ঢাকা ০৪:৩৫ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৭ জানুয়ারী ২০২৩, ১৪ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
রেকর্ড গড়ল শাহরুখের ‘পাঠান’ বিদেশেও অপ্রতিরোধ্য সীমান্তে হত্যা এবং মাদকদ্রব্যসহ সকল চোরাচালান বন্ধের দাবিতে সমাবেশ ও কাঁটাতার মিছিল মসজিদে নামাজের মধ্যদিয়ে মুসল্লিদের মাঝে হৃদ্যতা বাড়ে : আলহাজ্ব আ জ ম নাছির উদ্দিন শখ থেকে উদ্যোক্তা, কোয়েল পাখির ডিম বিক্রি করে মাসে আয় আড়াই লাখ। নড়াইল-২ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য মুফতি শহিদুল ইসলামের ইন্তেকাল বাউফলে সরকারি চাল বাজারজাত করার সময় বাবা-ছেলে আটক। থানায় আগত সেবা প্রত্যাশীদের যথাযথ আইনি সহায়তা প্রদান করুন: আইজিপি জননেত্রী শেখ হাসিনার আমলে বাংলাদেশের মানুষ শান্তিতে বসবাস করতে পারেঃ” আব্দুস সালাম মূর্শেদী এমপি” কলাপাড়ার মহিপুরে ৫০ মণ জাটকাসহ ট্রলার জব্দ। সমাজের কল্যাণে ইমামদের কাজ করার আহ্বান স্থানীয় সরকার মন্ত্রীর৷

বঙ্গবন্ধু ছাড়া বাংলাদেশের অস্তিত্ব কল্পনা করা যায় না: আইজিপি

মাসুদ হাসান রিদম :   বাংলাদেশ পুলিশের ইন্সপেক্টর জেনারেল (আইজিপি) ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী বিপিএম(বার) বলেছেন, বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশের স্বপ্নদ্রষ্টা। তিনি আজীবন দেশের জন্য, দেশের মানুষের জন্য চিন্তা করে ছিলেন। বঙ্গবন্ধু ছাড়া বাংলাদেশের অস্তিত্ব কল্পনা করা যায় না। গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে রাজধানীর রাজারবাগে বাংলাদেশ পুলিশ অডিটরিয়ামে বাংলাদেশ পুলিশ মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘর আয়োজিত মহান বিজয় দিবস, ২০১৮ উপলক্ষে শিশু-কিশোরদের বিষয় ভিত্তিক রচনা ও চিত্রাংকন প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এ কথা বলেন।
শিশু কিশোরদের উদ্দেশ্যে আইজিপি বলেন, তোমরা আগামীর ভবিষ্যত, দেশের ভবিষ্যত। তোমাদেরকে বঙ্গবন্ধুকে জানতে হবে, মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস জানতে হবে। তোমাদেরকে মুক্তিযোদ্ধাদের সম্পর্কে জানতে হবে।
অনুষ্ঠানে মুখ্য আলোচক ছিলেন বাংলাদেশ ইউনিভাসিটি অব প্রফেশনালস এর বঙ্গবন্ধু চেয়ার অধ্যাপক ড. সৈয়দ আনোয়ার হোসেন। অতিরিক্ত আইজিপি মোহাম্মদ শফিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার মোঃ আছাদুজ্জামান মিয়া। স্বাগত বক্তব্য রাখেন এআইজি ও বাংলাদেশ পুলিশ মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের পরিচালক আবিদা সুলতানা।
মুখ্য আলোচক সৈয়দ আনোয়ার হোসেন বলেন, আমাদের মহান মুক্তিযুদ্ধ নানা মাত্রিকতায় গৌরবোজ্জ্বল হয়ে রয়েছে। বাঙালি জাতির আত্মমর্যাদার জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। বঙ্গবন্ধু বাঙালি জাতিকে আত্মসম্মান দিয়ে গেছেন। আমাদেরকে এ আত্মসম্মান ধরে রাখতে হবে।
অনুষ্ঠানে “২৫ মার্চ কালরাতে পুলিশের প্রথম সশস্ত্র প্রতিরোধ” শীর্ষক রচনা এবং “বাংলাদেশের মহান মুক্তিযুদ্ধ ও বাংলাদেশের মহান মুক্তিযুদ্ধের বিজয়” এর ওপর চিত্রাংকন প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করা হয়। প্রতিযোগিতায় রাজধানীর ইংরেজী ও বাংলা মাধ্যমের মোট ১৫টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ১৬১ জন শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করে।
প্রধান অতিথি বিজয়ী ছাত্র-ছাত্রীদের হাতে ক্রেস্ট, পুরস্কার ও সনদপত্র তুলে দেন।
Tag :
জনপ্রিয় সংবাদ

