ঢাকা ০১:৪৩ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৮ মে ২০২২, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
ঝড়ে লন্ডভন্ড নড়াইলের একটি মাদ্রাসা কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলায় কবি কাজী নজরুল ইসলামের জন্মজয়ন্তী উদযাপন কুসিক নির্বাচনে প্রতীক বরাদ্দ পেলেন যারা সিলেটের বন‍্যার্তদের পাশে বঞ্চিত নারী ও শিশু অধিকার ফাউন্ডেশন টাঙ্গাইলের ঘাটাইল থানা আকস্মিক পরিদর্শনে পুলিশ সুপার সরকার মোহাম্মদ কায়সার গজারিয়ায় মাদক, সন্ত্রাস,জঙ্গীবাদ ইভটিজিং, বাল্যবিবাহ,প্রতিরোধে বিট পুলিশের সভা অনুষ্ঠিত। নওগাঁর নিয়ামতপুরে শ্রীমন্তপুর ইউনিয়ন আওয়ামী যুবলীগ ও স্বেচ্ছাসেবক লীগের ত্রিবার্ষিক কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। কুমিল্লায় ট্রেনের চাকা লাইনচ্যুত হয়ে তিন রুটে চলাচল বন্ধ। সরে দাঁড়ালো বিদ্রোহী,সাতকানিয়ার এওচিয়ায় নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান আবু ছালেহ

পুলিশ-র‌্যাব-বিজিবি ব্যর্থ হলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে সেনাবাহিনী

মাতৃভূমির খবর ডেস্কঃ  সশস্ত্রবাহিনী এই নির্বাচনে স্ট্রাইকিং ফোর্স হিসেবে নয়, সিআরপিসির ১২৭ থেকে ১৩২ ধারা অনুযায়ী তারা দায়িত্ব পালন করবে। নির্বাচনী পরিবেশ নিয়ন্ত্রণে পুলিশ, র‌্যাব ও বিজিবি ব্যর্থ হলে তখন পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে সশস্ত্র বাহিনী কাজ করবে বলে জানিয়েছেন নির্বাচন কমিশনার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) শাহাদত হোসেন চৌধুরী।

তিনি বলেছেন, সারাদেশে ৩০০ আসনে নির্বাচন করা অবশ্যই চ্যালেঞ্জের। ইতোমধ্যে আমরা সকল ধরনের প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছি। দেশের কোথাও কোনো সমস্যায় পুলিশ, র‌্যাব ও বিজিবি ব্যর্থ হলে তখন সেনাবাহিনী যুক্ত হবে। আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে নির্বাচন কমিশন ভবনের চতুর্থ তলায় জাতীয় নির্বাচন উপলক্ষে স্থাপিত কন্ট্রোল রুম থেকে সাংবাদিকদের একথা বলেন তিনি।

শাহাদত চৌধুরী বলেন, ৬টি আসনে ইভিএম মেশিন ইতোমধ্যে পৌঁছে গেছে। এখন চলছে মক ভোটিং। সার্বিক দিক বিবেচনায় আমাদের প্রস্তুতি ভাল।পুরো নির্বাচনে প্রায় ৫ লাখের বেশি আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে।

হামলার ব্যাপারে তিনি বলেন, অনেক অভিযোগের কোনো সত্যতা পাওয়া যায়নি। যেগুলো পাওয়া গেছে সেগুলোর সমাধান আসন থেকে করা হবে। ইসি থেকে নয়। সেখানে এসব ব্যাপারে ১২২ ইলেক্ট্ররাল ইনকোয়ারি কমিটি করা আছে। এসব সমস্যার সমাধান করবেন তারাই করতে পারবেন।

Tag :
জনপ্রিয় সংবাদ

ঝড়ে লন্ডভন্ড নড়াইলের একটি মাদ্রাসা

পুলিশ-র‌্যাব-বিজিবি ব্যর্থ হলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে সেনাবাহিনী

আপডেট টাইম ০৯:০০:৪২ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৭ ডিসেম্বর ২০১৮

মাতৃভূমির খবর ডেস্কঃ  সশস্ত্রবাহিনী এই নির্বাচনে স্ট্রাইকিং ফোর্স হিসেবে নয়, সিআরপিসির ১২৭ থেকে ১৩২ ধারা অনুযায়ী তারা দায়িত্ব পালন করবে। নির্বাচনী পরিবেশ নিয়ন্ত্রণে পুলিশ, র‌্যাব ও বিজিবি ব্যর্থ হলে তখন পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে সশস্ত্র বাহিনী কাজ করবে বলে জানিয়েছেন নির্বাচন কমিশনার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) শাহাদত হোসেন চৌধুরী।

তিনি বলেছেন, সারাদেশে ৩০০ আসনে নির্বাচন করা অবশ্যই চ্যালেঞ্জের। ইতোমধ্যে আমরা সকল ধরনের প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছি। দেশের কোথাও কোনো সমস্যায় পুলিশ, র‌্যাব ও বিজিবি ব্যর্থ হলে তখন সেনাবাহিনী যুক্ত হবে। আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে নির্বাচন কমিশন ভবনের চতুর্থ তলায় জাতীয় নির্বাচন উপলক্ষে স্থাপিত কন্ট্রোল রুম থেকে সাংবাদিকদের একথা বলেন তিনি।

শাহাদত চৌধুরী বলেন, ৬টি আসনে ইভিএম মেশিন ইতোমধ্যে পৌঁছে গেছে। এখন চলছে মক ভোটিং। সার্বিক দিক বিবেচনায় আমাদের প্রস্তুতি ভাল।পুরো নির্বাচনে প্রায় ৫ লাখের বেশি আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে।

হামলার ব্যাপারে তিনি বলেন, অনেক অভিযোগের কোনো সত্যতা পাওয়া যায়নি। যেগুলো পাওয়া গেছে সেগুলোর সমাধান আসন থেকে করা হবে। ইসি থেকে নয়। সেখানে এসব ব্যাপারে ১২২ ইলেক্ট্ররাল ইনকোয়ারি কমিটি করা আছে। এসব সমস্যার সমাধান করবেন তারাই করতে পারবেন।