ঢাকা ০৬:১৪ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৪ অগাস্ট ২০২২, ৩০ শ্রাবণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
জোয়ার ও বৃষ্টির পানিতে শরনখোলা উপজেলার রায়েন্দা বাজার প্লাবিত। ভাঙ্গা – যশোর – বেনাপোল মহাসড়কটি চার লেনে উন্নীতকরন হলে দুরত্ব কমবেশি ৮৬ কি: মি: গজারিয়ায় ভবেরচর ইউনিয়নে জাতীয় শোক দিবস পালনে প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত। মাদারীপুরের কালকিনিতে এক শিশুকে ধর্ষনের চেষ্টা,থানায় মামলা দায়ের টাঙ্গাইলে মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ‘বি’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত রাঙ্গাবালীর জল কপাটের বেহাল দশা, দুশ্চিন্তায় কৃষকরা গজারিয়ার বালুয়াকান্দীতে অনুদানের চেক হস্তান্তর মতলব উত্তর উপজেলা আওয়ামী লীগের যৌথ বর্ধিত সভা ট্রাক উল্টে খাদে পড়ে গেল শরনখোলা উপজেলায় মতলব উত্তরে নতুন ভোটার ফরমে ইউপি সদস্যের স্বাক্ষর জাল করার অভিযোগ

ঝিনাইগাতীতে আপদকালীন কমিউনিটি বীজতলা

শেরপুর প্রতিনিধি : শেরপুরের ঝিনাইগাতীতে রোপা আমনের চারা নিশ্চিত করতে ৪ একর জমিতে আপদকালীন কমিউনিটি বীজতলা করেছে কৃষি বিভাগ। সংশ্লিষ্ট কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, চলতি রোপা আমন মৌসুমে ১৫ হাজার ৭১০ হেক্টর জমিতে চাষের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। আর এ পরিমাণ জমির জন্যে কৃষক পর্যায়ে ১ হাজার ২৫৫ হেক্টর জমিতে বীজতলা করা হয়। কিন্তু গত জুলাই মাসে টানা সাত দিনের অতিবৃষ্টি ও উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ী ঢলে সৃষ্ট বন্যায় ১১৩ হেক্টর জমির রোপা আমন ধানের বীজতলা সম্পূর্ণ ভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়। পরে কৃষি বিভাগের পরার্মশে কৃষকেরা দ্রুত সময়ের মধ্যে আবারও নতুন করে বীজতলা তৈরী করতে সক্ষম হয়েছেন। এর পরেও যাতে চারা সংকটের কারণে কোন কৃষকের জমি অনাবাদি না থাকে সে জন্যে প্রতাবনগর গ্রামে ৪একর জমিতে আপদকালীন কমিউনিটি বীজতলা করেছে কৃষি বিভাগ। এ বিষয়ে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো. হুমায়ুন কবির বলেন, এবারের বন্যায় ১১৩ হেক্টর রোপা আমন ধানের বীজতলা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকেরা কৃষি বিভাগের পরার্মশে নতুন করে বীজতলা করেছেন। পাশাপাশি আমরাও কৃষকের জমি ভাড়া নিয়ে কৃষি বিভাগের খরচে ৪একর জমিতে আপদকালীন কমিউনিটি বীজতলা করেছি।

Tag :
জনপ্রিয় সংবাদ

জোয়ার ও বৃষ্টির পানিতে শরনখোলা উপজেলার রায়েন্দা বাজার প্লাবিত।

ঝিনাইগাতীতে আপদকালীন কমিউনিটি বীজতলা

আপডেট টাইম ১২:৪৪:২৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২০ অগাস্ট ২০১৯

শেরপুর প্রতিনিধি : শেরপুরের ঝিনাইগাতীতে রোপা আমনের চারা নিশ্চিত করতে ৪ একর জমিতে আপদকালীন কমিউনিটি বীজতলা করেছে কৃষি বিভাগ। সংশ্লিষ্ট কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, চলতি রোপা আমন মৌসুমে ১৫ হাজার ৭১০ হেক্টর জমিতে চাষের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। আর এ পরিমাণ জমির জন্যে কৃষক পর্যায়ে ১ হাজার ২৫৫ হেক্টর জমিতে বীজতলা করা হয়। কিন্তু গত জুলাই মাসে টানা সাত দিনের অতিবৃষ্টি ও উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ী ঢলে সৃষ্ট বন্যায় ১১৩ হেক্টর জমির রোপা আমন ধানের বীজতলা সম্পূর্ণ ভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়। পরে কৃষি বিভাগের পরার্মশে কৃষকেরা দ্রুত সময়ের মধ্যে আবারও নতুন করে বীজতলা তৈরী করতে সক্ষম হয়েছেন। এর পরেও যাতে চারা সংকটের কারণে কোন কৃষকের জমি অনাবাদি না থাকে সে জন্যে প্রতাবনগর গ্রামে ৪একর জমিতে আপদকালীন কমিউনিটি বীজতলা করেছে কৃষি বিভাগ। এ বিষয়ে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো. হুমায়ুন কবির বলেন, এবারের বন্যায় ১১৩ হেক্টর রোপা আমন ধানের বীজতলা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকেরা কৃষি বিভাগের পরার্মশে নতুন করে বীজতলা করেছেন। পাশাপাশি আমরাও কৃষকের জমি ভাড়া নিয়ে কৃষি বিভাগের খরচে ৪একর জমিতে আপদকালীন কমিউনিটি বীজতলা করেছি।