রবিবার, ০৯ মে ২০২১, ০১:১৩ পূর্বাহ্ন

কারবালায় তাজিয়া মিছিলে পদদলিত হয়ে ৩১ জনের মৃত্যু

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :  জাপানের টোকিওর কাছে হনশু দ্বীপে ঘণ্টায় ২১০ কিলোপবিত্র আশুরার দিনে ইরাকের কারবালা শহরে শিয়া মতালম্বীদের একটি মিছিলে পদদলিত হয়ে অন্তত ৩১ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও শতাধিক। মঙ্গলবার ইরাকের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র সাইফ আল বদর বিষয়টি নিশ্চিত করে জানিয়েছেন, হতাহতের এই সংখ্যা চূড়ান্ত নয়।

কারবালায় আয়োজিত ওই মিছিলের একাংশের ওপর ফুটপাত ধসে পড়লে আতঙ্কিত হয়ে অন্যরা ছুটাছুটি শুরু করে। এতে পদদলিত হওয়ার ঘটনা ঘটে। চলতি বছর এই আয়োজনে অংশ নিতে কারবালায় প্রায় ত্রিশ লাখ মানুষ সমবেত হয়েছেন বলে দাবি আয়োজকদের।

কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা জানিয়েছে, গত কয়েক বছরের মধ্যে আশুরা পালনের সময় এটাই সবচেয়ে প্রাণঘাতী পদদলনের হওয়ার ঘটনা। তবে বিবিসির সূত্র মতে, ২০০৪ সালে আশুরা পালনকালে কারবালা এবং বাগদাদের মাজারগুলিতে একযোগে সিরিজ বোমা হামলায় ১৪০ জনেরও বেশি মানুষ নিহত হয়েছিল।

এদিকে, এদিন কালো পোশাকে আবৃত হয়ে লাখ লাখ শিয়া মতালম্বী কারবালায় ইমাম হোসেনের মাজার অভিমুখে রওনা দেয়। অনেকেই নিজেদের বুকে-পিঠে ধারালো ছুরি জাতীয় কিছু দিয়ে আঘাত করে ইমাম হোসেনের জন্য দুঃখ প্রকাশ করে। রাজধানী বাগদাদ ছাড়াও নাজাফ ও বসরা শহরেও একই ধরণের মিছিল অনুষ্ঠিত হয়।

সাবেক প্রেসিডেন্ট সাদ্দাম হোসেনের সুন্নি প্রভাবিত শাসনামলে আশুরার বেশিরভাগ মিছিলই নিষিদ্ধ করা হয়েছিল। তবে এখন দিনটিকে সরকারি ছুটি ঘোষণার পাশাপাশি কারবালা যুদ্ধের স্মরণে নানা আয়োজন করা হয়।

ইরাকের রাজধানী বাগদাদ থেকে প্রায় একশো কিলোমিটার দূরবর্তী কারবালা শহরে প্রতিবছর লাখ লাখ শিয়া মতালম্বী আশুরার মিছিলে যোগ দেয়। মহানবী হজরত মোহাম্মদ (সাঃ) এর নাতী ইমাম হোসেনের মৃত্যুবার্ষিকী পালনের অংশ হিসেবে ওই মিছিলের আয়োজন করা হয়। ৬৮০ খ্রিস্টাব্দে ইয়াজিদের বাহিনীর হাতে কারবালায় নিহত হন তিনি।

নিউজটি শেয়ার করুন





সর্বস্বত্ব © ২০১৯ মাতৃভূমির খবর কর্তৃক সংরক্ষিত

Design & Developed BY ThemesBazar