ঢাকা ০৮:২৬ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ২৫ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
জীবন যুদ্ধে হার না মানা প্রতিবন্ধী মনছুর আনোয়ারা পল্লী বিদ্যুৎ অফিসে অবৈধ টাকায় সরে বৈদ্যুতিক খুটি, বৈধতায় মেলে যন্ত্রণা দুমকিতে কৃষকদের মাঝে বিনামূল্যে বীজ বিতরণ নারায়ণগঞ্জ অফিসার্স ফোরামের নতুন কমিটি ঘোষণা টাঙ্গাইলের ভূঞাপুরে এমপি ও মেয়র গ্রুপের পাল্টাপাল্টি বিক্ষোভ মিছিল আবারও রাজনীতিতে সক্রিয় হচ্ছেন কাটাখালীর সাবেক পৌর মেয়র আব্বাস আলী পর্যটনে নতুন সম্ভাবনা দেখাচ্ছে পটুয়াখালীর বিচ্ছিন্ন চর। দুই মন্ত্রীর এলাকায় থমকে গেছে ফোরলেন শিক্ষককে পোশাক নিয়ে অপমান, ম্যানেজিং কমিটির সভাপতির পদত্যাগ। মুরাদনগরে ক্ষতিগ্রস্ত রাস্তার সংস্কার কাজের উদ্বোধন করেন সংসদ সদস্য

চিটাগংকে হারিয়ে সিলেটের প্রথম জয়

স্পোর্টস ডেস্ক :  উত্তেজনাটা ছিল ম্যাচের শেষ বল পর্যন্ত। সিলেট সিক্সার্স নাকি চিটাগং ভাইকিংস—কোন দল জিতবে, সেটা বলা মুশকিল ছিল। টানটান উত্তেজনাপূর্ণ এই ম্যাচে শেষ পর্যন্ত জিতেছে নাসির-সাব্বিরের সিলেট। শেষ ওভারে দারুণ নাটক জমিয়ে তুলেছিলেন চিটাগং ভাইকিংসের দক্ষিণ আফ্রিকান রিক্রুট রবি ফ্রাইলিংক। দুটি ছক্কাসহ তুলে ফেলেছিলেন ১৮ রান। কিন্তু শেষ পর্যন্ত পারলেন না দলকে জেতাতে। ৫ রান দুরে থাকতেই থেমে যেতে হলো তাকে এবং চিটাগং ভাইকিংসকে।

আজ বুধবার মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ম্যাচে সিলেট প্রথমে ব্যাট করতে নেমে ১৬৮ রানের চ্যালেঞ্জিং সংগ্রহ গড়ে। জবাবে চিটাগংয়ের ইনিংস থামে ১৬৩ রানে।

প্রথম ম্যাচে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের কাছে হেরে যাওয়ার পর প্রথম জয়ের লক্ষ্য নিয়ে চিটাগংয়ের মুখোমুখি হলো ডেভিড ওয়ার্নারের সিলেট সিক্সার্স। অবশেষে শ্বাসরূদ্ধকর ম্যাচে ৫ রানে আশরাফুল-মুশফিকদের দল চিটাগং ভাইকিংসকে হারিয়ে জয়ের দেখা পেলো সিলেট।

এ ছাড়া ক্যামেরন ডেলপোর্ট ৩৮, সিকান্দার রাজা ৩৭ ও মোহাম্মদ আশরাফুল ২২ রান করেন। সিলেটের জয়ে সবচেয়ে বড় ভূমিকা রাখেন পেসার তাসকিন আহমেদ। চার ওভারে ২৮ রান দিয়ে চার উইকেট তুলে নেন তিনি।

এর আগে টস জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে সিলেট সিক্সার্স গড়েছিল ১৬৮ রানের চ্যালেঞ্জিং সংগ্রহ, যাতে অস্ট্রেলীয় নিষিদ্ধ ক্রিকেটার ওয়ার্নার করেন ৪৭ বলে ৫৯ রান। তরুণ বাংলাদেশি ব্যাটসম্যান আফিফ তাঁকে সাপোর্ট দিতে গিয়ে খেলেন ৪৫ রানের চমৎকার একটি ইনিংস।

পরে ক্যারিবীয় ব্যাটসম্যান নিকোলাস পুরান ৩২ বলে ৫২ রানের একটি ইনিংস খেলে দলের সংগ্রহ বড় করতে অন্যতম ভূমিকা রাখেন।

