ঢাকা ০২:৪৩ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ০৪ জুলাই ২০২২, ১৯ আষাঢ় ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
ইউএসটিসি ছাত্রদলের ৫ সদস্যের আহবায়ক কমিটির ৩ সদস্যের পদত্যাগ। পবিপ্রবিতে নিরাপদ খাদ্য ব্যবস্থাপনায় উৎপাদিত তেলাপিয়া ও পাঙ্গাস মাছের নিলাম অনুষ্ঠিত টাঙ্গাইলে এনটিভির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন লক্ষ্মীপুরে পুলিশের নায়েক থেকে সহকারী উপ পরিদর্শক হলেন ৬ জন পানি, খাবার এবং ঔষধ বিতরণ করেন KSA গোল্ডেন বয় সোসাইটি বোয়ালমারীতে গরুবাহী ট্রাকের চাপায় মা-মেয়ে নিহত কাঞ্চনায় স্কুল পরিচালনা নিয়ে মন্তব্য করায় হেনস্তার অভিযোগ মাত্র ৩০ সেকেন্ড টর্নেডোতে লন্ডভন্ড পটুয়াখালীর চরপাড়া। একটি মানবিক সাহায্যের জন্য আবেদন বাঁচতে চাই ক্যান্সারে আক্রান্ত মোহাম্মদ আরমান গজারিয়ায় ঢাকা চট্টগ্রাম মহাসড়কে ভবেরচর কলেজ রোডে সড়ক দূর্ঘটনা আহত ৫

রাখাইনে ফের সেনা অভিযান

ফাইল ছবি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :   মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে ফের জাতিগত নিধন অভিযান শুরু করেছে সেনাবাহিনী। দেশটির সংঘাতকবলিত রাখাইনের উত্তরাঞ্চলে পৃথক দুটি হামলায় দুই বৌদ্ধধর্মাবলম্বী নিহত এবং দুজন আহত হওয়ার পর এই অভিযান শুরু হয়েছে। বৃহস্পতিবার মিয়ানমারের সেনাপ্রধানের কার্যালয় এক বিবৃতির মাধ্যমে এ অভিযানের কথা জানিয়েছে।

রাখাইনের একটি সশস্ত্র দল ও সেনাবাহিনীর মধ্যে যুদ্ধে শত শত পরিবার তাদের বাড়িঘর ছেড়ে অন্যত্র পালিয়েছে। মিয়ানমারের সেনাপ্রধান মিন অং হ্লাইংয়ের কার্যালয়ের এক বিবৃতিতে বলা হয়, উত্তরাঞ্চলীয় রাখাইন রাজ্যের মংগদু জেলার কেইন চং গ্রামের দুই বৌদ্ধধর্মাবলম্বী সোমবার রাতে মাছ ধরতে গিয়ে ফেরত না আসায় সেনাবাহিনী অভিযান চালায়।

সেনাবাহিনীর বিবৃতিতে দাবি করা হয়, ওই দুই ব্যক্তির ওপর ছয়জন অজ্ঞাতনামা ব্যক্তি হামলা চালালে তারা নিহত হন। হামলাকারী ওই ছয় ব্যক্তি বাংলাভাষী। তারা একটি নৌকায় করে এসে হামলা চালায়। এসময় অন্যান্য গ্রামবাসী সেখানে উপস্থিত হলে হামলাকারীরা পালিয়ে যায়।

স্থানীয় বাসিন্দারা বলছেন, এ ঘটনার পর মিয়ানমার সেনাবাহিনী ওই এলাকায় অতিরিক্ত সেনা মোতায়েন শুরু করে। সেনা মোতায়েন শুরু হলে গ্রামের প্রায় অর্ধেক মানুষ অভিযানের আশঙ্কায় বাড়িঘর ছেড়ে পালিয়ে যায়। কেননা দেশটির সংখ্যালঘু হওয়ায় তারা সেনাবাহিনী ও বৌদ্ধধর্মালম্বীদের দ্বারা আক্রান্ত হওয়ার ভয়ে ছিলেন।

Tag :
জনপ্রিয় সংবাদ

ইউএসটিসি ছাত্রদলের ৫ সদস্যের আহবায়ক কমিটির ৩ সদস্যের পদত্যাগ।

রাখাইনে ফের সেনা অভিযান

আপডেট টাইম ০২:০২:১৪ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২২ ডিসেম্বর ২০১৮

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :   মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে ফের জাতিগত নিধন অভিযান শুরু করেছে সেনাবাহিনী। দেশটির সংঘাতকবলিত রাখাইনের উত্তরাঞ্চলে পৃথক দুটি হামলায় দুই বৌদ্ধধর্মাবলম্বী নিহত এবং দুজন আহত হওয়ার পর এই অভিযান শুরু হয়েছে। বৃহস্পতিবার মিয়ানমারের সেনাপ্রধানের কার্যালয় এক বিবৃতির মাধ্যমে এ অভিযানের কথা জানিয়েছে।

রাখাইনের একটি সশস্ত্র দল ও সেনাবাহিনীর মধ্যে যুদ্ধে শত শত পরিবার তাদের বাড়িঘর ছেড়ে অন্যত্র পালিয়েছে। মিয়ানমারের সেনাপ্রধান মিন অং হ্লাইংয়ের কার্যালয়ের এক বিবৃতিতে বলা হয়, উত্তরাঞ্চলীয় রাখাইন রাজ্যের মংগদু জেলার কেইন চং গ্রামের দুই বৌদ্ধধর্মাবলম্বী সোমবার রাতে মাছ ধরতে গিয়ে ফেরত না আসায় সেনাবাহিনী অভিযান চালায়।

সেনাবাহিনীর বিবৃতিতে দাবি করা হয়, ওই দুই ব্যক্তির ওপর ছয়জন অজ্ঞাতনামা ব্যক্তি হামলা চালালে তারা নিহত হন। হামলাকারী ওই ছয় ব্যক্তি বাংলাভাষী। তারা একটি নৌকায় করে এসে হামলা চালায়। এসময় অন্যান্য গ্রামবাসী সেখানে উপস্থিত হলে হামলাকারীরা পালিয়ে যায়।

স্থানীয় বাসিন্দারা বলছেন, এ ঘটনার পর মিয়ানমার সেনাবাহিনী ওই এলাকায় অতিরিক্ত সেনা মোতায়েন শুরু করে। সেনা মোতায়েন শুরু হলে গ্রামের প্রায় অর্ধেক মানুষ অভিযানের আশঙ্কায় বাড়িঘর ছেড়ে পালিয়ে যায়। কেননা দেশটির সংখ্যালঘু হওয়ায় তারা সেনাবাহিনী ও বৌদ্ধধর্মালম্বীদের দ্বারা আক্রান্ত হওয়ার ভয়ে ছিলেন।