রবিবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২০, ০৬:৩৮ পূর্বাহ্ন

কারাগারেই ঈদ কাটল ৩ নারীর

নিরাপদ সড়ক আন্দোলনকে কেন্দ্র করে গ্রেপ্তার হওয়া শিক্ষার্থীরা ঈদের আগে যখন জামিনে মুক্ত হচ্ছিলেন, তখন আম্বিয়া খাতুনও আশায় বুক বেঁধেছিলেন। কিন্তু তাঁর মেয়ে নারী উদ্যোক্তা বর্ণালী চৌধুরী লোপার (৩৫) ঈদ কেটেছে কারাগারে। বর্ণালীকে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয় ভাঙচুরের তিনটি মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়েছে পুলিশ।

শুধু বর্ণালী নন, ফেসবুকে উসকানি দেওয়ার অভিযোগে গ্রেপ্তার হওয়া আরেক নারী উদ্যোক্তা হাজারীবাগের কফিশপের মালিক ফারিয়া মাহজাবীন এবং কোটা সংস্কার আন্দোলনের যুগ্ম আহ্বায়ক ও ইডেনের ছাত্রী লুৎফুন্নাহার ওরফে লুমা সরকারও জামিন পাননি। তাঁদের ঈদ কেটেছে কারাগারে।

বর্ণালীর মা জানান, ঈদের আগে তাঁর মেয়ের জামিনের আবেদন নাকচ করা হয়েছে। পুলিশের রমনা বিভাগের দায়িত্বশীল একজন কর্মকর্তা প্রথম আলোকে বলেন, বর্ণালী আন্দোলনকারীদের মধ্যে খাবার সরবরাহ করেছিলেন। তাঁর কাছে এ জন্য বিদেশ থেকে দেড় শ ডলার (প্রায় ১২ হাজার টাকা) এসেছিল।

এই তিন নারী ছাড়াও ওই আন্দোলনের সময় গুজব ছড়ানোসহ নানা অভিযোগে গ্রেপ্তার হওয়া আলোকচিত্রী শহিদুল আলমও কারাগারে রয়েছেন। গতকাল এক বিবৃতিতে শহিদুলের স্ত্রী রেহনুমা আহমেদ ও সহকর্মী সায়দিয়া গুলরুখ জরুরি ভিত্তিতে তাঁকে কারাগার থেকে হাসপাতালে নেওয়ার আবেদন জানিয়েছেন। তাঁরা বলেছেন, ঈদের দিন তাঁরা কেরানীগঞ্জের কারাগারে শহিদুলের সঙ্গে দেখা করতে গিয়েছিলেন। তখন শহিদুল তাঁদের বলেছেন তিনি শ্বাসকষ্ট, চোয়াল ও মাড়িতে ব্যথা এবং চোখের সমস্যায় ভুগছেন। অথচ পুলিশ বাড়ি থেকে তুলে নেওয়ার আগে তাঁর এ রকম স্বাস্থ্য সমস্যা ছিল না।

কয়েক দফায় আদালত শহিদুলের জামিন নামঞ্জুর করেছেন। তবে গুজব ছড়ানোর অভিযোগে গ্রেপ্তার হওয়া অভিনয়শিল্পী নওশাবা আহমেদ ঈদের আগের দিন জামিনে মুক্তি পেয়েছেন।

আন্দোলনের সময় সংঘাত, ভাঙচুর, উসকানি ও পুলিশের কাজে বাধা দেওয়ার অভিযোগে ৫২টি মামলায় ৯৯ জনকে গ্রেপ্তার করেছিল পুলিশ। এঁদের মধ্যে ৫১ জন শিক্ষার্থী। লুমা ছাড়া সব শিক্ষার্থী জামিনে মুক্তি পান।
লুমা সরকারের ছোট বোন পিয়া সরকার প্রথম আলোকে বলেন, লুমা কাশিমপুর মহিলা কারাগারে আছেন। ঈদের দিন পরিবারের সদস্যরা তাঁর সঙ্গে দেখা করেছেন। ঈদের ছুটির আগের দিন তাঁরা জামিনের আবেদন করেছিলেন। কিন্তু ওই দিন শুনানি হয়নি। ফারিয়া মাহজাবিনের স্বামী মোহাম্মদ রিয়াসাত বলেন, তাঁর স্ত্রী এখনো জামিন পাননি।

এদিকে কোটা সংস্কার আন্দোলনের যুগ্ম আহ্বায়ক রাশেদ খানসহ ১০ শিক্ষার্থী ঈদের আগের দিন জামিনে মুক্তি পেয়ে কারাগার থেকে বের হয়েছেন। এ সময় সংস্কার আন্দোলনের নেতা-কর্মীরা ফুল দিয়ে তাঁদের সংবর্ধনা জানান।

নিউজটি শেয়ার করুন





সর্বস্বত্ব © ২০১৯ মাতৃভূমির খবর কর্তৃক সংরক্ষিত

Design & Developed BY ThemesBazar