বুধবার, ২৮ অক্টোবর ২০২০, ০৯:০৬ অপরাহ্ন

নানা কর্মসূচীর মধ্য দিয়ে সৈয়দপুরে ৩দিন ব্যাপী স্থানীয় শহীদ দিবস পালিত

শাহজাহান আলী মনন, সৈয়দপুর (নীলফামালী) সংবাদদাতা : নীলফামারীর সৈয়দপুরে স্থানীয় শহীদ দিবস পালিত হয়েছে ১২ এপ্রিল (শুক্রবার)। প্রজন্ম ৭১ ও স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধা সংসদের উদ্যোগে ৩ দিন ব্যাপি নানা কর্মসুচির মধ্যে দিয়ে স্থানীয় শহীদ দিবস পালন করা হচ্ছে। দিবসটি উপলক্ষে ১১ এপ্রিল ৭ম ও ১০ শ্রেণীর শিক্ষার্থীদের ‘মুক্তিযুদ্ধে সৈয়দপুর’ বিষয়ক রচনা প্রতিযোগিতার মাধ্যমে কর্মসুচী শুরু করা হয়। ১২ এপ্রিল সকালে জাতীয় ও কাল পতাকা উত্তোলন, কাল ব্যাচ ধারণ, বাদ জুম্মা স্থানীয় জামে মসজিদে দোয়া মাহফিল ও প্রার্থনা অনুষ্ঠিত হয়। বিকাল ৫ টায় জাতীয় স্মৃতি সৌধে শিশু-কিশোর চিত্রাঙ্কণ প্রতিযোগিতা এবং সন্ধা ৭ টায় ম্মৃতি অম্লান চত্তরে মোমবাতি প্রজ্জলন করা হয়। পরের দিন ১৩ এপ্রিল শনিবার সকাল সাড়ে ১০ টায় শোক র‌্যালী, আলোচনা সভা ও পুরস্কার বিতরনী অনুষ্ঠিত হবে। ঈ্রজন্ম ৭১-এর সাধারন সম্পাদক মহসিনুল হক মোহসিন শহীদ দিবসের এ সব কর্মসুচি পালন করা হচ্ছে বলে জানান। এতে সংরক্ষিত নারী সংসদ সদস্য রাবেয়া আলিম, উপজেলা চেয়ারম্যান মোখছেদুল মোমিন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এস এম গোলাম কিবরিয়া, সৈয়দপুর মহাবিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ সাখাওয়াত হোসেন, সৈয়দপুর পৌর আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক আখতার হোসেন বাদল উপস্থিত ছিলেন। ১৯৭১ সালের মহান মুক্তিযুদ্ধের এই দিনে অবাঙ্গালী (উর্দূভাষী) অধ্যুষিত সৈয়দপুরের তৎকালীন প্রাদেশিক পরিষদের সদস্য (এম এল এ) ডা. জিকরুল হক, তুলসীরাম আগরওয়ালা, ডা. সামছুল হক, ডা. বদিউজ্জামান, ডা. ইয়াকুব আলী, রেলওয়ে কর্মকর্তা আয়েজ উদ্দিন, যমুনা প্রসাদ কেডিয়া, রামেশ্বর লাল আগরওয়ালা, নারায়ণ প্রসাদসহ অনেককে চোখ বেঁধে রংপুরের নিসবতগঞ্জের বরারখাল নামক স্থানে গুলি করে হত্যা করা হয়। এ ছাড়া শহরের মাড়োয়ারি পরিবারের ৪৭৮ জন সদস্যকে ভারতে পৌঁছে দেওয়ার নামে ট্রেনে নিয়ে গোলাহাট নামক স্থানে নির্মমভাবে হত্যা করা হয়। লুট করা হয় সর্বস্ব। রেহাই পাননি শিশুসহ বৃদ্ধা, যুবতি কেউই। এ শহরে পাক হানাদারদের সেনানিবাস থাকায় অবাঙ্গালীদের নিয়ে এ হত্যাযজ্ঞ চালায় তারা। যে চিহ্ন আজো দগ্ধ করছে বর্তমান প্রজন্মদের। এই দিবসটিকে স্মরন করতে তাই প্রতি বছর এই দিনে সৈয়দপুরে স্থানীয় ভাবে শহীদ দিবস পালন করা হয়।

নিউজটি শেয়ার করুন





সর্বস্বত্ব © ২০১৯ মাতৃভূমির খবর কর্তৃক সংরক্ষিত

Design & Developed BY ThemesBazar