ঢাকা ০৫:০৩ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৭ জানুয়ারী ২০২৩, ১৪ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
সারা দেশব্যাপী কেন্দ্রীয় ফারিয়ার ৭ম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালনে কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন রেকর্ড গড়ল শাহরুখের ‘পাঠান’ বিদেশেও অপ্রতিরোধ্য সীমান্তে হত্যা এবং মাদকদ্রব্যসহ সকল চোরাচালান বন্ধের দাবিতে সমাবেশ ও কাঁটাতার মিছিল মসজিদে নামাজের মধ্যদিয়ে মুসল্লিদের মাঝে হৃদ্যতা বাড়ে : আলহাজ্ব আ জ ম নাছির উদ্দিন শখ থেকে উদ্যোক্তা, কোয়েল পাখির ডিম বিক্রি করে মাসে আয় আড়াই লাখ। নড়াইল-২ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য মুফতি শহিদুল ইসলামের ইন্তেকাল বাউফলে সরকারি চাল বাজারজাত করার সময় বাবা-ছেলে আটক। থানায় আগত সেবা প্রত্যাশীদের যথাযথ আইনি সহায়তা প্রদান করুন: আইজিপি জননেত্রী শেখ হাসিনার আমলে বাংলাদেশের মানুষ শান্তিতে বসবাস করতে পারেঃ” আব্দুস সালাম মূর্শেদী এমপি” কলাপাড়ার মহিপুরে ৫০ মণ জাটকাসহ ট্রলার জব্দ।

যুক্তরাষ্ট্র-চীন বাণিজ্যযুদ্ধে অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি কমবে বিশ্বের

যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের মধ্যে বাণিজ্যযুদ্ধের কারণে বিশ্ব অর্থনীতি আরও ‘দরিদ্র ও বিপজ্জনক’ হয়ে পড়ার ঝুঁকি তৈরি হয়েছে বলে মনে করছে আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল (আইএমএফ)। ২০২০ সাল নাগাদ বিশ্ব অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি কমতে পারে শূন্য দশমিক ৮০ শতাংশ। সংস্থাটি তাদের সর্বশেষ বিশ্ব অর্থনৈতিক মূল্যায়নে এ বিষয়ে সতর্ক করেছে।

বিশ্ব অর্থনীতির পরিস্থিতি নিয়ে এক বার্ষিক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে আইএমএফ। চলতি বছর ও আগামী বছরের জন্য অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির পূর্বাভাসও কমিয়েছে সংস্থাটি। তারা মনে করছে, যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের মধ্যে ধুন্ধুমার বাণিজ্যযুদ্ধের কারণে অর্থনৈতিক পুনরুদ্ধারের ক্ষেত্রে চোখে পড়ার মতো খাদ তৈরি হবে। বিবিসি অনলাইনের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

আইএমএফের প্রধান অর্থনীতিবিদ মরিস ওবস্টফেল্ড বলেন, আরও বাণিজ্য বাধা আরোপ করা হলে অর্থনীতি, ব্যবসা ও সামষ্টিক অর্থনীতিতে ব্যাপক আঘাত আসবে। তিনি আরও বলেন, বাণিজ্যনীতি রাজনীতিতে প্রতিফলিত হয়। অনেক দেশই রাজনৈতিকভাবে এখন অস্থিতিশীল। এতে ঝুঁকি বেশি।

সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্র থেকে ৬০ বিলিয়ন ডলার আমদানিতে শুল্ক আরোপের ঘোষণা দিয়েছে চীন। এর মধ্যে রয়েছে তরল প্রাকৃতিক গ্যাস। এর আগে গত মাসে যুক্তরাষ্ট্র নতুন করে ২০০ বিলিয়ন ডলার চীনা পণ্যের ওপর শুল্ক আরোপ করে। এর জবাবেই ওই সিদ্ধান্ত নেয় চীন।

চীনের শুল্ক আরোপের পর এক টুইটে ট্রাম্প আসন্ন মার্কিন মধ্যবর্তী নির্বাচনে প্রভাব না ফেলতে বেইজিংকে সতর্ক করে দেন।

গত জুলাইয়ে চলতি বছর ও আগামী বছর বিশ্ব অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি ৩ দশমিক ৯ শতাংশ হবে বলে পূর্বাভাস দেয় আইএমএফ। এবার তা কমিয়েছে তারা। সংস্থাটি মনে করছে, চলতি বছর ও আগামী বছর ৩ দশমিক ৭ শতাংশ প্রবৃদ্ধি হবে। মূলত ইউরোজোনের শ্লথ প্রবৃদ্ধি ও উদীয়মান বাজার অর্থনীতির দেশগুলোতে অস্থিতিশীলতা থাকায় এই প্রবৃদ্ধি কমবে। ব্যাপক মূল্যস্ফীতিতে থাকায় ভেনেজুয়েলা ও আর্জেন্টিনার অর্থনীতি বিশ্ব অর্থনীতিতে নেতিবাচক প্রভাব ফেলবে।