রেকর্ড গড়ল শাহরুখের ‘পাঠান’ বিদেশেও অপ্রতিরোধ্য

বঙ্গবন্ধু ছাড়া বাংলাদেশের অস্তিত্ব কল্পনা করা যায় না: আইজিপি

আপডেট টাইম ০১:৪৩:৩৩ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৯ ডিসেম্বর ২০১৮
মাসুদ হাসান রিদম :   বাংলাদেশ পুলিশের ইন্সপেক্টর জেনারেল (আইজিপি) ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী বিপিএম(বার) বলেছেন, বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশের স্বপ্নদ্রষ্টা। তিনি আজীবন দেশের জন্য, দেশের মানুষের জন্য চিন্তা করে ছিলেন। বঙ্গবন্ধু ছাড়া বাংলাদেশের অস্তিত্ব কল্পনা করা যায় না। গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে রাজধানীর রাজারবাগে বাংলাদেশ পুলিশ অডিটরিয়ামে বাংলাদেশ পুলিশ মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘর আয়োজিত মহান বিজয় দিবস, ২০১৮ উপলক্ষে শিশু-কিশোরদের বিষয় ভিত্তিক রচনা ও চিত্রাংকন প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এ কথা বলেন।
শিশু কিশোরদের উদ্দেশ্যে আইজিপি বলেন, তোমরা আগামীর ভবিষ্যত, দেশের ভবিষ্যত। তোমাদেরকে বঙ্গবন্ধুকে জানতে হবে, মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস জানতে হবে। তোমাদেরকে মুক্তিযোদ্ধাদের সম্পর্কে জানতে হবে।
অনুষ্ঠানে মুখ্য আলোচক ছিলেন বাংলাদেশ ইউনিভাসিটি অব প্রফেশনালস এর বঙ্গবন্ধু চেয়ার অধ্যাপক ড. সৈয়দ আনোয়ার হোসেন। অতিরিক্ত আইজিপি মোহাম্মদ শফিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার মোঃ আছাদুজ্জামান মিয়া। স্বাগত বক্তব্য রাখেন এআইজি ও বাংলাদেশ পুলিশ মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের পরিচালক আবিদা সুলতানা।
মুখ্য আলোচক সৈয়দ আনোয়ার হোসেন বলেন, আমাদের মহান মুক্তিযুদ্ধ নানা মাত্রিকতায় গৌরবোজ্জ্বল হয়ে রয়েছে। বাঙালি জাতির আত্মমর্যাদার জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। বঙ্গবন্ধু বাঙালি জাতিকে আত্মসম্মান দিয়ে গেছেন। আমাদেরকে এ আত্মসম্মান ধরে রাখতে হবে।
অনুষ্ঠানে “২৫ মার্চ কালরাতে পুলিশের প্রথম সশস্ত্র প্রতিরোধ” শীর্ষক রচনা এবং “বাংলাদেশের মহান মুক্তিযুদ্ধ ও বাংলাদেশের মহান মুক্তিযুদ্ধের বিজয়” এর ওপর চিত্রাংকন প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করা হয়। প্রতিযোগিতায় রাজধানীর ইংরেজী ও বাংলা মাধ্যমের মোট ১৫টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ১৬১ জন শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করে।
প্রধান অতিথি বিজয়ী ছাত্র-ছাত্রীদের হাতে ক্রেস্ট, পুরস্কার ও সনদপত্র তুলে দেন।