ঢাকা ০৮:৫২ অপরাহ্ন, সোমবার, ০৪ জুলাই ২০২২, ২০ আষাঢ় ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
নবীনগরে ভয়াবহ নদী ভাঙ্গনে চোখের পলকে বাস্তুহারা ৩০ পরিবার, ইউএনওর সহায়তা- নিয়ামতপুরে ইউনিয়ন ছাত্র লীগের বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত। হারিয়ে যাওয়া ল্যাপটপ, নগদ ৫০ হাজার টাকা (সিএমপি) চকবাজার থানার পুলিশের সহায়তায় ফিরে পেয়ে আবেগ আপ্লুত, ট্রান্সপোর্ট ব্যবসায়ী ফরহাদ, আনোয়ারার প্রান্তে স্বপ্নের বঙ্গবন্ধু টানেল দেখতে পর্যটকের ভিড় দেখা হলনা হাট পথেই মৃত্যু বেপারীর বিশিষ্ট সাংবাদিক মো. সাইফুল ইসলাম রণি’র ৩৮ তম জন্মদিন আজ ইউএসটিসি ছাত্রদলের ৫ সদস্যের আহবায়ক কমিটির ৩ সদস্যের পদত্যাগ। পবিপ্রবিতে নিরাপদ খাদ্য ব্যবস্থাপনায় উৎপাদিত তেলাপিয়া ও পাঙ্গাস মাছের নিলাম অনুষ্ঠিত টাঙ্গাইলে এনটিভির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন লক্ষ্মীপুরে পুলিশের নায়েক থেকে সহকারী উপ পরিদর্শক হলেন ৬ জন

বাংলাদেশের আইটিখাতে বিনিয়োগে জাপানের আগ্রহ প্রকাশ

জাপান বাংলাদেশের তথ্য প্রযুক্তিখাতে (আইটি) ব্যাপকভাবে বিনিয়োগ এবং বাংলাদেশের কম্পিউটার প্রকৌশলীদের জাপানে কর্মসংস্থানে আগ্রহ প্রকাশ করেছে।
জাপান এক্সটারনাল ট্রেড অর্গানাইজেশনের (জেইটিআরও) দেশীয় প্রতিনিধি ডি. আরাই’য়ের নেতৃত্বে জাপানের ১০টি খ্যাতনামা প্রতিষ্ঠানের ১৫ সদস্য বিশিষ্ট এক ব্যবসায়ী প্রতিনিধি দল আজ ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বারের সাথে সাক্ষাৎকালে এই আগ্রহের কথা জানান।
জেইটিআরও জাপানের বাণিজ্য ও শিল্প মন্ত্রণালয়ের অধীন একটি প্রতিষ্ঠান।
প্রতিনিধি দল মন্ত্রীকে জানান, জাপানে বিভিন্ন শিল্প প্রতিষ্ঠানে প্রচুর আইটি প্রকৌশলীর চাহিদা রয়েছে। তারা বাংলাদেশি কম্পিউটার প্রকৗশলীদের ভূয়সী প্রসংশা করে বলেন, এদেশের আইটি প্রকৌশলীরা অত্যন্ত দক্ষ ও পরিশ্রমী। তাই তাদের বিভিন্ন আইটি প্রতিষ্ঠানের জন্য বাংলাদেশ থেকে প্রাথমিকভাবে তারা ৪’শ আইটি প্রকৌশলী নিয়োগ করতে চায়। প্রতিনিধি দল গমনইচ্ছুক প্রকৌশলীদের জাপানী ভাষা শিক্ষার উপর গুরুত্বারোপ করেন।
উল্লেখ্য, গত কয়েক মাসে জাপানে বাংলাদেশের প্রায় তিন শতাধিক আইটি প্রকোৗশলীর কর্মসংস্থান হয়েছে। গত মে মাসে তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তফা জব্বার ‘জাপান আইটি উইয়ি’তে অংশগ্রহণ করেন। এসময় তিনি জাইকা, রিক্রুট সহ নয়টি খ্যাতনামা প্রতিষ্ঠানের প্রধান নির্বাহীদের সাথে বাংলাদেশরে আইটি খাতের উজ্জ্বল সম্ভাবনা নিয়ে মতবিনিময় করেছেন। ওই মতবিনিময়ের ফলোআপ হিসেবে জাপানের কোম্পানির প্রতিনিধি দলের সদস্যগণ বাংলাদেশে সফর করছেন।
তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী বলেন, জাপান বাংলাদেশের দীর্ঘ প্রতিক্ষীত বন্ধু ও উন্নয়ন সহযোগী। জাপান বাংলাদেশের ভালো ব্যবসা ক্ষেত্র। অনুরূপভাবে বাংলাদেশও জাপানের উত্তম ব্যবসার স্থান। তিনি প্রতিনিধি দলকে জানান, বাংলাদেশে আইসিটি বিভাগের অধীনে বিভিন্ন ভাষা শেখানোর জন্য ‘সারা দেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে কম্পিউটার ও ভাষা প্রশিক্ষণ ল্যাব স্থাপন’ প্রকল্প চালু রয়েছে। এই প্রকল্পের অধীনে ৬৫টি ল্যাবে জাপানী ভাষাসহ বিভিন্ন ভাষা শেখানো হচ্ছে।

