শুক্রবার, ২৩ অক্টোবর ২০২০, ১১:০২ পূর্বাহ্ন

কর্ণফুলীতে বেসে উঠে গৃহবধূর লাশ

মুহাম্মদ তৈয়্যবুল ইসলাম,
নিজস্ব সংবাদদাতা, রাঙ্গুনিয়া।
১লা মে বিকাল চারটায়  রাঙ্গুনিয়া কর্ণফুলী নদীতে গৃহবধূর লাশ বেসে উঠলে রাউজান উপজেলার বাগোয়ান ইউনিয়নের খেলাঘাট হতে রাউজান থানা পুলিশ এই লাশ উদ্ধার করেন।

উদ্ধারকৃত লাশটি রাঙ্গুনিয়া পৌর এলাকার ২ নং ওয়ার্ডের দক্ষিণ নোয়াগাঁও এলাকার ফকিরখীল গ্রামের আনোয়ার মেম্বারের পুরাতন বাড়ির মো. নবীর হোসেনের পুত্র মো. আলমগীরের (৩০) স্ত্রী সাহেদ আক্তার শারমিন(২৩)।

স্থানীয় প্রত্যেক্ষদর্শীরা জানায়, ১ লা মে সকাল নয়টার দিকে রাউজান উপজেলার বাগোয়ান ইউনিয়নের উকিলপাড়া এলাকায় কর্ণফুলী নদীতে লাশটি ভাসতে দেখেন স্থানীয়রা।

পরে লাশটি ভাসতে ভাসতে পূর্বদিকে রাঙ্গুনিয়ার দিকে চলে যায়। পরে ভাটার সময় খেলারঘাটে লাশটি আটকে পড়ে। বিভিন্ন মাধ্যম হতে রাঙ্গুনিয়া ও রাউজান থানার পুলিশকে সংবাদ প্রেরণ করলে বিকাল সাড়ে চারটার দিকে চুয়েট ফাড়ির পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন।

এর পূর্বে তিনটার দিকে সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন গৃহবধূর স্বজনরা।
ঘটনাস্থলে উপস্থিত গৃহবধুর স্বামী মো. আলমগীর জানান, ছয়মাস পূর্বে রাঙ্গুনিয়ার ৩ নং স্বনির্ভর ইউনিয়নের ২ নং ওয়ার্ডের মৌ. মকবুল আহম্মেদের বাড়ির মো. শহীদুল্লাহর কন্যার সাথে তার বিয়ে হয়।
সে ঢাকার ধানমন্ডি ৬/এ আবাসিকে একটি ভবণে কেয়ারটেকারের কাজ করেন। গত ১৮ এপ্রিল তার স্ত্রীর বড় ভাই মো রাসেলের বিয়ে উপলক্ষে সে বাড়িতে এসেছিল। গত ২৯শে এপ্রিল সোমবার রাত ৮ টায় ডলফিন বাস যোগে সে ঢাকায় চলে যায়। গত মঙ্গলবার সে ফোনের মাধ্যমে জানতে সকাল আটটা হতে তার স্ত্রী নিখোঁজ। সংবাদ পেয়ে সে বাড়ি এসে তার শাশুড়সহ বৈদ্যের বাড়িতে গিয়ে হাজিরা দেখলে বৈদ্য বলেন তার স্ত্রী কারো সাথে পালিয়েছে।

আজ (১লা মে) দুপুরে কর্ণফুলী নদীতে একটি লাশ ভাসছে শুনে উপস্থিত হয়ে দেখা যায় এটা তার স্ত্রীর লাশ। এদিকে নিহতের চাচী হাসিনা বেগম ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে আহাজারি করেন এবং নিহতের ভাই ও চাচাসহ নিহতের স্বামী মো. আলমগীরকে দোষারোপ করে মারধর করেন।

এই বিষয়ে নিহতের বাবা শহীদুল্লাহর ও ভাই সজিব  জানান, মেয়ে নিখোঁজের সংবাদ পেয়ে বৈদ্যের বাড়িতে গিয়ে হাজিরা দেখেন। পরে রাঙ্গুনিয়া থানায় গিয়ে একটি নিখোঁজের ডায়েরি করা হয়। তার মেয়ে ও স্বামীর সাথে কোন মতানৈক্য ছিল না। আমরা ঘটনা বিস্তারিত না জেনে কাউকে দোষারোপ করতে পারব না। বিকাল পাঁচটার দিকে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হল রাঙ্গুনিয়ার সার্কেল এএসপি আবুল কালাম আজাদ ও রাউজান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কেপায়েত উল্লাহ।

নিউজটি শেয়ার করুন





সর্বস্বত্ব © ২০১৯ মাতৃভূমির খবর কর্তৃক সংরক্ষিত

Design & Developed BY ThemesBazar