ঢাকা ০২:৫২ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২৩, ১৪ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
রেকর্ড দরপতন মুদ্রার , ১ মার্কিন ডলার কিনতে হচ্ছে ২৫৫ পাকিস্তানি রুপিতে মাতৃত্বকালীন কার্ড প্রদানে ঘুষ বাণিজ্যের অভিযোগ,ইউপি সচিবসহ আটক দুই মতলব উত্তরে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত জাতীয় ইমাম সম্মেলন অনুষ্ঠিত কুমিল্লা জেলা ক্রিকেট কমিটির সভাপতির পদ থেকে থেকে পদত্যাগ করেছেন সাইফুল আলম রনি কুলাউড়ায় ফাহিম স্মৃতি দ্বৈত নক আউট ব্যাডমিন্টন টুর্নামেন্ট-২০২৩, শুভ উদ্বোধনী ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগরে পরিত্যাক্ত স্কুল ভবন থেকে ৬৮ রাউন্ড এলএমজি গুলি উদ্ধার। ফরিদগঞ্জে যাত্রা শুরু করেছে এক্স স্টুডেন্ট এসোসিয়েশন অবিভাবক শূণ্যতায় অস্তিত্ব বিলিনের পথে ডাকাতিয়া রামপালে সুইডেনের দূতাবাসে পবিত্র কুরআন পোড়ানোর ঘটনায় প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত সারা দেশব্যাপী কেন্দ্রীয় ফারিয়ার ৭ম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালনে কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন

পুলিশকে ফাঁকি দিয়ে মিঠুনের ছেলের বিয়ে

শেষ পর্যন্ত বলিউড তারকা মিঠুন চক্রবর্তী আর যোগিতা বালির বড় ছেলে মিমোর বিয়ে হলো মাদালসা শর্মার সঙ্গে। তবে এবার আগে থেকে তাঁদের বিয়ের ব্যাপারে কোনো ঘোষণা দেওয়া হয়নি। অনেকটা গোপনেই আজ মঙ্গলবার দীর্ঘদিনের বান্ধবী মাদালসার সঙ্গেই সাতপাকে বাঁধা পড়েছেন মিমো। এরপর টুইটারে তাঁদের বিয়ের ছবি পোস্ট করা হয়।

মিমো আর মাদালসা শর্মার বিয়ে হওয়ার কথা ছিল গত শনিবার রাতে, ভারতের তামিলনাড়ু রাজ্যের নীলগিরি জেলার উটির বিলাসবহুল এক হোটেলে। আর সেই হোটেলের মালিক মিঠুন চক্রবর্তী নিজেই। এখানেই আয়োজন করা হয় মিমোর বিয়ের অনুষ্ঠান। নির্ধারিত সময়ে হোটেলে চলে আসে বরপক্ষ আর কনেপক্ষ। কিন্তু বিয়েটা আর হয়নি। পুলিশ এসে হানা দেয় হোটেলে। এরপর কনেকে নিয়ে হোটেল থেকে চলে যায় কনেপক্ষ। তখন সংবাদমাধ্যমকে জানানো হয়, মিমোর বিয়ে ভেঙে গেছে।

এখন জানা গেছে, সেদিন বিয়ে মোটেও ভেঙে যায়নি। রেজিস্ট্রি হয়ে গিয়েছিল। বিয়ের বিভিন্ন অনুষ্ঠানও পালন হয়েছে। আর আজ বিয়ের অনুষ্ঠানে দুই পরিবার থেকেই অতিথিদের তালিকা ছোট করা হয়। আজ বিয়ের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন দুই পরিবারের গুরুত্বপূর্ণ ও ঘনিষ্ঠজনেরা। আর এই বিয়ের ব্যাপারে পুলিশ কিছুই জানতে পারেনি।

শনিবার বিয়ে সম্পন্ন করার জন্য সেদিন সকালে দিল্লি হাইকোর্ট থেকে মিমো আর তাঁর মা যোগিতা বালি জামিন নেন। এর আগে বোম্বে হাইকোর্টে মিমোর জামিনের আবেদন করা হয়। কিন্তু বোম্বে হাইকোর্ট এই জামিনের আবেদন দিল্লি হাইকোর্টে করার আদেশ দেন।

