মঙ্গলবার, ১৮ মে ২০২১, ১০:১৫ অপরাহ্ন

দুর্নীতির প্রমাণ দিতে পারলে পদত্যাগ করবেন কাউন্সিলর জাহাঙ্গীর আলম

নিজস্ব প্রতিবেদক: দুর্নীতি বা দখলের অভিযোগ প্রমাণ হলে পদত্যাগ করবেন বলে ঘোষণা দিয়েছেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের ৩৭ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর জাহাঙ্গীর আলম। একটি চক্র তার বিরুদ্ধে মিথ্যা ও বানোয়াট তথ্য ছড়িয়ে সম্মান ক্ষুণ্ন ও সংবাদ প্রকাশের হুমকির প্রতিবাদে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের ৩৭নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর জাহাঙ্গীর আলম এ কথা জানান।
গতকাল সোমবার বাংলাদেশ ক্রাইম রিপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এই ঘোষণা দেন।
তিনি বলেন, ৭ মাস আগে নবগঠিত ওয়ার্ডের কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়েছেন। এখন পর্যন্ত সরকারি কোন বরাদ্ধ দেয়া হয়নি। দেয়া হয়নি কার্যালয়, সচিব ও পিওন। এই ৭ মাসে তারা ওয়ার্ডে যতটুকু উন্নয়ন হয়েছে, সবটুকুই করেছেন নিজের টাকায়। জমা-জমি অর্থ-সম্পদ যা আছে সবই তার পৈত্রিক। অবৈধ কোন কিছুই নেই তার। আর কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়ে ১টি টাকা কোথাও থেকে তিনি অবৈধভাবে আয় করেননি। জাহাঙ্গীর আলম চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়ে বলেছেন, ১টি অবৈধ টাকা আয়ের যদি কেউ সঠিত প্রমাণ দিতে পারেন তাহলে কাউন্সিলরের পদ ছেড়ে দেবো, পদত্যাগ করবো।
কাউন্সিলর জাহাঙ্গীর আলম বলেন, চলতি বছরের ২৮ ফেব্রায়ারি নবগঠিত এই ওয়ার্ডে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। কাউন্সিলর হিসেবে মাত্র ৭ মাস আমার বয়স। এর মধ্যে সরকারি কোন বরাদ্ধ দেয়া শুরু হয়নি। এর আগে ৩৭নং ওয়ার্ড ছিলো ইউনিয়ন পরিষদ। ইউনিয়নের কোন দায়িত্বেও আমি ছিলাম না। তাহলে কিভাবে আমি কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়ে অবৈধ অর্থ-সম্পদের মালিক হলাম।
জাহাঙ্গীর আলম আরো বলেন, গত নির্বাচনে আমার সঙ্গে যারা পরাজিত হয়েছেন, যারা বিএনপি-জামায়াতের প্রার্থি ছিলেন, পরাজিত হওয়ার পরের দিন থেকেই তারা উদ্দেশ্য-প্রণোদিতভাবে মিথ্যা কল্প-কাহিনী সাজাচ্ছেন। তিনি বলেন, আমার বিরুদ্ধে একটি নাম সর্বস্ব পত্রিকা এবং একটি বেসরকারি টেলিভিশনে প্রচার করা হয়েছে, আমি নাকি বাড্ডা এলাকায় ১শত নয়, ২ শত নয়, ৫ শত নয়, ২ হাজার একর জমি-বিল দখল করেছি! ২ হাজার একরে কত জমি-বিল হয় তা কি বোঝেন অভিযোগকারীরা। জাহাঙ্গীর আলম এসব মিথ্যা তথ্য ছড়ানো ও প্রচারণা বন্ধ করার আহ্বান জানান।
নিউজটি শেয়ার করুন





সর্বস্বত্ব © ২০১৯ মাতৃভূমির খবর কর্তৃক সংরক্ষিত

Design & Developed BY ThemesBazar