ঢাকা ০২:০০ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২০ অগাস্ট ২০২২, ৪ ভাদ্র ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
কুমিল্লায় প্রাইভেটকারের গ্যাস সিলিন্ডার ভিতরে ফেন্সিডিল বহনকালে আটক এক ঢাকার আশুলিয়ায় সাংবাদিক মাসুদ রানার উপর হামালাকারীদের দ্রুত গ্রেফতারের দাবীতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ। ঢাকার আশুলিয়াতে পুলিশকে মিথ্যা ও বিভ্রান্তকর তথ্য দিয়ে হয়রানি কমলগঞ্জ আদমপুরে, নববধূর আত্নহত্যা নাকি পরিকল্পিতো হত্যা। আজ কুমিল্লায় জাতীয় ভোক্তা অ‌ধিকার সংরক্ষণ অ‌ধিদপ্ত‌রের অভিযান দুমকিতে ঝড়ের আঘাতে স্কুল ঘর লন্ডভন্ড গজারিয়াবাসী ২০ বছরে ফুলদী নদীতে সেতু পায়নি মতলব উত্তরে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শাহাদাৎ বার্ষিকী ও ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস পালিত ১৫ আগস্টের ইতিহাস ভুলে গেলে জাতি ফের পথভ্রষ্ট হবে ——— প্রতিমন্ত্রী ড.শামসুল আলম “বাংলাদেশে ‘ফিফা বিশ্বকাপ ২০২২’ সম্প্রচারের স্বত্ব পেয়েছে টি স্পোর্টস” গ্লোবাল টেলিভিশনের আশুলিয়া প্রতিনিধি মাসুদ রানার উপর সন্ত্রাসী হামলা

কারবালায় তাজিয়া মিছিলে পদদলিত হয়ে ৩১ জনের মৃত্যু

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :  জাপানের টোকিওর কাছে হনশু দ্বীপে ঘণ্টায় ২১০ কিলোপবিত্র আশুরার দিনে ইরাকের কারবালা শহরে শিয়া মতালম্বীদের একটি মিছিলে পদদলিত হয়ে অন্তত ৩১ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও শতাধিক। মঙ্গলবার ইরাকের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র সাইফ আল বদর বিষয়টি নিশ্চিত করে জানিয়েছেন, হতাহতের এই সংখ্যা চূড়ান্ত নয়।

কারবালায় আয়োজিত ওই মিছিলের একাংশের ওপর ফুটপাত ধসে পড়লে আতঙ্কিত হয়ে অন্যরা ছুটাছুটি শুরু করে। এতে পদদলিত হওয়ার ঘটনা ঘটে। চলতি বছর এই আয়োজনে অংশ নিতে কারবালায় প্রায় ত্রিশ লাখ মানুষ সমবেত হয়েছেন বলে দাবি আয়োজকদের।

কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা জানিয়েছে, গত কয়েক বছরের মধ্যে আশুরা পালনের সময় এটাই সবচেয়ে প্রাণঘাতী পদদলনের হওয়ার ঘটনা। তবে বিবিসির সূত্র মতে, ২০০৪ সালে আশুরা পালনকালে কারবালা এবং বাগদাদের মাজারগুলিতে একযোগে সিরিজ বোমা হামলায় ১৪০ জনেরও বেশি মানুষ নিহত হয়েছিল।

এদিকে, এদিন কালো পোশাকে আবৃত হয়ে লাখ লাখ শিয়া মতালম্বী কারবালায় ইমাম হোসেনের মাজার অভিমুখে রওনা দেয়। অনেকেই নিজেদের বুকে-পিঠে ধারালো ছুরি জাতীয় কিছু দিয়ে আঘাত করে ইমাম হোসেনের জন্য দুঃখ প্রকাশ করে। রাজধানী বাগদাদ ছাড়াও নাজাফ ও বসরা শহরেও একই ধরণের মিছিল অনুষ্ঠিত হয়।

সাবেক প্রেসিডেন্ট সাদ্দাম হোসেনের সুন্নি প্রভাবিত শাসনামলে আশুরার বেশিরভাগ মিছিলই নিষিদ্ধ করা হয়েছিল। তবে এখন দিনটিকে সরকারি ছুটি ঘোষণার পাশাপাশি কারবালা যুদ্ধের স্মরণে নানা আয়োজন করা হয়।