৭ জুলাই যে মিমো চক্রবর্তীর বিয়ে হবে, তা আগেই চূড়ান্ত করা হয়। কিন্তু এর আগেই ঘটে যায় দুঃখজনক ঘটনা। মিমোর সাবেক প্রেমিকা তাঁর বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ করেছেন। এই নারীর অভিযোগ, বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে মিমো তাঁকে ধর্ষণ করেছেন। ২০১৫ সাল থেকে মিমোর সঙ্গে তাঁর সম্পর্ক গড়ে ওঠে। মিমো চক্রবর্তীর পুরো নাম মহাক্ষয় চক্রবর্তী।

Tag :
আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

রেকর্ড দরপতন মুদ্রার , ১ মার্কিন ডলার কিনতে হচ্ছে ২৫৫ পাকিস্তানি রুপিতে

পুলিশকে ফাঁকি দিয়ে মিঠুনের ছেলের বিয়ে

আপডেট টাইম ০১:১৩:০১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১০ জুলাই ২০১৮

শেষ পর্যন্ত বলিউড তারকা মিঠুন চক্রবর্তী আর যোগিতা বালির বড় ছেলে মিমোর বিয়ে হলো মাদালসা শর্মার সঙ্গে। তবে এবার আগে থেকে তাঁদের বিয়ের ব্যাপারে কোনো ঘোষণা দেওয়া হয়নি। অনেকটা গোপনেই আজ মঙ্গলবার দীর্ঘদিনের বান্ধবী মাদালসার সঙ্গেই সাতপাকে বাঁধা পড়েছেন মিমো। এরপর টুইটারে তাঁদের বিয়ের ছবি পোস্ট করা হয়।

মিমো আর মাদালসা শর্মার বিয়ে হওয়ার কথা ছিল গত শনিবার রাতে, ভারতের তামিলনাড়ু রাজ্যের নীলগিরি জেলার উটির বিলাসবহুল এক হোটেলে। আর সেই হোটেলের মালিক মিঠুন চক্রবর্তী নিজেই। এখানেই আয়োজন করা হয় মিমোর বিয়ের অনুষ্ঠান। নির্ধারিত সময়ে হোটেলে চলে আসে বরপক্ষ আর কনেপক্ষ। কিন্তু বিয়েটা আর হয়নি। পুলিশ এসে হানা দেয় হোটেলে। এরপর কনেকে নিয়ে হোটেল থেকে চলে যায় কনেপক্ষ। তখন সংবাদমাধ্যমকে জানানো হয়, মিমোর বিয়ে ভেঙে গেছে।

এখন জানা গেছে, সেদিন বিয়ে মোটেও ভেঙে যায়নি। রেজিস্ট্রি হয়ে গিয়েছিল। বিয়ের বিভিন্ন অনুষ্ঠানও পালন হয়েছে। আর আজ বিয়ের অনুষ্ঠানে দুই পরিবার থেকেই অতিথিদের তালিকা ছোট করা হয়। আজ বিয়ের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন দুই পরিবারের গুরুত্বপূর্ণ ও ঘনিষ্ঠজনেরা। আর এই বিয়ের ব্যাপারে পুলিশ কিছুই জানতে পারেনি।

শনিবার বিয়ে সম্পন্ন করার জন্য সেদিন সকালে দিল্লি হাইকোর্ট থেকে মিমো আর তাঁর মা যোগিতা বালি জামিন নেন। এর আগে বোম্বে হাইকোর্টে মিমোর জামিনের আবেদন করা হয়। কিন্তু বোম্বে হাইকোর্ট এই জামিনের আবেদন দিল্লি হাইকোর্টে করার আদেশ দেন।

৭ জুলাই যে মিমো চক্রবর্তীর বিয়ে হবে, তা আগেই চূড়ান্ত করা হয়। কিন্তু এর আগেই ঘটে যায় দুঃখজনক ঘটনা। মিমোর সাবেক প্রেমিকা তাঁর বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ করেছেন। এই নারীর অভিযোগ, বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে মিমো তাঁকে ধর্ষণ করেছেন। ২০১৫ সাল থেকে মিমোর সঙ্গে তাঁর সম্পর্ক গড়ে ওঠে। মিমো চক্রবর্তীর পুরো নাম মহাক্ষয় চক্রবর্তী।