শনিবার, ৩১ অক্টোবর ২০২০, ০৯:৪৭ পূর্বাহ্ন

চীনের সঙ্গে তীব্র উত্তেজনার মধ্যে ‘বিরল’ সামরিক মহড়ায় যুক্তরাষ্ট্র

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ চীনের সঙ্গে উত্তেজনার মধ্যে বিতর্কিত আন্তর্জাতিক জলসীমা দক্ষিণ চীন সাগরে আবারও ‘বিরল’ যৌথ সামরিক মহড়া শুরু করেছে যুক্তরাষ্ট্র। এতে অংশ নিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্রের বিমানবাহিনীর দুটি রণতরিসহ অন্যান্য সামরিক নৌযান। এক মাসের মধ্যে এটা দেশটির দ্বিতীয় সামরিক মহড়া। গতকাল শনিবার এই খবর দিয়েছে মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন।

প্রশান্ত সাগরে নিয়োজিত মার্কিন নৌবাহিনীর প্যাসিফিক ফ্লিট (প্রশান্ত মহাসাগরীয় নৌবহর) গত শুক্রবার এক বিবৃতিতে বলেছে, রণতরি ইউএসএস রোনাল্ড রিগ্যান ও ইউএসএস মিনিটজ এবং তাদের নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা দ্রুতগামী যুদ্ধজাহাজ (ক্রুইজার) ও ডেস্ট্রয়ারগুলো শুক্রবার থেকে দক্ষিণ চীন সাগরে মহড়া শুরু করেছে। ওই দুটি রণতরিবাহী যুদ্ধজাহাজে ১২ হাজারের বেশি মার্কিন সামরিক সদস্য রয়েছে।

এর আগে চলতি মাসের প্রথম দিকে চীনের সেনাবাহিনী দক্ষিণ চীন সাগরের বিরোধপূর্ণ প্যারাসেল আইসল্যান্ডের কাছে পাঁচ দিনের সামরিক মহড়া চালানো শুরু করলে বেইজিংকে টেক্কা দিতে পাল্টা সামরিক মহড়া করে মার্কিন বাহিনী। সেই মহড়াতেও ইউএসএস রোনাল্ড রিগ্যান ও ইউএসএস মিনিটজ অংশ নেয়।

করোনাভাইরাসের উৎপত্তি, বাণিজ্য, হংকংয়ে জাতীয় নিরাপত্তা আইন কার্যকরসহ বিভিন্ন বিষয়ে ওয়াশিংটন ও বেইজিংয়ের মধ্যে বর্তমানে উত্তেজনা চরমে। এমন সময়ে কৌশলগতভাবে গুরুত্বপূর্ণ দক্ষিণ চীন সাগরে উত্তেজনা সৃষ্টির জন্য একে অন্যকে দায়ী করে আসছে দেশ দুটি।

নতুন করে সামরিক মহড়ার বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্রের নৌবাহিনী আরও বলেন, যুদ্ধকালীন সময় প্রস্তুতি ও দক্ষতা প্রদর্শন করতে কৌশলগত আকাশ প্রতিরক্ষা মহড়া পরিচালিত করছে ১২০টি যুদ্ধবিমানবাহী রণতরি দুটি। ক্ষেপণাস্ত্র বা রকেটের মাধ্যমে যেকোনো ধরনের আকস্মিক আক্রমণের জবাব দেওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করতে উচ্চমাত্রার প্রস্তুতির প্রশিক্ষণ দিয়ে থাকে রণতরি দুটি।

চলতি মাসের প্রথম থেকেই দক্ষিণ চীন সাগরে রয়েছে নিমিটজ ও রিগ্যান। দুটি রণতরি একসঙ্গে সামরিক মহড়ায় অংশ নেওয়ার ঘটনা বিরল। ২০১৪ সালের পর প্রথমবারের দুটি রণতরি একসঙ্গে মহড়ায় যোগ দিল।

চলতি মাসে এর আগের মার্কিন মহড়া শুরু হয় ৪ জুলাই। রণতরি রিগ্যানে থাকা লেফটেন্যান্ট কমান্ডার সেন ব্রোফি বলেন, ৮ জুলাই পর্যন্ত দুটি রণতরি নিজেদের আভিযানিক কার্যক্রম বজায় রাখে।

নিউজটি শেয়ার করুন





সর্বস্বত্ব © ২০১৯ মাতৃভূমির খবর কর্তৃক সংরক্ষিত

Design & Developed BY ThemesBazar