন দ্রুত গতির বল খেলে এসেছি সেটির তুলনায় এই টুর্নামেন্টের পেস বোলাররা তেমন কিছুই না। হয়তো ভালো খেলতে পারিনি দক্ষিণ আফ্রিকায়, তবে খেলার অভিজ্ঞতা তো হয়েছে।’

শুধু পেস আক্রমণ কেন, বাংলাদেশকে চ্যালেঞ্জ জানাতে প্রতিপক্ষ দলগুলোয় ভালো মানের স্পিনাররাও আছে। স্পিনারদের কথা বললে সবার আগে আসবে রশিদ খান। আফগান লেগ স্পিনার কতটা মূর্তিমান আতঙ্ক হয়ে উঠেছিলেন, সেটি গত জুনে দেরাদুনে দেখা গেছে। এবার অবশ্য ভিন্ন প্রেক্ষাপট। টুর্নামেন্টটা ৫০ ওভারে হবে বলেই, রশিদকে বড় চ্যালেঞ্জ হিসেবে মনে করেন না লিটন, ‘সে (রশিদ) অনেক ভালো বোলিং করে, বিশ্বে এখন সে দাপট দেখাচ্ছে। তবে আপনাকে এটাও বুঝতে হবে যে এখানে সংস্করণ ভিন্ন। টি টোয়েন্টিতে দ্রুত রান করার তাগিদ থাকে। ওয়ানডে ক্রিকেটে সময় পাওয়া যাবে তাঁকে খেলতে।’