শুক্রবার, ২৩ অক্টোবর ২০২০, ০৮:৩৪ পূর্বাহ্ন

মহেশপুরে মাদকাসক্ত যুবকের হাতে মা ও নানী খুন

জনি হাসান (মহেশপুর) ঝিনাইদহ প্রতিনিধি : ঝিনাইদহের মহেশপুর পৌর এলাকার নওদাগ্রামে মানসিক বিকারগ্রস্থ যুবক ইমরানের (২৬) ধারালো অস্ত্রের আঘাতে মা ও নানী নিহত হয়েছে। নিহতরা হলো ওই গ্রামের মৃত নুর মোহাম্মদের মেয়ে মর্জিনা খাতুন ও স্ত্রী শামসুন্নাহার (৭০)। বৃহস্পতিবার ভোররাতে যশোর সদর হাসপাতালে তাদের মৃত্যু হয়। মহেশপুর থানার ওসি রাশেদুল আলম বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান , রাতে ইমরান তার মায়ের কাছে টাকা চায়। টাকা না দিলে ক্ষিপ্ত হয়ে মা ও নানীকে কুপিয়ে যখম করে। সেখান থেকে তাদের উদ্ধার করে যশোর সদর হাসপাতালে নিয়ে এলে জরুরী বিভাগের চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণা করেন। ওসি আরও জানান , মশেপুর সরকারি বালিকা বিদ্যালয়ের শিক্ষিকা মর্জিনা বেগম তার সন্তান ইমরান ও তার মা শামসুন্নাহারকে নিয়ে বসবাস করতেন । ছেলে ইমরান ছিল মানসিক রোগী । বিভিন্ন সময় সে তার মা ও নানীকে শারীরিকভাবে নির্যাতন করতো। ২০০৪ সালে যখন তার মায়ের ডিভোর্স হয় সে বছর সে তার দাদাকে মারধর করে। পরবর্তীতে তাকে দুই দফা পাবনা মানসিক হাসপাতালে নিয়ে চিকিৎসা দেওয়া হয়। ঘটনার দিন রাত ২ টার দিকে চিৎকার শুনে প্রতিবেশী লোকজন বাড়িতে গিয়ে দেখতে পায় ঘরের মেঝেতে শুয়ে আছে। ইমরান ওই সময়েই পালিয়ে যায়। এদিকে এলাকাবাসী বলছে ইমরান নেশার টাকার জন্য প্রায়ই তার মাকে মারধর করতো। ওই রাতেও তার মায়ের কাছে টাকা চেয়েছিল। টাকা না পেয়ে ক্ষিপ্ত হয়ে মা ও নানীকে কুপিয়ে গুরুতর যখম করে পালিয়ে যায়। ২৭ এপ্রিল কুষ্টিয়া সদর উপজেলার বটতৈল এলাকায় ইমরানের বন্ধুর বাড়ী থেকে আসামী ইমরানকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় নিহত মর্জিনা খাতুনের চাচাতো ভাই কুদরত আলী বাদী হয়ে ইমরানকে আসামী করে মহেশপুর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত থানা পুলিশ আসামী ইমরানকে কোটে পাঠায়, কোট সরাসরি জেল হাজতে প্রেরণ করেন।

নিউজটি শেয়ার করুন





সর্বস্বত্ব © ২০১৯ মাতৃভূমির খবর কর্তৃক সংরক্ষিত

Design & Developed BY ThemesBazar