শুক্রবার, ১৮ জুন ২০২১, ০২:৪৬ পূর্বাহ্ন

জাপার সঙ্গে সংলাপ: দেশের উন্নয়নে অর্থবহ নির্বাচন চান প্রধানমন্ত্রী

মাতৃভূমির খবর ডেস্ক:   দেশের উন্নয়নের ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখতে অর্থবহ নির্বাচন চান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। গতকাল সোমবার গণভবনে বিরোধী দল জাতীয় পার্টির (জাপা) সঙ্গে সংলাপে প্রধানমন্ত্রী তার এ অভিপ্রায়ের কথা জানান। আগামী নির্বাচনে অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষভাবে জনগণ সেই ভোটাধিকার প্রয়োগ করবে। উন্নয়নের পথে সরকারের অগ্রযাত্রায় পাশে থেকে সহযোগিতা করায় জাতীয় পার্টিকে ধন্যবাদ জানিয়েছে প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ হাসিনা। সোমবার রাতে গণভবনে জাতীয় পার্টির (জাপা) চেয়ারম্যান এইচএম এরশাদের নেতৃত্বাধীন সম্মিলিত জাতীয় জোটের সঙ্গে আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন ১৪ দলীয় জোটের আলোচনায় সূচনা বক্তৃতায় প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেন। সংলাপের সময় নির্ধারণ ছিল সন্ধ্যা সাড়ে ৭টা। কিন্তু সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে এইচএম এরশাদের নেতৃত্বে সম্মিলিত জাতীয় জোটের নেতারা গণভবনে আসেন। এ কারণে নির্ধারিত সময়ের ১০ মিনিট আগেই সংলাপ শুরু হয়। রাত ৯টা ৫ মিনিটে সংলাপ শেষ হয়।  সংলাপের শুরুতে এইচএম এরশাদ ও রওশন এরশাদ প্রধানমন্ত্রীকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান।

আলোচনায় ১৪ দলীয় জোটের প্রতিনিধিদলের নেতৃত্ব দেন আওয়ামী লীগ সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং পাঁচটি দলের সমন্বয়ে গঠিত সম্মিলিত জাতীয় জোটের নেতৃত্ব দেন এইচএম এরশাদ।

সংলাপ শেষে গণভবন থেকে বেরিয়ে যাওয়ার সময় জাতীয় পার্টির (জাপা) চেয়ারম্যান এইচএম এরশাদ সাংবাদিকদের বলেন, তার দলের নেতারা গণভবনে সংলাপ করতে আসেননি। এসেছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাত্ করতে, সেটি সফলভাবে হয়েছে। সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে অনেকটা ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে এরশাদ বলেন, কোনো সংলাপ হয়নি। আসন চূড়ান্ত হয়নি। ৩০ জন মানুষ নিয়ে কী আসনের কথা বলা যায় নাকি?
জাপার কো-চেয়ারম্যান জি এম কাদের বলেন, সংলাপে সুনির্দিষ্ট কোনও দাবি জানাইনি আমরা। সংবিধানের আলোকেই নির্বাচনের দাবি জানিয়েছি। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী সঙ্গে আগামী নির্বাচনের আসন ভাগাভাগি ছাড়াও রাজনৈতিক বিভিন্ন বিষয়ে কথা হয়েছে। সংবিধানের বাইরে যাবে না জাপা। বিএনপি নির্বাচনে না এলে ৩০০ আসনে প্রার্থী দেবে জাপা। সেক্ষেত্রে আলাদাভাবে নির্বাচন করা হবে।

আগামী নির্বাচন নিয়ে রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে ধারাবাহিক সংলাপ করছে আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন ক্ষমতাসীন ১৪ দলীয় জোট। বিএনপি, গণফোরাম, নাগরিক ঐক্য ও জেএসডির সমন্বয়ে গঠিত জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সঙ্গে আলোচনার মাধ্যমে গত বৃহস্পতিবার সংলাপ শুরু হয়। এর ধারাবাহিকতায় সোমবার জাপার নেতৃত্বাধীন ৫৮ দলের জোট সম্মিলিত জাতীয় জোটের (ইউএনএ) সঙ্গে সংলাপে বসে ১৪ দল।

নিউজটি শেয়ার করুন





সর্বস্বত্ব © ২০১৯ মাতৃভূমির খবর কর্তৃক সংরক্ষিত

Design & Developed BY ThemesBazar