সোমবার, ১৪ জুন ২০২১, ০৫:২৫ পূর্বাহ্ন

জাতীয় নির্বাচনকেন্দ্রিক কোন অপতৎপরতা সফল হবে না : পুলিশ কমিশনার

মাসুদ হাসান রিদম :   ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া বলেছেন,আসন্ন একাদশ জাতীয় নির্বাচনকেন্দ্রিক কোন অপতৎপরতা সফল হবে না। আজ শনিবার সকালে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ সদরদফতরে নিজ কার্যালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলার সময় কমিশনার একথা বলেন।
পুলিশ কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া বলেন, নির্বাচনকেন্দ্রিক কোন অপতৎপরতা সফল হবে না। কেউ যদি ভোটারদের মনে ভীতি সঞ্চার করতে চায়, অসৎ উদ্দেশ্য চরিতার্থ করতে চায়। আমরা কঠোর হস্তে তা মোকাবেলা করব।এই নিরাপত্তার অংশ হিসাবেই রাজধানীর গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনা, নির্বাচন কমিশন ও জেলা প্রশাসক কার্যালয়কেও বিশেষ নিরাপত্তা দেওয়া হচ্ছে।
ঢাকা মহানগর পুলিশের কমিশনার বলেন, সকাল থেকে নির্বাচন শেষ না হওয়া পর্যন্ত ঢাকা মহানগর পুরোটা নিরাপত্তার চাদরে থাকবে। পুলিশের সঙ্গে সশস্ত্র বাহিনী, বিজিবি, র‌্যাব সমন্বয় করে এ নিরাপত্তার বলয় তৈরি করা হয়েছে। ভোটারদের ভয় মুক্ত থেকে ভোট কেন্দ্রে গিয়ে নিজের পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দেওয়ার আহ্বানও জানিয়েছেন পুলিশের এই কমিশনার।
কয়েক দিন ধরে সোশ্যাল মিডিয়াতে দেখা যাচ্ছে ড. কামালসহ কয়েকজনকে হত্যার ষড়যন্ত্রের কথা প্রচার চলছে। এটা কি শুধু গুজব নাকি সত্যতা আছে জানতে চাইলে কমিশনার বলেন, একটি দেশি-বিদেশি স্বার্থান্বেষী মহল সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহার করে দেশের গণতন্ত্র, স্বার্বভৌমত্ব, উন্নয়নের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রে লিপ্ত। নানাভাবে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির চেষ্টা চলছে। প্রজাতন্ত্রের কর্মে নিয়োজিতদের বিরুদ্ধে অভিযোগ দিয়ে কার্যক্রমে নিরুৎসাহিত করা ও চাপে রাখার কৌশলও দেখা গেছে। সাইবার ক্রাইম ইউনিট ও গোয়েন্দা সংস্থা তথ্য সংগ্রহ করে এসব বিষয়ে বিচার বিশ্লেষণ করা হচ্ছে।
বিভিন্ন নেতার নিরাপত্তা বিঘ্নিত করার যে সংবাদ সোশ্যাল ও অনলাইন মিডিয়াতে এসেছে সেগুলোর ব্যাপারে আমরা অত্যন্ত সতর্ক ও গুরুত্বের সাথে নিয়েছি। আপনাদের আশ্বস্ত করতে চাই, কোনো ষড়যন্ত্র ও অপতৎপরতা সফল হতে দেয়া হবে না। যারা ফেইক আইডি খুলে ভীতি সৃষ্টি করতে চায়, নির্বাচনকে বিতর্কিত করতে চায় তাদের বিরুদ্ধে আমাদের অবস্থা কঠোর ও সুস্পষ্ট। ভীতির কোনো কারণ নাই।
দেশের প্রত্যেকটি নাগরিকের নিরাপত্তার বিষয়টি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। শুধু ড. কামাল হোসেন কিংবা জাতীয় নেতারা নন, যে কোনো নাগরিকের নিরাপত্তা ঝুঁকি আছে বলে তথ্য ও অনুসন্ধানে প্রমাণিত হলে ব্যবস্থা নেয়া হবে। এ ব্যাপারে আমরা তৎপর ও সতর্ক রয়েছি। নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করার জন্য প্রকাশ্যে গোপনে আমাদের সব কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে বলে জানান তিনি।
ঝুঁকিপূর্ণ আসনের ব্যাপারে পুলিশের পরিকল্পনা জানতে চাইলে ডিএমপি কমিশনার বলেন, প্রত্যেকটা নির্বাচনে কিছু ঝুঁকি থাকে। প্রার্থী ও তাদের এজেন্ট অনেক ক্ষেত্রে অতি উৎসাহী হয়ে আচরণবিধি লঙ্ঘন ও বলপ্রয়োগ করে থাকেন। সেই বিবেচনায় আমরা কিছু কিছু কেন্দ্রকে ঝুঁকিপূর্ণ বলেছি। সবকিছু মিলেই কিন্তু ঝুঁকিপূর্ণ বলা হয়ে থাকে। তবে ওই অর্থে ঢাকার কোনো কেন্দ্র ঝুঁকিপূর্ণ নয়। কারণ, ঝুঁকি থাকলেও তা মোকাবেলায় সব ধরনের প্রস্তুতি রয়েছে।
নিউজটি শেয়ার করুন





সর্বস্বত্ব © ২০১৯ মাতৃভূমির খবর কর্তৃক সংরক্ষিত

Design & Developed BY ThemesBazar