ঢাকা ০১:৫৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১২ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
হানিমুনে এসে স্বামীকে পিটিয়ে উধাও নববধূঃ প্রেমিকসহ গ্রেফতার এক ইলিশের দাম ৫ হাজার কলাপাড়ায় গাঁজাসহ ৪ জন গ্রেফতার প্রবাসে কাজের সন্ধানে গিয়ে প্রবাসীর মৃত্যু , তিন মাসপর নিজ বাড়িতে দাফন পটুয়াখালী জেলা শাখার সোনালী অতীত ক্লাবের পরিচিতি সভা অনুষ্ঠিত দুর্গাপূজায় নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে পুলিশ কর্মকর্তাদের প্রতি নির্দেশ আইজিপির অবৈধ দখল বাজদের দখলে বাকেরগঞ্জের পৌর শহরের বুক চিরে বয়ে যাওয়া শ্রীমন্ত নদীর দু পাশ প্রধানমন্ত্রীর ৭৬ তম জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানিয়েছন সোনারগাঁয়ে কাঁচপুরে স্বেচ্ছাসেবক লীগের কর্মী সভা ও সদস্য সংগ্রহ বাকেরগঞ্জে সোশাল ইসলামি ব্যাংকের ১৪৩ তম শাখা উদ্ভোধন

মুজদালিফা : কোটিপতি-ভিখারির পাশাপাশি রাত্রিযাপন

বাসটিতে ঠাসাঠাসি হাজিদের ভিড় । দম বন্ধ হয় হয় দশা। শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত হলেও ধারণ ক্ষমতার দ্বিগুণ হওয়ায় হাজিদের কেউই স্বাভাবিকভাবে দম ফেলতে পারছিলেন না। গরমে ঘেমে ভিজে সবাই একাকার। তবু কারও মুখে রা নেই। কারণ কিছুক্ষণ আগে তারা আরাফাত ময়দানে আল্লাহর কাছে অতীতের সকল অপরাধ ও কৃতকর্মের জন্য মাফ চেয়ে এসেছেন। এখন যাচ্ছেন মুজদালিফায়।

সৌদির মক্কা নগরীর নিকটবর্তী একটি সমতল এলাকার এ স্থানটি হজের সাথে সম্পর্কিত। মিনা ও আরাফাতের পথে মিনার দক্ষিণ-পূর্বে এর অবস্থান। আরাফাত ময়দান থেকে মুজদালিফার দুরত্ব খুব বেশি না। লাখ লাখ যাত্রী নিয়ে বাসটি চলছিল ধার গতিতে।

ঘণ্টাদুয়েক পর বাসটি মুজদালিফা পৌঁছালে এক অভাবনীয় দৃশ্য চোখে পড়ে। খোলা আকাশের নিচে ময়দানে ছোট-বড় কঙ্কর, বালুকণার মাঝে মাঝে ট্রাফিক নিয়ন্ত্রণ কক্ষ ও টয়লেট। বাস থেকে নামার কয়েক মিনিটের মধ্যেই পুরো ময়দান মানুষে মানুষে কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে যায়। খোলা আকাশের নিচে পাথুরে-বালু বিছানাতে শুয়ে থাকতে হয় সবাইকে। হোক না সে কোটিপতি, তারপরও তাকে থাকতে হবে এই পাথুরে বিছানায়। এখানে সবার পরিচয় একটাই-তারা আল্লাহর বান্দা। আর আল্লাহর সন্তুষ্টির জন্যই এখানে সমবিত হয়েছেন।

সরেজমিনে দেখা গেছে, নারী, পুরুষ ও শিশু নির্বিশেষে সকলে পাথরের বিছানায় শুয়ে আছেন। মাহমুদ হাসান প্রিন্স নামে একজন হাজি জানান, দিনের গরমে পাথর এতটাই গরম হয়েছিল যে, ঘুমাতে গিয়ে মনে হচ্ছিল যেন জ্বলন্ত উনুনের ওপর শুয়ে আছি। সারা শরীরে পানিশূন্যতা দেখা দেয়। বারবার মনে পড়ছিল সেই আমলে জনমানবশূন্য মরুভূমিতে কীভাবে নবীরা চলাফেরা করতেন।

