রবিবার, ০১ অগাস্ট ২০২১, ০১:৫২ পূর্বাহ্ন

কার নির্দেশে শুটিং বন্ধ?

শুটিং বন্ধ করার জন্য কে নির্দেশ দিয়েছেন, কেউ নাকি জানেন না। দোষ দিচ্ছেন একজন আরেকজনকে, কিন্তু বন্ধ হয়ে গেছে ‘ভূমিকন্যা’র শুটিং। স্টার জলসায় গত ৩০ জুলাই থেকে শুরু হয়েছে এই নতুন সিরিয়াল। রূপক সাহার উপন্যাস ‘তরিতা পুরাণ’ অবলম্বনে তৈরি হয়েছে এর কাহিনি। পরিচালনা করছেন অরিন্দম শীল।

গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে হঠাৎ বন্ধ হয়ে যায় এই সিরিয়ালের শুটিং। এরপর অরিন্দম শীল ভারতীয় সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন, পূর্ব কলকাতার বানতলায় যখন শুটিং হচ্ছিল, তখন ফেডারেশন অব সিনে টেকনিশিয়ানস অ্যান্ড ওয়ার্কার্স অব ইস্টার্ন ইন্ডিয়া শুটিং বন্ধের নির্দেশ দিয়েছে। আর পরিচালকের এই অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করে সংগঠনটির সাধারণ সম্পাদক অপর্ণা ঘটক বলেছেন, ‘আমরা শুটিং বন্ধ করিনি। প্রযোজকই প্যাকআপ করেছেন। টেকনিশিয়ানরা টাকা চাইতে গেলে যদি কেউ শুটিং প্যাকআপ করে দেয়, তা হলে আমাদের কিছু বলার নেই।’

‘ভূমিকন্যা’ সিরিয়ালে নাম ভূমিকায় অভিনয় করেছেন সোহিনী সরকারগত ২৩ আগস্ট বিকেলে ভারতের বাংলা টিভি চ্যানেলের মেগা সিরিয়ালের সঙ্গে যুক্ত সব পক্ষের প্রতিনিধিদের নিয়ে নবান্নে নিজের কার্যালয়ে বৈঠকে বসেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এর আগে বিভিন্ন দাবি আদায়ের জন্য টানা ছয় দিন ধর্মঘট করেন অভিনয়শিল্পীরা। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সাংবাদিকদের বলেন, ‘টালিউড ও টেলিউড বাংলার গর্ব। বাংলার এই শিল্প অসংখ্য মানুষের কর্মসংস্থানের জোগান দেয়। তাই সব পক্ষ যাতে খোলামেলাভাবে আলোচনা করে সমস্যার সমাধান করতে পারে, তার জন্যই এই বৈঠক ডাকা হয়। শুধু তা-ই নয়, বৈঠকে সবাই খোলামেলাভাবে আলোচনা করেছেন। একসঙ্গে কাজ করতে হলে মতবিরোধ থাকতেই পারে। কিন্তু সেসব মিটে গেছে। শুক্রবার থেকে আবার শুটিং শুরু হবে।’ তিনি আরও বলেন, ‘শিল্পী এবং টেকনিশিয়ানরা যাতে প্রতি মাসের ১৫ তারিখের মধ্যে বেতন ও পাওনা পেয়ে যান, সেই বিষয়টি অবশ্যই গুরুত্ব দিয়ে দেখা হবে। বাংলা সিরিয়াল বন্ধ হওয়া কোনোভাবেই কাম্য নয়।’

