সোমবার, ১৮ অক্টোবর ২০২১, ০৫:০০ পূর্বাহ্ন

ড. রেজা কিবরিয়া ও সাবেক এমপি শেখ সুজাত মিয়া ধানের শীষের পক্ষে এক মঞ্চে

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি :  অবশেষে সকল জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে হবিগঞ্জ-১ (নবীগঞ্জ-বাহুবল) আসনে বিএনপি ও ঐক্যফ্রন্টের যৌথসভায় ড. রেজা কিবরিয়াকে নিয়ে বিএনপি নেতাকর্মীদের ক্ষোভ প্রশমিত হয়েছে। ড. রেজা কিবরিয়া ও বিএনপির সাবেক এমপি শেখ সুজাত মিয়া হাতে হাত রেখে ‘খালেদা জিয়া’র মুক্তির জন্য এক সাথে কাজ করার অঙ্গিকার করেছেন। নবীগঞ্জ ও বাহুবল উপজেলার কয়েক হাজার নেতাকর্মীর পরামর্শ সভায় ড. রেজা কিবরিয়া ও শেখ সুজাত নিজেদের হাতে ধানের শীষ নিয়ে শ্লোগান ধরেন ‘রেজা-সুজাত ভাই ভাই ধানের শীষে ভোট চাই’, ‘রেজা-সুজাত ভাই ভাই আমাদের কোন বিভেদ নাই’।

এ সময় নেতাকর্মীরা শ্লোগানে শ্লোগানে মুখরিত করে তুলেন নবীগঞ্জ শহর। বৃহস্পতিবার বিকেলে হবিগঞ্জ জেলার নবীগঞ্জ পৌর শহরের গোল্ডেন প্লাজাস্থ বিএনপি’র কার্যালয়ের সামনে নবীগঞ্জ ও বাহুবল উপজেলা বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের যৌথ পরামর্শ সভা অনুষ্ঠিত হয়। নবীগঞ্জ উপজেলা বিএনপি’র সভাপতি সাবেক এমপি আলহাজ্ব শেখ সুজাত মিয়ার সভাপতিত্বে ও পৌর বিএনপি’র নেতা মুশফিকুজ্জামান চৌধুরী নোমান ও ছাত্রদল নেতা অলিউর রহমানের যৌথ পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সভায় বক্তব্য রাখেন নবীগঞ্জ উপজেলার বিএনপি’র সাবেক সভাপতি ও সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল হাই, নবীগঞ্জ উপজেলা বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক মুজিবুর রহমান শেফু, নবীগঞ্জ পৌর বিএনপি’র সভাপতি মেয়র ছাবির আহমদ চৌধুরী, বাহুবল উপজেলা বিএনপি’র সভাপতি আকাদ্দছ মিয়া বাবুল, বাহুবল উপজেলা বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট মিজানুর রহমান প্রমুখ।

সভা চলাকালে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী ড. রেজা কিবরিয়া এসে উপস্থিত হলে হাজারো নেতাকর্মী তাঁকে স্বাগত জানান। এসময় নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে ড. রেজা কিবরিয়া বলেন, দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্তির জন্য এই নির্বাচন। আমি এ নির্বাচনে জয়ী হতে সাবেক এমপি শেখ সুজাতের সহযোগিতা চাচ্ছি। আমি জানি শেখ সুজাত একজন জনপ্রিয় নেতা, এই কয়েকদিনে আমি বুঝতে পেরেছি তাঁকে ছাড়া এই নির্বাচনে জয়ী হওয়া সম্ভব নয়। তাই দেশনেত্রী খালেদা জিয়াকে মুক্তি ও তারেক জিয়াকে দেশে ফিরিয়ে আনতে, গণতন্ত্র রক্ষায় দেশের মানুষকে শান্তি ফিরিয়ে দিতে ধানের শীষে ভোট দিবেন। আমার নির্বাচনী কাজে শেখ সুজাত মিয়া নেতৃত্ব দিবেন। আমি অত্র এলাকার সবাইকে চিনি না, শেখ সুজাত মিয়া সবাইকে চিনেন এবং জানেন তাই তাঁর নির্দেশেই আমার নির্বাচনী কার্যক্রম পরিচালনা হবে। ঐক্যফ্রন্টের বিরুদ্ধে অনেক হুমকি, ষড়যন্ত্র চলছে সেসব মোকাবিলা করে ৩০ তারিখে ভোট দিতে হবে। রাতে পুলিশ ১৬ বছরের কিশোর ও ৭০ বছরের বৃদ্ধকে ধরে নিয়ে যাচ্ছে, নেতাকর্মীদের ঘরে ঘুমাতে দিচ্ছে না। আগামী ৩০ ডিসেম্বর আমাদের সবাইকে হুমকি ধামকি মোকাবিলা করে ভোট কেন্দ্র পাহারা দিতে হবে।

এরপরই বিএনপি’র দু’বারের সাবেক এমপি শেখ সুজাত মিয়া বলেন ‘রেজা-সুজাত ভাই ভাই ধানের শীষে ভোট চাই’, ‘রেজা-সুজাত ভাই ভাই আমাদের কোন বিভেদ নাই’ শ্লোগান দিয়ে বক্তব্য শুরু করেন। তিনি বলেন আমাদের মধ্যে আজ থেকে আর কোন বিরোধ নেই। দেশনেত্রী খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য আমরা দুই ভাই মিলেমিশে কাজ করব। আমি মনে করি অত্র এলাকার আগামী দিনের এমপি ড. রেজা কিবরিয়া, আর তাঁকে নিয়েই নবীগঞ্জ-বাহুবলের উন্নয়ন কাজ পরিচালনা করব। মামলা, হামলা, ভয়ভীতি হুমকি যাই আসুক আজ থেকে এক পা পিছু হবো না। ধানের শীষকে ৩০ ডিসেম্বর বিজয়ী করে ঘরে ফিরব।

সভা শেষে ড. রেজা কিবরিয়া ও সাবেক এমপি শেখ সুজাতের নেতৃত্বে গণমিছিল নবীগঞ্জ শহরের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে। এরপর ড. রেজা কিবরিয়া নবীগঞ্জ পৌর বিএনপি’র সাবেক সভাপতি বিএনপি নেতা মরহুম অ্যাডভোকেট আব্দুস শহীদ গোলাপের বাসভবনে গিয়ে কিছু সময় কাটান ও তাঁর কবর জিয়ারত করেন।

নিউজটি শেয়ার করুন





সর্বস্বত্ব © ২০১৯ মাতৃভূমির খবর কর্তৃক সংরক্ষিত

Design & Developed BY ThemesBazar