সারারাত খোলা আকাশের নিচে অবস্থান করে ফজরের নামাজের পর লাখো মানুষের কাফেলা ছুটে চলে শয়তানকে পাথর মারতে মিনার উদ্দেশে।

Tag :
আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

হানিমুনে এসে স্বামীকে পিটিয়ে উধাও নববধূঃ প্রেমিকসহ গ্রেফতার

মুজদালিফা : কোটিপতি-ভিখারির পাশাপাশি রাত্রিযাপন

আপডেট টাইম ১০:৩৬:৫৯ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ অগাস্ট ২০১৮

বাসটিতে ঠাসাঠাসি হাজিদের ভিড় । দম বন্ধ হয় হয় দশা। শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত হলেও ধারণ ক্ষমতার দ্বিগুণ হওয়ায় হাজিদের কেউই স্বাভাবিকভাবে দম ফেলতে পারছিলেন না। গরমে ঘেমে ভিজে সবাই একাকার। তবু কারও মুখে রা নেই। কারণ কিছুক্ষণ আগে তারা আরাফাত ময়দানে আল্লাহর কাছে অতীতের সকল অপরাধ ও কৃতকর্মের জন্য মাফ চেয়ে এসেছেন। এখন যাচ্ছেন মুজদালিফায়।

সৌদির মক্কা নগরীর নিকটবর্তী একটি সমতল এলাকার এ স্থানটি হজের সাথে সম্পর্কিত। মিনা ও আরাফাতের পথে মিনার দক্ষিণ-পূর্বে এর অবস্থান। আরাফাত ময়দান থেকে মুজদালিফার দুরত্ব খুব বেশি না। লাখ লাখ যাত্রী নিয়ে বাসটি চলছিল ধার গতিতে।

ঘণ্টাদুয়েক পর বাসটি মুজদালিফা পৌঁছালে এক অভাবনীয় দৃশ্য চোখে পড়ে। খোলা আকাশের নিচে ময়দানে ছোট-বড় কঙ্কর, বালুকণার মাঝে মাঝে ট্রাফিক নিয়ন্ত্রণ কক্ষ ও টয়লেট। বাস থেকে নামার কয়েক মিনিটের মধ্যেই পুরো ময়দান মানুষে মানুষে কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে যায়। খোলা আকাশের নিচে পাথুরে-বালু বিছানাতে শুয়ে থাকতে হয় সবাইকে। হোক না সে কোটিপতি, তারপরও তাকে থাকতে হবে এই পাথুরে বিছানায়। এখানে সবার পরিচয় একটাই-তারা আল্লাহর বান্দা। আর আল্লাহর সন্তুষ্টির জন্যই এখানে সমবিত হয়েছেন।

সরেজমিনে দেখা গেছে, নারী, পুরুষ ও শিশু নির্বিশেষে সকলে পাথরের বিছানায় শুয়ে আছেন। মাহমুদ হাসান প্রিন্স নামে একজন হাজি জানান, দিনের গরমে পাথর এতটাই গরম হয়েছিল যে, ঘুমাতে গিয়ে মনে হচ্ছিল যেন জ্বলন্ত উনুনের ওপর শুয়ে আছি। সারা শরীরে পানিশূন্যতা দেখা দেয়। বারবার মনে পড়ছিল সেই আমলে জনমানবশূন্য মরুভূমিতে কীভাবে নবীরা চলাফেরা করতেন।

সারারাত খোলা আকাশের নিচে অবস্থান করে ফজরের নামাজের পর লাখো মানুষের কাফেলা ছুটে চলে শয়তানকে পাথর মারতে মিনার উদ্দেশে।