‘ভূমিকন্যা’ সিরিয়ালের দৃশ্যে কৌশিক সেনএদিকে অভিযোগ উঠেছে, মুখ্যমন্ত্রীর হস্তক্ষেপে শুটিং শুরু হলেও তাঁর নির্দেশ মানছেন না প্রযোজকেরা। সময় মতো তাঁরা পাওনা পরিশোধ করছেন না। এর ফলে জটিলতা তৈরি হয়েছে। এ ব্যাপারে অরিন্দম শীল বলেন, ‘আমি কারও পেমেন্ট বাকি রাখি না। জুনিয়র টেকনিশিয়ানদের ১২ দিনের টাকা বাকি আছে, সেটা শুক্রবার দিয়ে দেব। এর মধ্যেই ফেডারেশন থেকে ফোন করে শুটিং বন্ধ করতে বলেছে। আমার সেটের টেকনিশিয়ানদের কোনো অভিযোগ নেই। কিন্তু ফেডারেশন শুটিং বন্ধ করতে বললে তাঁদের কিছু করার নেই। এভাবে শুটিং বন্ধ হওয়ায় আমার দুই থেকে আড়াই লাখ টাকার মতো ক্ষতি হয়েছে।’

এর আগে গত জুলাই মাসে ‘ভূমিকন্যা’ নিয়ে আয়োজিত অনুষ্ঠানে জানানো হয়, রূপকধর্মী এই সিরিয়াল মনসামঙ্গল দ্বারা অনুপ্রাণিত। মা মনসার রূপক এখানে সোহিনী সরকার অভিনীত চরিত্র ‘তরিতা’। সর্প বিশেষজ্ঞ তরিতা, ফরেস্ট অফিসার অঙ্কুশ আর জলজঙ্গলের ত্রাস চন্দ্রভানুকে নিয়ে মূল কাহিনি। নির্মাতারা জানিয়েছেন, ‘ভূমিকন্যা’ সিরিয়ালটি আসলে কোনো প্রেমের গল্প নয়। চরিত্রগুলো প্রতীকী। তবে টিভির দর্শকদের কাছে এখানে অনেক কিছুই নতুন মনে হবে। পুরো সিরিয়ালটি তৈরি করা হয়েছে সিনেমার আমেজে। এখানে অভিনয় করেছেন সিনেমার অনেক তারকা।

‘ভূমিকন্যা’ সিরিয়ালের দৃশ্যে অঙ্কিতা মজুমদার‘ভূমিকন্যা’ সিরিয়ালে অভিনয় করছেন কৌশিক সেন, সোহিনী সরকার, অনির্বাণ ভট্টাচার্য, চিরঞ্জিত, সুদীপ্তা চক্রবর্তী, রূপাঞ্জনা মৈত্র প্রমুখ। অরিন্দম শীল বলেছেন, ‘আমার শুরুটা ছোট পর্দা দিয়েই। পাঁচ-ছয় বছর হলো সিনেমার কাজ করছি। তবে এখন মনে হচ্ছে, টেলিভিশনকে কিছু ফেরত দেওয়ার সময় এসেছে। তাই এই সিরিয়াল আমার কাছে শিকড়ে ফেরার মতোই।’

‘তরিতা’ চরিত্রে অভিনয় করছেন সোহিনী সরকার। তিনি বলেন, ‘টিআরপির ওপর যদি এপিসোড নির্ভর করত, তাহলে আমি এই সিরিয়ালে কাজ করতাম না। নির্দিষ্ট এপিসোডে “ভূমিকন্যা” শেষ হয়ে যাবে। সবকিছু আগে থেকেই চূড়ান্ত হয়ে আছে। এসবই কাজটা করার বড় কারণ। আর আমার চরিত্র অন্য রকম। বলিউড বা হলিউডের অনেক চরিত্র দেখে হয়তো মনে হয়েছে, ইশ্‌, যদি এটা আমি পেতাম! আমার চরিত্রটি অনেকটা তেমন। অনেক অ্যাকশন সিকোয়েন্স রয়েছে। পুরো কাজটাই হচ্ছে আউটডোরে।’

নিউজটি শেয়ার করুন





সর্বস্বত্ব © ২০১৯ মাতৃভূমির খবর কর্তৃক সংরক্ষিত

Design & Developed BY ThemesBazar