রবি ফ্রাইলিঙ্ক ২৬ রানে তিনটি ও নাঈম হাসান ও খালেদ আহমেদ একটি করে উইকেট পান।

আসরে নিজেদের প্রথম ম্যাচে চট্টগ্রাম তিন উইকেটে জিতেছিল রংপুর রাইডার্সের বিপক্ষে। আর সিলেট নিজেদের প্রথম ম্যাচে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানসের কাছে চার উইকেটে হেরেছিল।

Tag :
জনপ্রিয় সংবাদ

জীবন যুদ্ধে হার না মানা প্রতিবন্ধী মনছুর

চিটাগংকে হারিয়ে সিলেটের প্রথম জয়

আপডেট টাইম ১০:৩৯:৪৫ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ৯ জানুয়ারী ২০১৯

স্পোর্টস ডেস্ক :  উত্তেজনাটা ছিল ম্যাচের শেষ বল পর্যন্ত। সিলেট সিক্সার্স নাকি চিটাগং ভাইকিংস—কোন দল জিতবে, সেটা বলা মুশকিল ছিল। টানটান উত্তেজনাপূর্ণ এই ম্যাচে শেষ পর্যন্ত জিতেছে নাসির-সাব্বিরের সিলেট। শেষ ওভারে দারুণ নাটক জমিয়ে তুলেছিলেন চিটাগং ভাইকিংসের দক্ষিণ আফ্রিকান রিক্রুট রবি ফ্রাইলিংক। দুটি ছক্কাসহ তুলে ফেলেছিলেন ১৮ রান। কিন্তু শেষ পর্যন্ত পারলেন না দলকে জেতাতে। ৫ রান দুরে থাকতেই থেমে যেতে হলো তাকে এবং চিটাগং ভাইকিংসকে।

আজ বুধবার মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ম্যাচে সিলেট প্রথমে ব্যাট করতে নেমে ১৬৮ রানের চ্যালেঞ্জিং সংগ্রহ গড়ে। জবাবে চিটাগংয়ের ইনিংস থামে ১৬৩ রানে।

প্রথম ম্যাচে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের কাছে হেরে যাওয়ার পর প্রথম জয়ের লক্ষ্য নিয়ে চিটাগংয়ের মুখোমুখি হলো ডেভিড ওয়ার্নারের সিলেট সিক্সার্স। অবশেষে শ্বাসরূদ্ধকর ম্যাচে ৫ রানে আশরাফুল-মুশফিকদের দল চিটাগং ভাইকিংসকে হারিয়ে জয়ের দেখা পেলো সিলেট।

এ ছাড়া ক্যামেরন ডেলপোর্ট ৩৮, সিকান্দার রাজা ৩৭ ও মোহাম্মদ আশরাফুল ২২ রান করেন। সিলেটের জয়ে সবচেয়ে বড় ভূমিকা রাখেন পেসার তাসকিন আহমেদ। চার ওভারে ২৮ রান দিয়ে চার উইকেট তুলে নেন তিনি।

এর আগে টস জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে সিলেট সিক্সার্স গড়েছিল ১৬৮ রানের চ্যালেঞ্জিং সংগ্রহ, যাতে অস্ট্রেলীয় নিষিদ্ধ ক্রিকেটার ওয়ার্নার করেন ৪৭ বলে ৫৯ রান। তরুণ বাংলাদেশি ব্যাটসম্যান আফিফ তাঁকে সাপোর্ট দিতে গিয়ে খেলেন ৪৫ রানের চমৎকার একটি ইনিংস।

পরে ক্যারিবীয় ব্যাটসম্যান নিকোলাস পুরান ৩২ বলে ৫২ রানের একটি ইনিংস খেলে দলের সংগ্রহ বড় করতে অন্যতম ভূমিকা রাখেন।

রবি ফ্রাইলিঙ্ক ২৬ রানে তিনটি ও নাঈম হাসান ও খালেদ আহমেদ একটি করে উইকেট পান।

আসরে নিজেদের প্রথম ম্যাচে চট্টগ্রাম তিন উইকেটে জিতেছিল রংপুর রাইডার্সের বিপক্ষে। আর সিলেট নিজেদের প্রথম ম্যাচে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানসের কাছে চার উইকেটে হেরেছিল।