ঢাকা ১০:৫৫ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ০১ জুন ২০২৩, ১৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
“মার্কিন ভিসা নীতির পরও বিএনপির শুভবুদ্ধির উদয় হয়নি : তথ্যমন্ত্রী” “মাদক চাষের চেয়ে খাদ্য ফলানো অনেক গুরুত্বপূর্ণ” চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন মেয়র এম রেজাউল করিম চৌধুরীর জন্মদিনের কেক কেটে উদযাপন কমলনগরে জনপ্রিয়তার শীর্ষে আ’লীগ নেতা মোঃ নিজাম উদ্দিন টাঙ্গাইল প্রেস ক্লাবে কেক কেটে বিজয় টিভির প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত মেয়র হলে প্রতিটা ওয়ার্ডে মাতৃসদন প্রতিষ্ঠা করা হবে মুফতি ফয়জুল করীম মাদক ব্যাবসায়ীর হামলায় আহত র‍্যাব সদস্যকে দেখতে কুষ্টিয়ায় র‍্যাব-১২ সিও মারুফ হোসেন বরিশাল সিটি নির্বাচন ঃমেয়র প্রার্থীরা সম্পদের হিসাব দিলেন সিটি নির্বাচন বরিশাল। ” চা বিক্রেতা কাউন্সিলর প্রার্থী আইসিসিবিতে বসুন্ধরা ‘এলপিজি নাইট’

প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর বাড়িতে গিয়ে শুভেচ্ছা বিনিময়

মাতৃভূমির খবর ডেস্ক :   ভোলা-১ (সদর ) আসনের আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ তার প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপি প্রার্থী গোলাম নবী আলমগীরের বাড়িতে গিয়ে তার সাথে শুভেচ্ছা বিনিময় করেছেন।গতকাল শনিবার দুপুর ১২টার দিকে তোফায়েল আহমেদ ভোলা শহরের সদর রোডে তার নির্বাচনী প্রচারণাকালে শহরের মহাজনপট্টিতে বিএনপি প্রার্থী গোলাম নবী আলমগীরের বাস ভবনে গিয়ে তার সাথে কুশল বিনিমিয় করেন। এক পর্যায়ে তারা উভয়ে নিজেদের মধ্যে দলীয় প্রচারপত্র বিনিময় করেন।

এ সময় বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বিএনপি প্রার্থীকে আশ্বস্ত করে বলেন, আপনারা নির্বিগ্নে প্রচার প্রচারণা চালিয়ে যান। আপনাদেরকে কোথাও কোনো রকম বাধা দেওয়া হবে না। আমি চাই ভোলায় একটি শান্তিপূর্ণ পরিবেশে সুন্দর নির্বাচন অনুষ্ঠিত হউক। এসময় বিএনপি প্রার্থী গোলাম নবী আলমগীর ভোলায় নির্বাচনী পরিবেশ সুষ্ঠ ও সুন্দর রাখার জন্য তাদের নেতাকর্মীদের হয়রানি বন্ধে বাণিজ্যমন্ত্রীর সহযোগীতা কামনা করেন। এর পর তোফায়েল আহমেদ ভোলা শহরের সদর রোড, মহাজনপট্টি, কালিনাথ বাজারসহ শহরের গুরুত্বপূর্ণ এলাকায় ভোটাদের কাছে ভোট প্রার্থনা করে গণসংযোগ করেন।

তোফায়েল ভোলার বিভিন্ন উন্নয়ন চিত্র তুলে ধরে বলেন, ভোলা-চরফ্যাশন সড়ক ১৯৭২ সালে আওয়ামী লীগ সরকারের আমলে করা হয়েছে। ভোলা থেকে ইলিশা-জংসন রাস্তা আমাদের করা। ভোলার রাস্তাঘাট পুল কালভার্ট যা প্রয়োজন ছিল ইতোমধ্যে সম্পন্ন করেছি। ভোলার প্রত্যেকটি গ্রাম এখন শহর। রাস্তা পাকা, ঘরে ঘরে বিদ্যুত্ থাকায় মানুষ অনেক সুখে রয়েছে।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, গত ১০ বছরে ভোলার চারটি সংসদীয় আসনে ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে। আসন্ন নির্বাচনে মানুষ তার মূল্যায়ন করবে। ইনশাল্লাহ আবারও আওয়ামী লীগ রাষ্ট্র পরিচালনার দায়িত্ব লাভ করবে। এ সময় পৌরসভার মেয়র মো. মনিরুজ্জামান, জেলা আওয়ামী লীগ সাংগঠনিক সম্পাদক মইনুল হোসেন বিপ্লব, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জহিরুল ইসলাম নকিব, উপজেলা আওয়ামী লীগ সম্পাদক নজরুল ইসলাম গোলদার, পৌর আওয়ামী লীগ সম্পাদক আলী নেওয়াজ পলাশ, জেলা যুবলীগ সম্পাদক আতিকুর রহমান, ছাত্রলীগ সভাপতি ইব্রাহীম চৌধুরী পাপনসহ আওয়ামী লীগের বিভিন্ন সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