ইরাকের রাজধানী বাগদাদ থেকে প্রায় একশো কিলোমিটার দূরবর্তী কারবালা শহরে প্রতিবছর লাখ লাখ শিয়া মতালম্বী আশুরার মিছিলে যোগ দেয়। মহানবী হজরত মোহাম্মদ (সাঃ) এর নাতী ইমাম হোসেনের মৃত্যুবার্ষিকী পালনের অংশ হিসেবে ওই মিছিলের আয়োজন করা হয়। ৬৮০ খ্রিস্টাব্দে ইয়াজিদের বাহিনীর হাতে কারবালায় নিহত হন তিনি।

Tag :
জনপ্রিয় সংবাদ

কুমিল্লায় প্রাইভেটকারের গ্যাস সিলিন্ডার ভিতরে ফেন্সিডিল বহনকালে আটক এক

কারবালায় তাজিয়া মিছিলে পদদলিত হয়ে ৩১ জনের মৃত্যু

আপডেট টাইম ১২:৩৭:২৫ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৯

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :  জাপানের টোকিওর কাছে হনশু দ্বীপে ঘণ্টায় ২১০ কিলোপবিত্র আশুরার দিনে ইরাকের কারবালা শহরে শিয়া মতালম্বীদের একটি মিছিলে পদদলিত হয়ে অন্তত ৩১ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও শতাধিক। মঙ্গলবার ইরাকের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র সাইফ আল বদর বিষয়টি নিশ্চিত করে জানিয়েছেন, হতাহতের এই সংখ্যা চূড়ান্ত নয়।

কারবালায় আয়োজিত ওই মিছিলের একাংশের ওপর ফুটপাত ধসে পড়লে আতঙ্কিত হয়ে অন্যরা ছুটাছুটি শুরু করে। এতে পদদলিত হওয়ার ঘটনা ঘটে। চলতি বছর এই আয়োজনে অংশ নিতে কারবালায় প্রায় ত্রিশ লাখ মানুষ সমবেত হয়েছেন বলে দাবি আয়োজকদের।

কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা জানিয়েছে, গত কয়েক বছরের মধ্যে আশুরা পালনের সময় এটাই সবচেয়ে প্রাণঘাতী পদদলনের হওয়ার ঘটনা। তবে বিবিসির সূত্র মতে, ২০০৪ সালে আশুরা পালনকালে কারবালা এবং বাগদাদের মাজারগুলিতে একযোগে সিরিজ বোমা হামলায় ১৪০ জনেরও বেশি মানুষ নিহত হয়েছিল।

এদিকে, এদিন কালো পোশাকে আবৃত হয়ে লাখ লাখ শিয়া মতালম্বী কারবালায় ইমাম হোসেনের মাজার অভিমুখে রওনা দেয়। অনেকেই নিজেদের বুকে-পিঠে ধারালো ছুরি জাতীয় কিছু দিয়ে আঘাত করে ইমাম হোসেনের জন্য দুঃখ প্রকাশ করে। রাজধানী বাগদাদ ছাড়াও নাজাফ ও বসরা শহরেও একই ধরণের মিছিল অনুষ্ঠিত হয়।

সাবেক প্রেসিডেন্ট সাদ্দাম হোসেনের সুন্নি প্রভাবিত শাসনামলে আশুরার বেশিরভাগ মিছিলই নিষিদ্ধ করা হয়েছিল। তবে এখন দিনটিকে সরকারি ছুটি ঘোষণার পাশাপাশি কারবালা যুদ্ধের স্মরণে নানা আয়োজন করা হয়।

ইরাকের রাজধানী বাগদাদ থেকে প্রায় একশো কিলোমিটার দূরবর্তী কারবালা শহরে প্রতিবছর লাখ লাখ শিয়া মতালম্বী আশুরার মিছিলে যোগ দেয়। মহানবী হজরত মোহাম্মদ (সাঃ) এর নাতী ইমাম হোসেনের মৃত্যুবার্ষিকী পালনের অংশ হিসেবে ওই মিছিলের আয়োজন করা হয়। ৬৮০ খ্রিস্টাব্দে ইয়াজিদের বাহিনীর হাতে কারবালায় নিহত হন তিনি।