ঢাকা ১২:০৭ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৪ মে ২০২২, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
আসামি গ্রেফতারকালে কবজি বিচ্ছিন্ন হওয়া পুলিশ সদস্যের শয্যাপাশে আইজিপি সোনারগাঁয়ে একজন সফল ব্যবসায়ী ও দানবীর সমাজ সেবক হাজী শাকিল রানা। বাঁশখালীতে একুশে হসপিটালে পরিচালকদের মতবিনিময় সভা ও অফিস উদ্ভোদন। টাঙ্গাইলে ছাত্রদলের বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত টাঙ্গাইলে জেলা পুলিশের প্রশাসনিক সভা অনুষ্ঠিত মতলব উত্তরে কৃষকদের নিয়ে প্রীতি ফুটবল ম্যাচ অনুষ্ঠিত বুদ্ধি প্রতিবন্ধী কিশোরীকে ধর্ষণ ,প্রভাবশালীদের ধামাচাপার চেষ্টা চলছে। ফটিকছড়িতে সড়ক দুর্ঘটনায় সি এন জি চালক নিহত নড়াইলে চেয়ারম্যান এর স্বাক্ষর জাল করায় এক ব্যক্তির ভ্র্যামমান আদালতে জেল জরিমানা কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে কিশোর গ্যাং কর্তৃক ব্রিক ফিল্ডে হামলা, অফিস-গাড়ী ভাংচুর, ১৫ লাখ টাকা লুট

রাইড শেয়ারিংয়ে বিনিয়োগ করছে মাইক্রোসফট

দক্ষিণ এশিয়ার রাইড শেয়ারিং প্রতিষ্ঠান গ্র্যাবে বিনিয়োগ করছে বিশ্বের বৃহত্তম সফটওয়্যার নির্মাতা প্রতিষ্ঠান মাইক্রোসফট। মাইক্রোসফট ও গ্র্যাবের সঙ্গে এ নিয়ে একটি চুক্তি হয়েছে। এতে বিগ ডেটা, আর্টিফিশিয়াল ইনটেলিজেন্সসহ প্রযুক্তির বিভিন্ন ক্ষেত্রে যৌথভাবে কাজ করতে পারে প্রতিষ্ঠান দুটি। তবে এ চুক্তির আর্থিক মূল্য প্রকাশ করেনি গ্র্যাব ও মাইক্রোসফট।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, এ বছরের শেষ নাগাদ ৩০০ কোটি মার্কিন ডলার বিনিয়োগ সংগ্রহের কথা আগেই জানিয়েছিল গ্র্যাব। এর মধ্যে প্রতিষ্ঠানটি ২০০ কোটি ডলার সংগ্রহ করেছে। গত সপ্তাহে সফটব্যাংক গ্রুপ ৫০ কোটি মার্কিন ডলারের বিনিয়োগ পর্ব শেষ করেছে। গ্র্যাব বর্তমানে বিনিয়োগকারী হিসেবে কৌশলগত ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোর কাছে যাচ্ছে। আজ মঙ্গলবার করার চুক্তির আগে টয়োটা মটরস করপোরেশন ও মাইক্রোসফটের সহযোগী প্রতিষ্ঠাতা পল অ্যালেনের ভুলকান ক্যাপিটালের কাছ থেকে বিনিয়োগ পেয়েছে গ্র্যাব।

গ্র্যাবের প্রধান কার্যালয় সিঙ্গাপুরে অবস্থিত। গত ছয় বছর ধরে দক্ষিণ এশিয়ার আটটি দেশের ২৩৫টি শহরে রাইড শেয়ারিং সেবা দিচ্ছে প্রতিষ্ঠানটি। রাইড শেয়ারিংয়ের পাশাপাশি খাবার ও পণ্য সরবরাহ, ই-পেমেন্ট ও ক্ষুদ্র ঋণের মতো কর্মসূচিও চালাচ্ছে প্রতিষ্ঠানটি।

মাইক্রোসফটের সঙ্গে মোবাইল ফেসিয়াল রিকগনিশন, ইমেজ রিকগনিশন, কম্পিউটার ভিশন প্রযুক্তির মতো নানা প্রযুক্তি নিয়ে কাজ করবে গ্র্যাব। এর মাধ্যমে কোনো স্থানের ছবি তুলে সেখানকার অবস্থান জানতে পারবেন ব্যবহারকারী। এতে চালক ওই জায়গা সহজেই চিনে যেতে পারবেন। এ ছাড়া মাইক্রেসফটের ক্লাউড প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করবে গ্র্যাব।

