শনিবার, ৩১ অক্টোবর ২০২০, ১০:১২ অপরাহ্ন

বাল্যবিয়ে, বর-১৫ বছর কনে-১২ বছর বিয়ে ঘটনা

আখতারুজ্জামান.চাঁপাইনবাবগঞ্জ: চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার শাজাহানপুর ইউনিয়নের নরেন্দ্রপুর গ্রামের এক প্রভাবশালীর বাড়িতে বাল্যবিয়ে সম্পন্ন হবার অভিযোগ উঠেছে। ১৪ জুন দিবাগত রাত ভোর আনুমানিক ৫ টার (১৫ জুন) নরেন্দ্রপুর গ্রামের প্রভাবশালী আব্দুর রশিদ মাষ্টারের বাড়িতে এ বাল্যবিয়ে সম্পন্ন হয়। সুত্রে জানা যায়, নরেন্দ্রপুর গ্রামের মোঃ শফিকুলের ছেলে মোঃ তারেক ওরফে বাবু (১৫) সাথে পার্শবর্তী ইসলামপুর ইউনিয়নের তারেক হাজির গ্রামের কালুর ৭ম শ্রেণি পড়ুয়া মেয়ের (১২) প্রেমের সম্পর্কে গড়ে উঠে। প্রেমের সম্পর্কের জেরে ১৪ জুন শুক্রবার বিকেলে মেয়েটি ছেলের পিতার বাড়িতে বিয়ের দাবিতে অবস্থান নেয়। এ সুযোগে নরেন্দ্রপুর গ্রামের প্রভাবশালী আব্দুর রশিদ মাষ্টার, বাবু,সহ বেশ কয়েকজন জোরপুর্বক এই বাল্যবিয়ে সম্পন্ন করেন। বরের এক আত্মীয় নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, সম্পুর্ণ অন্যায়ভাবে ছেলের পরিবারকে চাপ প্রয়োগ করে কোন কথা বলার সুযোগ না দিয়ে এ বাল্যবিয়ে সম্পন্ন করেন প্রভাবশালী আব্দুর রশিদ মাষ্টার। বাঁচার আকুতি জানিয়ে বর তারেক বাবু ১৪ জুন দিবাগত রাত ৩ টায় সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ আলমগীর হোসেনকে ফোন দিয়েছেন বলে জানা যায়। এবিষয়ে বাল্যবিবাহ সম্পন্নকারী আব্দুর রশিদ মাষ্টার মুঠোফোনে তার বাড়িতে বাল্যবিবাহ হবার সত্যতা স্বীকার করেন। সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার বলেন, ঘটনা জানার পর তিনি পুলিশ সাথে নিয়ে ১৬ জুন রোববার বরের বাড়িতে হানা দেন। কিন্তু বর বা বরের পিতাকে পাওয়া যায়নি। তিনি বলেন, বাল্যবিয়ের বিষয়ে কাউকে ছাড় দেয়ার প্রশ্নই উঠেনা। এ বাল্যবিয়ের বিষয়ে ঘটনা উদঘাটনে প্রচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন





সর্বস্বত্ব © ২০১৯ মাতৃভূমির খবর কর্তৃক সংরক্ষিত

Design & Developed BY ThemesBazar