Tag :
আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

নবীনগরে ভয়াবহ নদী ভাঙ্গনে চোখের পলকে বাস্তুহারা ৩০ পরিবার, ইউএনওর সহায়তা-

বাংলাদেশের আইটিখাতে বিনিয়োগে জাপানের আগ্রহ প্রকাশ

আপডেট টাইম ০৮:২৭:৩৯ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৭ অগাস্ট ২০১৮

জাপান বাংলাদেশের তথ্য প্রযুক্তিখাতে (আইটি) ব্যাপকভাবে বিনিয়োগ এবং বাংলাদেশের কম্পিউটার প্রকৌশলীদের জাপানে কর্মসংস্থানে আগ্রহ প্রকাশ করেছে।
জাপান এক্সটারনাল ট্রেড অর্গানাইজেশনের (জেইটিআরও) দেশীয় প্রতিনিধি ডি. আরাই’য়ের নেতৃত্বে জাপানের ১০টি খ্যাতনামা প্রতিষ্ঠানের ১৫ সদস্য বিশিষ্ট এক ব্যবসায়ী প্রতিনিধি দল আজ ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বারের সাথে সাক্ষাৎকালে এই আগ্রহের কথা জানান।
জেইটিআরও জাপানের বাণিজ্য ও শিল্প মন্ত্রণালয়ের অধীন একটি প্রতিষ্ঠান।
প্রতিনিধি দল মন্ত্রীকে জানান, জাপানে বিভিন্ন শিল্প প্রতিষ্ঠানে প্রচুর আইটি প্রকৌশলীর চাহিদা রয়েছে। তারা বাংলাদেশি কম্পিউটার প্রকৗশলীদের ভূয়সী প্রসংশা করে বলেন, এদেশের আইটি প্রকৌশলীরা অত্যন্ত দক্ষ ও পরিশ্রমী। তাই তাদের বিভিন্ন আইটি প্রতিষ্ঠানের জন্য বাংলাদেশ থেকে প্রাথমিকভাবে তারা ৪’শ আইটি প্রকৌশলী নিয়োগ করতে চায়। প্রতিনিধি দল গমনইচ্ছুক প্রকৌশলীদের জাপানী ভাষা শিক্ষার উপর গুরুত্বারোপ করেন।
উল্লেখ্য, গত কয়েক মাসে জাপানে বাংলাদেশের প্রায় তিন শতাধিক আইটি প্রকোৗশলীর কর্মসংস্থান হয়েছে। গত মে মাসে তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তফা জব্বার ‘জাপান আইটি উইয়ি’তে অংশগ্রহণ করেন। এসময় তিনি জাইকা, রিক্রুট সহ নয়টি খ্যাতনামা প্রতিষ্ঠানের প্রধান নির্বাহীদের সাথে বাংলাদেশরে আইটি খাতের উজ্জ্বল সম্ভাবনা নিয়ে মতবিনিময় করেছেন। ওই মতবিনিময়ের ফলোআপ হিসেবে জাপানের কোম্পানির প্রতিনিধি দলের সদস্যগণ বাংলাদেশে সফর করছেন।
তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী বলেন, জাপান বাংলাদেশের দীর্ঘ প্রতিক্ষীত বন্ধু ও উন্নয়ন সহযোগী। জাপান বাংলাদেশের ভালো ব্যবসা ক্ষেত্র। অনুরূপভাবে বাংলাদেশও জাপানের উত্তম ব্যবসার স্থান। তিনি প্রতিনিধি দলকে জানান, বাংলাদেশে আইসিটি বিভাগের অধীনে বিভিন্ন ভাষা শেখানোর জন্য ‘সারা দেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে কম্পিউটার ও ভাষা প্রশিক্ষণ ল্যাব স্থাপন’ প্রকল্প চালু রয়েছে। এই প্রকল্পের অধীনে ৬৫টি ল্যাবে জাপানী ভাষাসহ বিভিন্ন ভাষা শেখানো হচ্ছে।