বিশ্লেষকেরা বলছেন, দক্ষিণপূর্ব এশিয়া এখন বৈশ্বিক প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানগুলোর লড়াইয়ের ক্ষেত্রে পরিণত হয়েছে। আলিবাবা, টেনসেন্ট হোল্ডিংস, জেডি ডটকম, অ্যালফাবেটের গুগল, সফটব্যাংকের মতো প্রতিষ্ঠানগুলো রাইড শেয়ারিং, অনলাইন পেমেন্ট ও ই-কমার্সের মতো বিষয়গুলো নিয়ে এ অঞ্চল দখল করতে চাইছে।

বর্তমানে ইন্দোনেশিয়াভিত্তিক উদ্যোগ গো-জেকের সঙ্গে তীব্র প্রতিযোগিতা শুরু হয়েছে গ্র্যাবের।

Tag :
আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

আসামি গ্রেফতারকালে কবজি বিচ্ছিন্ন হওয়া পুলিশ সদস্যের শয্যাপাশে আইজিপি

রাইড শেয়ারিংয়ে বিনিয়োগ করছে মাইক্রোসফট

আপডেট টাইম ০৮:৩৫:২৬ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ৯ অক্টোবর ২০১৮

দক্ষিণ এশিয়ার রাইড শেয়ারিং প্রতিষ্ঠান গ্র্যাবে বিনিয়োগ করছে বিশ্বের বৃহত্তম সফটওয়্যার নির্মাতা প্রতিষ্ঠান মাইক্রোসফট। মাইক্রোসফট ও গ্র্যাবের সঙ্গে এ নিয়ে একটি চুক্তি হয়েছে। এতে বিগ ডেটা, আর্টিফিশিয়াল ইনটেলিজেন্সসহ প্রযুক্তির বিভিন্ন ক্ষেত্রে যৌথভাবে কাজ করতে পারে প্রতিষ্ঠান দুটি। তবে এ চুক্তির আর্থিক মূল্য প্রকাশ করেনি গ্র্যাব ও মাইক্রোসফট।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, এ বছরের শেষ নাগাদ ৩০০ কোটি মার্কিন ডলার বিনিয়োগ সংগ্রহের কথা আগেই জানিয়েছিল গ্র্যাব। এর মধ্যে প্রতিষ্ঠানটি ২০০ কোটি ডলার সংগ্রহ করেছে। গত সপ্তাহে সফটব্যাংক গ্রুপ ৫০ কোটি মার্কিন ডলারের বিনিয়োগ পর্ব শেষ করেছে। গ্র্যাব বর্তমানে বিনিয়োগকারী হিসেবে কৌশলগত ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোর কাছে যাচ্ছে। আজ মঙ্গলবার করার চুক্তির আগে টয়োটা মটরস করপোরেশন ও মাইক্রোসফটের সহযোগী প্রতিষ্ঠাতা পল অ্যালেনের ভুলকান ক্যাপিটালের কাছ থেকে বিনিয়োগ পেয়েছে গ্র্যাব।

গ্র্যাবের প্রধান কার্যালয় সিঙ্গাপুরে অবস্থিত। গত ছয় বছর ধরে দক্ষিণ এশিয়ার আটটি দেশের ২৩৫টি শহরে রাইড শেয়ারিং সেবা দিচ্ছে প্রতিষ্ঠানটি। রাইড শেয়ারিংয়ের পাশাপাশি খাবার ও পণ্য সরবরাহ, ই-পেমেন্ট ও ক্ষুদ্র ঋণের মতো কর্মসূচিও চালাচ্ছে প্রতিষ্ঠানটি।

মাইক্রোসফটের সঙ্গে মোবাইল ফেসিয়াল রিকগনিশন, ইমেজ রিকগনিশন, কম্পিউটার ভিশন প্রযুক্তির মতো নানা প্রযুক্তি নিয়ে কাজ করবে গ্র্যাব। এর মাধ্যমে কোনো স্থানের ছবি তুলে সেখানকার অবস্থান জানতে পারবেন ব্যবহারকারী। এতে চালক ওই জায়গা সহজেই চিনে যেতে পারবেন। এ ছাড়া মাইক্রেসফটের ক্লাউড প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করবে গ্র্যাব।

বিশ্লেষকেরা বলছেন, দক্ষিণপূর্ব এশিয়া এখন বৈশ্বিক প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানগুলোর লড়াইয়ের ক্ষেত্রে পরিণত হয়েছে। আলিবাবা, টেনসেন্ট হোল্ডিংস, জেডি ডটকম, অ্যালফাবেটের গুগল, সফটব্যাংকের মতো প্রতিষ্ঠানগুলো রাইড শেয়ারিং, অনলাইন পেমেন্ট ও ই-কমার্সের মতো বিষয়গুলো নিয়ে এ অঞ্চল দখল করতে চাইছে।

বর্তমানে ইন্দোনেশিয়াভিত্তিক উদ্যোগ গো-জেকের সঙ্গে তীব্র প্রতিযোগিতা শুরু হয়েছে গ্র্যাবের।