রবিবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২০, ০৬:৪৬ পূর্বাহ্ন

ফ্রান্সে মোবাইল ছাড়াই স্কুলে ফিরছে শিক্ষার্থীরা

গ্রীস্মের ছুটির পর সোমবার ফ্রান্সের স্কুলগুলোতে ক্লাশ শুরু হচ্ছে। কিন্তু শিক্ষার্থীদের ক্লাশে ফিরতে হচ্ছে মোবাইল ছাড়াই। কারণ দেশটিতে স্কুলে মোবাইল ব্যবহার নিষিদ্ধ করা হয়েছে। আগে শিশুরা ক্লাসে মোবাইল চালাত।
জুলাই মাসে স্কুলে শিক্ষার্থীদের মোবাইল ফোন ব্যবহার নিষিদ্ধ করে আইন পাশ হয়। এটা প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁর নির্বাচনী অঙ্গীকার ছিল। খবর এএফপি’র।
নতুন আইনে ফ্রান্সের প্রাথমিক ও জুনিয়র হাইস্কুলে ট্যাবলেট ও স্মার্ট ওয়াচও নিষিদ্ধ করা হয়েছে।
গ্রীষ্মের ছুটির পর হাই স্কুলের শিক্ষার্থী, যাদের বয়স ১৫ থেকে ১৮ বছরের মধ্যে তাদের জন্যও এই সব ইলেক্ট্রোনিক্স ডিভাইসগুলো আংশিক বা পুরোপুরিভাবে নিষিদ্ধ করা হবে।
আইনটির প্রস্তাবকরা জানান, এই আইনের ফলে শিক্ষার্থীদের ক্লাশরুমে মনযোগ বিঘিœত হওয়া কমবে।
তবে এই আইন নিয়ে ব্যাপক বিতর্ক সৃষ্টি হয়েছে।
ফ্রান্সে ১২ থেকে ১৭ বছর বয়সী প্রায় ৯০ শতাংশ কিশোর কিশোরীর মোবাইল ফোন রয়েছে। এই আইনের সমর্থকরা আশা করছেন, এই নিষেধাজ্ঞা শিশুদের মাঝে সহিংসতা কমাতে ও পর্ণগ্রাফী হ্রাসে সহায়ক হবে।
শিক্ষামন্ত্রী জেন-মিশেল ব্লানকুয়ের এই আইনকে ‘২১শতকের আইন’ হিসেবে উল্লেখ করে বলেছেন, এটা ফ্রান্সের ১ কোটি ২০ লাখ স্কুলশিশুর মধ্যে শৃঙ্খলার উন্নয়ন ঘটাবে।
তবে সমালোচকরা বলেন, এটা বাস্তবায়ন করা কঠিন হবে।
নুতন আইন কিভাবে বাস্তবায়ন করা হবে সরকার সে বিষয়টি স্কুলগুলোর ওপর ছেড়ে দিয়েছে।
সরকার দিনের বেলা শিক্ষার্থীদের ফোনগুলো স্কুলের লকারে জমা রাখার পরামর্শ দিয়েছে। তবে কোন কোন স্কুলে শিক্ষার্থীদের জন্য লকার নেই।
গবেষকরা দেখেছেন যে যেসব স্কুল ইতোমধ্যেই ছাত্রদের ইলেক্ট্রোনিক্স ডিভাইস নিষিদ্ধ করেছে, সেখানে অনেক শিক্ষার্থী স্কুলের নিয়ম ভঙ্গ করে মোবাইল ব্যবহার করে।

নিউজটি শেয়ার করুন





সর্বস্বত্ব © ২০১৯ মাতৃভূমির খবর কর্তৃক সংরক্ষিত

Design & Developed BY ThemesBazar