শনিবার, ৩১ অক্টোবর ২০২০, ০৬:৪৪ অপরাহ্ন

রাজাপুরে পুলিশের বিরুদ্ধে ৭ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে তালা লাগিয়ে দেয়ার অভিযোগ, মালামাল নিয়ে ব্যবসায়ীরা বিপাকে!

রাজাপুর (ঝালকাঠি) প্রতিনিধি ঃ ঝালকাঠির রাজাপুর মেডিকেল মোড় এলাকায় জমি নিয়ে বিরোধের জের ধরে ৭টি দোকানে পুলিশ তালা লাগিয়ে দিয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। বৃহস্পতিবার বিকেলে এ ঘটনায় ওই ৭ দোকানের ব্যবসায়ীদের মালামাল আটকা পড়ায় চরম বিপাকে পড়েছেন। দীর্ঘদিনের এ বিরোধের ঘটনায় শালিশ চলাকালিন এ তালা দেয়ার ঘটনায় এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। জানা গেছে, মেডিকেল মোড় এলাকার আরিফ মৃধা দলিলমূলে হাজি আবতাব উদ্দিনের কাছ থেকে ৪৭ নং রাজাপুর মৌজার এসএ ২১৩৫ নং খতিয়ানের ২৮৩ দাগের ১০ শতাংশ জমি ক্রয় করেন এবং একই দাগ থেকে আব্দুর রব দলিলমূলে ৩ শতাংশ ক্রয় করে। কিন্তু ক্রয়কৃত ওই ১৩ শতাংশ জমি থেকে হাইওয়ে সড়কে ৭ শতাংশ চলে যায়। বাকি ৬ শতাংশ জমি নিয়ে আরিফ ও রবের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিলো। এঘটনায় আব্দুর রব পুলিশের কাছে অভিযোগ দিলে পুলিশ ওই এলাকার গিয়াস উদ্দিন, মোজাম্মেল তালুকদার, শহিদ মৃধা ও মনির আকনে উভয় পক্ষের শালিশ মনোনিত করেন। ওই শালিশের ২ দফায় বৈঠকও হয়েছিলো। ব্যবসায়ীর জানান, শালিশের চুড়ান্ত কোন সিদ্ধান্ত হওয়ার আগেই বৃহস্পতিবার বিকেলে পুলিশ ওই বিরোধীয় জমির ৭টি দোকানে কোন প্রকার নোটিশ ছাড়াই তালা লাগিয়ে দেয়। এ বিষয়ে রব জানায়, দীর্ঘ দিন ধরে এ জমি নিয়ে বিরোধ ও শালিশ চলে আসছে। বৃহস্পতিবার পুলিশ তাকে ফোনে ডেকে ওই স্থানে যেতে এবং পুলিশ তালা লাগিয়ে দেয় বলে রব জানান। তিনি জানান, বর্তমান শালিশ শেষ হয়নি। তবে এর আগে একাধিক শালিশ হয়েছে। আরিফ মৃধা অভিযোগ করে জানান, শালিশ চলমান থাকায় কোন প্রকার আদালতের নির্দেশ বা নোটিশ ছাড়া পুলিশ অন্যায়ভাবে ৭টি দোকানে তালা লাগিয়ে দিয়েছে যা খুবই দুঃখজনক। এ ঘটনা তদন্ত পূর্বক সমাধান দাবি করেন তিনি। তালা লাগানোর অভিযোগ অস্বীকার করে রাজাপুর থানার ওসি মোঃ জাহিদ হোসেন জানান, যাদের ঘর তারা দখলে নিয়েছে, দীর্ঘদিন বেদখল ছিল। কোন প্রকার নোটিশ ছাড়া ও শালিশ চলমান অবস্থায় তালা লাগিয়ে দেওয়ার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি কোন মন্তব্য না করে জানান ওই জমি ও ঘরের মালিকের কাছে থেকে জানেন।

নিউজটি শেয়ার করুন





সর্বস্বত্ব © ২০১৯ মাতৃভূমির খবর কর্তৃক সংরক্ষিত

Design & Developed BY ThemesBazar