বৃহস্পতিবার, ২২ অক্টোবর ২০২০, ১১:৫৬ পূর্বাহ্ন

চৌগাছায় অতিরিক্ত তাপমাত্রায় জনজীবন বিপর্যস্ত।।

মোঃ মহিদুল ইসলাম (চৌগাছা-যশোর) : যশোরের চৌগাছায় তাপমাত্রা পরিমাণ বেড়ে (৩৯-৪১) ডিগ্রীতে উঠেছে। আজ এক সপ্তাহ ধরে তাপমাত্রার পরিমাণ কমছে না বরং গতদিনের চেয়ে মনে হচ্ছে বেশি থাকছে। চৌগাছার সাংবাদিক আব্দুল আলীম মুঠোফোনে জানান, তিনি নিজেই তার মামা মেহেদীর সাথে চৌগাছা বাজারের নতুন মাইক্রো স্ট্যান্ড সংলগ্ন ডাঃ জয়নুর রহমানের চেম্বারে পৌছালে ডাঃ সাহেব ডিজিটাল ওজন মেশিনে মেহেদী হোসেনকে দাড়াতে বলে তাপমাত্রা ও ওজন পরিমাপ করলেন। সেখানে তাপমাত্রা দাড়ায় ৩৯ ডিগ্রী। অপরদিকে চৌগাছা বাজারের স্বর্ণপট্টি সংলগ্ন কসমেটিক্স ব্যবসায়ী ও সাংবাদিক মহিদুল ইসলাম তার মোবাইল এ্যাপসের মাধ্যমে তাপমাত্রা পরিমাপ করে দেখেন ৪১ ডিগ্রী। সুতরাং ধরা যায় চৌগাছার তাপমাত্রা আজ শুক্রবার (৩৯-৪১) ডিগ্রী। যা কোনো মতেই স্বাভাবিক পরিবেশ উপযোগী নয়। চারদিকে থমথম অবস্থা বিরাজ করছে।

এই বৈরি আবহাওয়ায় সাধারণ মানুষ, পশু-পাখি, জীব-জন্তু সকলের জীবন বিপর্যস্ত। সস্তির নিশ্বাস নেই কোথাও। এর মাঝে উপজেলার বিভিন্ন গ্রামের কিছু কিছু কৃষকের ধান কাটা বাকি রয়ে গেছে। গরমের এই থমথমে আবহাওয়ায় কৃষক জীবনের ঝুকি নিয়ে সৃষ্টিকর্তার নাম লইয়ে যেনো অতিরিক্ত তাপ সহ্য করে মাঠে খেটেই চলেছে একটু শান্তি ও সুখের জন্য।

উপজেলার বিভিন্ন গ্রামের শিশুরা গরমে যেনো পুকুরে নদীতে সামান্য পানির দেখা পাইলেই সেখানে গোসলে লিপ্ত থাকছে। গলা ডুবিয়ে বসে থাকছে পানিতে। এটাতেই যেনো তাদের একটু শান্তি, এক্টু ভালোলাগা। প্রতিবেদকের পনেরো মাসের ছোট্ট ছেলে গরমে গোসলের সময় বালতির ঠান্ডা পানিতে বসালে উঠতে চাচ্ছে না। উঠালে কেঁদে কেঁদে সামনে যা পাচ্ছে তাই ভেঙ্গে ফেলছে বলে জানান। শুধু তাই নয় সমাজের আবাল, বৃদ্ধ, বণিতা সকলের জীবনে যেনো হাহাকার অবস্থা বিরাজ করছে।

এছাড়া প্রতিবেদক নিজের গ্রামের পথ চলতে চলতে নিজে চোখে দেখেন একটি অল্প পানি পূর্ণ পুকুরে তিনটি কুকুর গলা ডুবিয়ে বসে আছে। বড় বড় নিশ্বাস ফেলছে। যেনো এছাড়া উপায় নেই তাদের। কারণ তারা যে পশু। অনুভুতি আছে কিন্তু বলার নেই। এমনকি তাদের দুঃখ দেখার মতো সৃষ্টিকর্তা ছাড়া দুনিয়াতে কেউ নেই। তাইতো সামান্য গরম পানিতেও তারা নিজের শরীরটা ঠান্ডা করার আশায় আছে। অর্থ সম্পদশালী মানুষতো টাকা পয়সা ব্যয়ে অনেক ভাবে গরম থেকে বাঁচার উপায় খুঁজে পাচ্ছে, বিপদে আছে গরীব-দুঃখী, পশু-পাখি, জীব-জন্তু।

বৃষ্টিহীন মে মাসে বিরাজমান অস্বস্তিকর গরম আরও অন্তত কয়েকদিন থাকবে। তবে বঙ্গোপসাগরে এখনই কোনো নিম্নচাপের পরিস্থিতি তৈরি হয়নি বলে জানা যায় সংবাদে।

চলতি মে মাসের দীর্ঘমেয়াদী পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, এ মাসে উত্তর ও উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলে একটি তীব্র তাপপ্রবাহ (৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের উপরে) এবং অন্যত্র ১-২টি মৃদু তাপপ্রবাহ (৩৬-৩৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস) বা মাঝারি তাপপ্রবাহ (৩৮-৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াস) বয়ে যেতে পারে।

সেই সঙ্গে দেশের উত্তর থেকে মধ্যাঞ্চলে ২-৩ দিন মাঝারি/তীব্র কালবৈশাখী এবং দেশের অন্যত্র ৩-৪ দিন হালকা/মাঝারি কালবৈশাখী হতে পারে। এ সময় শিলা বৃষ্টি হওয়ারও সম্ভাবনা রয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন





সর্বস্বত্ব © ২০১৯ মাতৃভূমির খবর কর্তৃক সংরক্ষিত

Design & Developed BY ThemesBazar