ঢাকা ০৯:৪৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ০৪ জুলাই ২০২২, ২০ আষাঢ় ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
নবীনগরে ভয়াবহ নদী ভাঙ্গনে চোখের পলকে বাস্তুহারা ৩০ পরিবার, ইউএনওর সহায়তা- নিয়ামতপুরে ইউনিয়ন ছাত্র লীগের বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত। হারিয়ে যাওয়া ল্যাপটপ, নগদ ৫০ হাজার টাকা (সিএমপি) চকবাজার থানার পুলিশের সহায়তায় ফিরে পেয়ে আবেগ আপ্লুত, ট্রান্সপোর্ট ব্যবসায়ী ফরহাদ, আনোয়ারার প্রান্তে স্বপ্নের বঙ্গবন্ধু টানেল দেখতে পর্যটকের ভিড় দেখা হলনা হাট পথেই মৃত্যু বেপারীর বিশিষ্ট সাংবাদিক মো. সাইফুল ইসলাম রণি’র ৩৮ তম জন্মদিন আজ ইউএসটিসি ছাত্রদলের ৫ সদস্যের আহবায়ক কমিটির ৩ সদস্যের পদত্যাগ। পবিপ্রবিতে নিরাপদ খাদ্য ব্যবস্থাপনায় উৎপাদিত তেলাপিয়া ও পাঙ্গাস মাছের নিলাম অনুষ্ঠিত টাঙ্গাইলে এনটিভির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন লক্ষ্মীপুরে পুলিশের নায়েক থেকে সহকারী উপ পরিদর্শক হলেন ৬ জন

নির্বাচিতদের গেজেট প্রকাশ

মাতৃভূমির খবর ডেস্কঃ  একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বেসরকারিভাবে বিজয়ী ২৯৮ প্রার্থীর গেজেট প্রকাশ হয়েছে। নির্বাচিতদের গেজেট গতকাল মঙ্গলবার রাতে প্রকাশ করা হয়েছে বলে জানিয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। গেজেট প্রকাশের তিন দিনের মধ্যে নবনির্বাচিতদের শপথ নেওয়ার বিধান থাকলেও কাল বৃহস্পতিবার শপথ অনুষ্ঠিত হবে বলে তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু জানিয়েছেন।

নির্বাচন কমিশনার মো. রফিকুল ইসলাম বলেন, নির্বাচিত মোট ২৯৮ জনের গেজেট প্রকাশ করা হয়েছে।

বিএনপি থেকে নির্বাচিতরা যদি শপথ গ্রহণ না করে, তাহলে কত দিনের ভেতরে সাংসদ পদ হারাবেন এমন প্রশ্নের জবাবে রফিকুল ইসলাম বলেন, এটা তো সংসদের বিষয়। তবে নিয়মানুযায়ী সম্ভবত শপথের পর ৯০ দিন সময় থাকে বাতিল হতে।

গেজেট প্রকাশের পর শপথের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে স্পিকারের কাছে তা পাঠাবে ইসি সচিবালয়।

সংসদ নির্বাচনের ফল গেজেট আকারে প্রকাশের তিনদিনের মধ্যে শপথের সাংবিধানিক বাধ্যবাধকতা রয়েছে। এরপর ৩০ দিনের মধ্যে অধিবেশন ডাকতে হবে।

এদিকে নতুন এমপিদের শপথ ৩ জানুয়ারি বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় অনুষ্ঠিত হবে। জাতীয় সংসদ ভবনের শপথ কক্ষে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী তাদের শপথবাক্য পাঠ করাবেন। শপথ কক্ষের ধারণক্ষমতা কম হওয়ায় দুই দফায় শপথ হবে। সংসদের আইনশাখার কর্মকর্তারা এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

উল্লেখ্য, ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির দশম সংসদ নির্বাচনে তিনদিনের মধ্যে গেজেট প্রকাশের পর ৯ জানুয়ারি নির্বাচিত শপথ পড়ানো হয়।