২০১৯ সালে বাণিজ্যযুদ্ধের নেতিবাচক প্রভাব পড়বে যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের অর্থনীতিতে। প্রবৃদ্ধি কমবে দুটি দেশেরই। আইএমএফের প্রধান অর্থনীতিবিদ বলছেন, এই দুই দেশ কোনো সমঝোতায় না গেলে বিশ্ব অর্থনীতি আরও দরিদ্র ও ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়বে। ২০১৯ সালে চীনের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি হবে ৫ শতাংশের নিচে, যা এখন ৬ দশমিক ২ শতাংশ।

২০১৯ সালে যুক্তরাজ্যের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি হবে দেড় শতাংশ। চলতি বছরে হতে পারে ১ দশমিক ৪ শতাংশ।

Tag :
আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

সারা দেশব্যাপী কেন্দ্রীয় ফারিয়ার ৭ম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালনে কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন

যুক্তরাষ্ট্র-চীন বাণিজ্যযুদ্ধে অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি কমবে বিশ্বের

আপডেট টাইম ১০:৪২:১২ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১০ অক্টোবর ২০১৮

যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের মধ্যে বাণিজ্যযুদ্ধের কারণে বিশ্ব অর্থনীতি আরও ‘দরিদ্র ও বিপজ্জনক’ হয়ে পড়ার ঝুঁকি তৈরি হয়েছে বলে মনে করছে আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল (আইএমএফ)। ২০২০ সাল নাগাদ বিশ্ব অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি কমতে পারে শূন্য দশমিক ৮০ শতাংশ। সংস্থাটি তাদের সর্বশেষ বিশ্ব অর্থনৈতিক মূল্যায়নে এ বিষয়ে সতর্ক করেছে।

বিশ্ব অর্থনীতির পরিস্থিতি নিয়ে এক বার্ষিক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে আইএমএফ। চলতি বছর ও আগামী বছরের জন্য অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির পূর্বাভাসও কমিয়েছে সংস্থাটি। তারা মনে করছে, যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের মধ্যে ধুন্ধুমার বাণিজ্যযুদ্ধের কারণে অর্থনৈতিক পুনরুদ্ধারের ক্ষেত্রে চোখে পড়ার মতো খাদ তৈরি হবে। বিবিসি অনলাইনের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

আইএমএফের প্রধান অর্থনীতিবিদ মরিস ওবস্টফেল্ড বলেন, আরও বাণিজ্য বাধা আরোপ করা হলে অর্থনীতি, ব্যবসা ও সামষ্টিক অর্থনীতিতে ব্যাপক আঘাত আসবে। তিনি আরও বলেন, বাণিজ্যনীতি রাজনীতিতে প্রতিফলিত হয়। অনেক দেশই রাজনৈতিকভাবে এখন অস্থিতিশীল। এতে ঝুঁকি বেশি।

সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্র থেকে ৬০ বিলিয়ন ডলার আমদানিতে শুল্ক আরোপের ঘোষণা দিয়েছে চীন। এর মধ্যে রয়েছে তরল প্রাকৃতিক গ্যাস। এর আগে গত মাসে যুক্তরাষ্ট্র নতুন করে ২০০ বিলিয়ন ডলার চীনা পণ্যের ওপর শুল্ক আরোপ করে। এর জবাবেই ওই সিদ্ধান্ত নেয় চীন।

চীনের শুল্ক আরোপের পর এক টুইটে ট্রাম্প আসন্ন মার্কিন মধ্যবর্তী নির্বাচনে প্রভাব না ফেলতে বেইজিংকে সতর্ক করে দেন।

গত জুলাইয়ে চলতি বছর ও আগামী বছর বিশ্ব অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি ৩ দশমিক ৯ শতাংশ হবে বলে পূর্বাভাস দেয় আইএমএফ। এবার তা কমিয়েছে তারা। সংস্থাটি মনে করছে, চলতি বছর ও আগামী বছর ৩ দশমিক ৭ শতাংশ প্রবৃদ্ধি হবে। মূলত ইউরোজোনের শ্লথ প্রবৃদ্ধি ও উদীয়মান বাজার অর্থনীতির দেশগুলোতে অস্থিতিশীলতা থাকায় এই প্রবৃদ্ধি কমবে। ব্যাপক মূল্যস্ফীতিতে থাকায় ভেনেজুয়েলা ও আর্জেন্টিনার অর্থনীতি বিশ্ব অর্থনীতিতে নেতিবাচক প্রভাব ফেলবে।

২০১৯ সালে বাণিজ্যযুদ্ধের নেতিবাচক প্রভাব পড়বে যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের অর্থনীতিতে। প্রবৃদ্ধি কমবে দুটি দেশেরই। আইএমএফের প্রধান অর্থনীতিবিদ বলছেন, এই দুই দেশ কোনো সমঝোতায় না গেলে বিশ্ব অর্থনীতি আরও দরিদ্র ও ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়বে। ২০১৯ সালে চীনের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি হবে ৫ শতাংশের নিচে, যা এখন ৬ দশমিক ২ শতাংশ।

২০১৯ সালে যুক্তরাজ্যের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি হবে দেড় শতাংশ। চলতি বছরে হতে পারে ১ দশমিক ৪ শতাংশ।