Tag :
জনপ্রিয় সংবাদ

“মার্কিন ভিসা নীতির পরও বিএনপির শুভবুদ্ধির উদয় হয়নি : তথ্যমন্ত্রী”

প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর বাড়িতে গিয়ে শুভেচ্ছা বিনিময়

আপডেট টাইম ০১:২৫:১৪ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৬ ডিসেম্বর ২০১৮

মাতৃভূমির খবর ডেস্ক :   ভোলা-১ (সদর ) আসনের আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ তার প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপি প্রার্থী গোলাম নবী আলমগীরের বাড়িতে গিয়ে তার সাথে শুভেচ্ছা বিনিময় করেছেন।গতকাল শনিবার দুপুর ১২টার দিকে তোফায়েল আহমেদ ভোলা শহরের সদর রোডে তার নির্বাচনী প্রচারণাকালে শহরের মহাজনপট্টিতে বিএনপি প্রার্থী গোলাম নবী আলমগীরের বাস ভবনে গিয়ে তার সাথে কুশল বিনিমিয় করেন। এক পর্যায়ে তারা উভয়ে নিজেদের মধ্যে দলীয় প্রচারপত্র বিনিময় করেন।

এ সময় বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বিএনপি প্রার্থীকে আশ্বস্ত করে বলেন, আপনারা নির্বিগ্নে প্রচার প্রচারণা চালিয়ে যান। আপনাদেরকে কোথাও কোনো রকম বাধা দেওয়া হবে না। আমি চাই ভোলায় একটি শান্তিপূর্ণ পরিবেশে সুন্দর নির্বাচন অনুষ্ঠিত হউক। এসময় বিএনপি প্রার্থী গোলাম নবী আলমগীর ভোলায় নির্বাচনী পরিবেশ সুষ্ঠ ও সুন্দর রাখার জন্য তাদের নেতাকর্মীদের হয়রানি বন্ধে বাণিজ্যমন্ত্রীর সহযোগীতা কামনা করেন। এর পর তোফায়েল আহমেদ ভোলা শহরের সদর রোড, মহাজনপট্টি, কালিনাথ বাজারসহ শহরের গুরুত্বপূর্ণ এলাকায় ভোটাদের কাছে ভোট প্রার্থনা করে গণসংযোগ করেন।

তোফায়েল ভোলার বিভিন্ন উন্নয়ন চিত্র তুলে ধরে বলেন, ভোলা-চরফ্যাশন সড়ক ১৯৭২ সালে আওয়ামী লীগ সরকারের আমলে করা হয়েছে। ভোলা থেকে ইলিশা-জংসন রাস্তা আমাদের করা। ভোলার রাস্তাঘাট পুল কালভার্ট যা প্রয়োজন ছিল ইতোমধ্যে সম্পন্ন করেছি। ভোলার প্রত্যেকটি গ্রাম এখন শহর। রাস্তা পাকা, ঘরে ঘরে বিদ্যুত্ থাকায় মানুষ অনেক সুখে রয়েছে।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, গত ১০ বছরে ভোলার চারটি সংসদীয় আসনে ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে। আসন্ন নির্বাচনে মানুষ তার মূল্যায়ন করবে। ইনশাল্লাহ আবারও আওয়ামী লীগ রাষ্ট্র পরিচালনার দায়িত্ব লাভ করবে। এ সময় পৌরসভার মেয়র মো. মনিরুজ্জামান, জেলা আওয়ামী লীগ সাংগঠনিক সম্পাদক মইনুল হোসেন বিপ্লব, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জহিরুল ইসলাম নকিব, উপজেলা আওয়ামী লীগ সম্পাদক নজরুল ইসলাম গোলদার, পৌর আওয়ামী লীগ সম্পাদক আলী নেওয়াজ পলাশ, জেলা যুবলীগ সম্পাদক আতিকুর রহমান, ছাত্রলীগ সভাপতি ইব্রাহীম চৌধুরী পাপনসহ আওয়ামী লীগের বিভিন্ন সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।