প্রসঙ্গত, গত রোববার (৩০ ডিসেম্বর) একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেয়েছে আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন মহাজোট। ঘোষিত ফল অনুযায়ী আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন মহাজোট ২৮৮টি আসনে (আওয়ামী লীগ ২৫৯, জাতীয় পার্টি ২০, ওয়ার্কার্স পার্টি তিন, জাসদ দুই, বিকল্পধারা দুই, তরীকত ফেডারেশন এক ও জেপি এক) জয়ী হয়েছে। বিএনপিসহ জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট পেয়েছে মাত্র সাতটি (বিএনপি পাঁচ, গণফোরাম এক ও ঐক্যপ্রক্রিয়া এক) আসন। তিনটি আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থীরা জয় পেয়েছেন। আর স্থগিত একটি আসনে বিএনপির প্রার্থী এগিয়ে আছেন। এ ছাড়া প্রার্থীর মৃত্যুর কারণে একটি আসনে নির্বাচন আগেই স্থগিত করা হয়।

Tag :
জনপ্রিয় সংবাদ

নবীনগরে ভয়াবহ নদী ভাঙ্গনে চোখের পলকে বাস্তুহারা ৩০ পরিবার, ইউএনওর সহায়তা-

নির্বাচিতদের গেজেট প্রকাশ

আপডেট টাইম ০৪:৪৪:৫৭ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২ জানুয়ারী ২০১৯

মাতৃভূমির খবর ডেস্কঃ  একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বেসরকারিভাবে বিজয়ী ২৯৮ প্রার্থীর গেজেট প্রকাশ হয়েছে। নির্বাচিতদের গেজেট গতকাল মঙ্গলবার রাতে প্রকাশ করা হয়েছে বলে জানিয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। গেজেট প্রকাশের তিন দিনের মধ্যে নবনির্বাচিতদের শপথ নেওয়ার বিধান থাকলেও কাল বৃহস্পতিবার শপথ অনুষ্ঠিত হবে বলে তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু জানিয়েছেন।

নির্বাচন কমিশনার মো. রফিকুল ইসলাম বলেন, নির্বাচিত মোট ২৯৮ জনের গেজেট প্রকাশ করা হয়েছে।

বিএনপি থেকে নির্বাচিতরা যদি শপথ গ্রহণ না করে, তাহলে কত দিনের ভেতরে সাংসদ পদ হারাবেন এমন প্রশ্নের জবাবে রফিকুল ইসলাম বলেন, এটা তো সংসদের বিষয়। তবে নিয়মানুযায়ী সম্ভবত শপথের পর ৯০ দিন সময় থাকে বাতিল হতে।

গেজেট প্রকাশের পর শপথের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে স্পিকারের কাছে তা পাঠাবে ইসি সচিবালয়।

সংসদ নির্বাচনের ফল গেজেট আকারে প্রকাশের তিনদিনের মধ্যে শপথের সাংবিধানিক বাধ্যবাধকতা রয়েছে। এরপর ৩০ দিনের মধ্যে অধিবেশন ডাকতে হবে।

এদিকে নতুন এমপিদের শপথ ৩ জানুয়ারি বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় অনুষ্ঠিত হবে। জাতীয় সংসদ ভবনের শপথ কক্ষে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী তাদের শপথবাক্য পাঠ করাবেন। শপথ কক্ষের ধারণক্ষমতা কম হওয়ায় দুই দফায় শপথ হবে। সংসদের আইনশাখার কর্মকর্তারা এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

উল্লেখ্য, ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির দশম সংসদ নির্বাচনে তিনদিনের মধ্যে গেজেট প্রকাশের পর ৯ জানুয়ারি নির্বাচিত শপথ পড়ানো হয়।

প্রসঙ্গত, গত রোববার (৩০ ডিসেম্বর) একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেয়েছে আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন মহাজোট। ঘোষিত ফল অনুযায়ী আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন মহাজোট ২৮৮টি আসনে (আওয়ামী লীগ ২৫৯, জাতীয় পার্টি ২০, ওয়ার্কার্স পার্টি তিন, জাসদ দুই, বিকল্পধারা দুই, তরীকত ফেডারেশন এক ও জেপি এক) জয়ী হয়েছে। বিএনপিসহ জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট পেয়েছে মাত্র সাতটি (বিএনপি পাঁচ, গণফোরাম এক ও ঐক্যপ্রক্রিয়া এক) আসন। তিনটি আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থীরা জয় পেয়েছেন। আর স্থগিত একটি আসনে বিএনপির প্রার্থী এগিয়ে আছেন। এ ছাড়া প্রার্থীর মৃত্যুর কারণে একটি আসনে নির্বাচন আগেই স্থগিত করা হয়।