শুক্রবার, ৩০ অক্টোবর ২০২০, ০৯:৪২ অপরাহ্ন

নিজেদের স্বপ্নের কথা জানালো চার’শ শিক্ষার্থী

শাহজাহান আলী মনন, নীলফামারী জেলা সংবাদদাতা ॥ ব্যতিক্রমী এক আয়োজনে নীলফামারীতে শিশুরা নিজেদের লক্ষ্য নির্বাচন করেছিলো ‘আমি হতে চাই’ অনুষ্ঠানে। কেউবা ম্যাজিস্ট্রেট, কেউবা শিক্ষক, কেউবা পুলিশ অফিসার কিংবা কেউ প্রকৌশলী হওয়ার ইচ্ছে প্রকাশ করে প্ল্যাকার্ডে লিখে ও ছবি এঁকে। সোমবার (১লা এপ্রিল) নীলফামারী সদর উপজেলার সংগলশী ইউনিয়নের বড় সংগলশী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করে গুড নেইবারস্ধসঢ়;(সু-প্রতিবেশি) বাংলাদেশ নীলফামারী কমিউনিটি ডেভেলপমেন্ট প্রজেক্ট। এতে সভাপতিত্ব করেন সিডিপি ম্যানেজার রমিও রতন গমেজ। বক্তব্য দেন কাজী আব্দুর রশিদ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক কাজী দৌলত হোসেন, সংগলশী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ইয়াসমিন দিল ফেরদৌস, গুড নেইবারস নীলফামারীর মেডিক্যাল অফিসার আলমগীর হোসেন, সংগলশী ইউনিয়নের সদস্য আব্দুর রহিম। সংস্থার প্রোগ্রাম ইনচার্জ রিফাত আল মাহমুদের মঞ্চালনায় শিশুদের মধ্যে সোনারায় সংগলশী উচ্চ বিদ্যালয়ের ষষ্ঠ শ্রেণীর ছাত্র শামীম ইসলাম ও অষ্টম শ্রেণীর মিম আখতার বক্তব্য দেন এতে। জানতে চাইলে শিক্ষার্থী শামীম ইসলাম জানান, পড়াশোনা শেষ করে আমি মানুষের সেবা করতে চাই। এ জন্য চিকিৎসক হতে চাই। চিকিৎসা সেবা একটি মহৎ পেশা। আরেক শিক্ষার্থী মিম আখতার জানান, পড়াশোনা শেষ করে আমি ভালো মানুষ হতে চাই। এজন্য শিক্ষক হতে চাই আমি। একজন শিক্ষকই মানুষ গড়ার কারিগড়। অনুষ্ঠানে সংগলশী ইউনিয়নের আটটি প্রাথমিক বিদ্যালয়, তিনটি উচ্চ বিদ্যালয় এবং একটি আলিম মাদ্রাসার ৪’শ শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করেন। গুড নেইবারস সিডিপি ম্যানেজার রমিও রতন গমেজ জানান, সংস্থাটি নীলফামারীতে স্বাস্থ্য, শিক্ষা, শিশু শ্রম, বাল্য বিবাহ প্রতিরোধসহ বিভিন্ন বিষয় নিয়ে কাজ করে আসছে ২০১৩সাল থেকে। শিক্ষার্থীদের বিদ্যালয় মুখী করার জন্য শিক্ষা উপকরণ বিতরণ, বিদ্যালয় সৌন্দর্য করণেও কাজ করছে। যাতে তারা আকৃষ্ট হয় বিদ্যালয় আসতে। তিনি বলেন, পড়াশোনা কালীন তারা যাতে নির্দিষ্ট লক্ষ্য নিয়ে এগুতে পারে এজন্য ‘আমি হতে চাই’ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। যাতে তারা স্বপ্ন বাস্তবায়নে সহযোগীতা পেতে পারে। কাজী আব্দুর রশিদ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক কাজী দৌলত হোসেন জানান, এটি একটি ব্যতিক্রমী আয়োজন। শিক্ষার্থীরা পড়ছে ঠিকই। কিন্তু লক্ষ্য নির্বাচন করে প্রকাশ করতে পারে না বা ব্যবস্থা নেই। এ রকম আয়োজনের ফলে শিক্ষার্থীরা নিজেকে উপস্থাপন করার লক্ষ্য বাস্তবায়নে সহায়তা করবে। অনুষ্ঠান শেষে সেখানে নিজেদের হতে চাওয়ার ‘লক্ষ্য’ স্বাক্ষর বোর্ডে লিখে উপস্থাপন করেন শিক্ষার্থীরা। (ছবি আছে) শাহজাহান আলী মনন, নীলফামারী জেলা সংবাদদাতা

নিউজটি শেয়ার করুন





সর্বস্বত্ব © ২০১৯ মাতৃভূমির খবর কর্তৃক সংরক্ষিত

Design & Developed BY ThemesBazar