ঢাকা ০১:৪৩ অপরাহ্ন, বুধবার, ০৫ অক্টোবর ২০২২, ২০ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
মাধবপুরে চা বাগানের শিশুদের শতভাগ ভর্তি নিশ্চিত ও জন্ম নিবন্ধনে উদ্বুদ্ধকরণ বিষয়ক বিশেষ সভা অনুষ্ঠিত শারদীয় দুর্গোৎসব উপলক্ষে হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের- আজাহার আলী মৃধার শুভেচ্ছা গজারিয়ায় ফরাজীকান্দি তৈয়ব আলী আত তাইয়্যাবিয়া মাদ্রাসা সোনারগাঁ উপজেলা আওয়ামী সেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি করতোয়া নদীতে ঐতিহ্যবাহী নৌকা বাইচ ফাইনাল খেলা ও পুরুস্কার বিতরনী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত লালমনিরহাটে পূজা মন্ডপ পরিদর্শন করলেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান জি এম কাদের,এমপি চন্দনাইশে হাশিমপুর ভাই খলিফাপাড়া সড়কের বেহাল-দশা সাতকানিয়ায় সাপের কামড়ে শিক্ষার্থীর মৃত্যু বাউফলে সেই অজ্ঞাত নারীর পরিচয় মিলেছে পটুয়াখালীতে ৮৬.২ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড

এবার রোশানের নতুন ঈদ

সময় যত ঘনিয়ে আসছে, ঈদের ছবির হিসাব-নিকাশ ততই পাল্টে যাচ্ছে। কদিন আগে জাজ মাল্টিমিডিয়ার পক্ষ থেকে জানানো হয়, ‘দহন’ ছবিটি ঈদে মুক্তি দেওয়া হবে। গতকাল মঙ্গলবার প্রতিষ্ঠানটি সিদ্ধান্ত নিয়েছে, এবার ঈদে ‘দহন’ নয়, মুক্তি পাবে ‘বেপরোয়া’। এই ছবির প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেছেন এ প্রজন্মের আলোচিত নায়ক রোশান।

ওয়াজেদ আলী সুমন পরিচালিত ‘রক্ত’ সিনেমা দিয়ে ঢালিউডে অভিষেক ঘটে রোশানের। ছবিতে সহশিল্পী ছিলেন এ সময়ের আরেক আলোচিত নায়িকা পরীমনি। ‘রক্ত’ ছবিটি ছিল নায়িকানির্ভর। এবারই প্রথম নিজের মনের মতো একটি ছবি হতে যাচ্ছে রোশানের। ‘রক্ত’ দিয়ে অভিষেক হলেও রোশান ‘ধ্যাত্‌তেরিকি’ ও ‘ককপিট’ নামের আরও দুটি ছবিতে অভিনয় করেন। শারীরিক গঠন, সুদর্শন আর নাচে পারদর্শী হওয়ার কারণে শুরু থেকেই রোশানকে নিয়ে ঢালিউডে আলোচনা ছিল।

ঈদের মতো বড় উৎসবে তরুণ এই নায়কের ছবি মুক্তি পেতে যাচ্ছে, তাতে ভীষণ খুশি রোশান। প্রথম আলোকে তিনি বলেন, ‘ঈদে “বেপরোয়া” মুক্তির ঘোষণার মধ্য দিয়ে অনেক দিনের অপেক্ষার অবসান হলো। ধৈর্য ধরেছিলাম, অপেক্ষার প্রহর গুনছিলাম। মনে বিশ্বাস ছিল, একটা বড় বাজেটের আর ভালো নির্মাতার চমৎকার নির্মাণের একটা ছবি আমার অভিনয়জীবনে যোগ হবে। এটি তেমনই একটি ছবি।’

‘বেপরোয়া’ ইউনিটের সঙ্গে কাজ করে সন্তুষ্ট রোশান। বললেন, ‘নিজে যেমন সন্তুষ্ট হয়েছি, তেমনি কাজ দিয়ে পুরো ইউনিটকে সন্তুষ্ট করতে পেরেছি। পরিচালকও খুশি। তাই “বেপরোয়া” নিয়ে আত্মবিশ্বাস একটু বেশি। আমি তো বলব, একজন নায়কের জীবনের শুরুতে যে ধরনের ছবির দরকার, তার অন্যতম উদাহরণ “বেপরোয়া”। যদিও তা পেতে আমাকে দুই বছর অপেক্ষা করতে হয়েছে।’

‘বেপরোয়া’ ছবির নায়ক রোশানের অভিনয়জীবন মাত্র দুই বছর। অন্যদিকে এবার ঈদে মুক্তি পাচ্ছে বাংলাদেশের চলচ্চিত্রের শীর্ষ নায়ক শাকিব খানের ছবি। আর শাকিব খানের ছবি যখন বাংলাদেশের প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পায়, তখন অন্য নায়কের ছবির নির্মাতাদের একটু চাপের মধ্যে থাকতে হয়। এ ব্যাপারে রোশান বললেন, ‘শাকিব খানের সঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বিতার কোনো প্রশ্নই আসে না। আমাদের চলচ্চিত্রের সবচেয়ে বড় বিজ্ঞাপন তিনি। তাঁর তুলনা তিনি নিজেই, তাঁর প্রতিদ্বন্দ্বীও তিনি। আমি শাকিব ভাইয়ের সহকর্মী হতে পারছি, এটাই আনন্দের। তাঁর দেখানো পথে হাঁটতে চাই। তাঁকে অনেক ভালোবাসি। বড় ভাইয়ের ছোট ভাই হয়ে এবারের ঈদে আসব—এটাই আমার জন্য আনন্দের। এবার ঈদ হবে আমার জন্য খুব বিশেষ। একবারে নতুন ঈদ।’

ঈদের সময় বাংলাদেশের প্রেক্ষাগৃহে দর্শকের ভিড় অন্য সময়ের চেয়ে থাকে বেশি। আর তাই তো ঈদের মতো বড় উৎসবে নিজের একটা ছবির থাকবে, সেই প্রত্যাশা ছিল রোশানের। সেটা তিনি পেয়েছেন। ছবিটি দর্শকপ্রিয় হবে, এমনই আশা করছেন তিনি। বললেন, ‘শাকিব ভাইয়ের ছবি তো মানুষ এমনিতেই ভালোবাসে। তাই তাঁর ছবি দেখতে প্রেক্ষাগৃহে ভিড় থাকে বেশি। তবে তার সঙ্গে ভালো নির্মাণ আর আয়োজনের জন্য বিনোদনের মাধ্যম হিসেবে এগিয়ে থাকবে “বেপরোয়া”, আমি এটা বিশ্বাস করি।’

‘বেপরোয়া’ ছবিতে রোশানকে ইতিবাচক ও নেতিবাচক—দুই চরিত্রেই দেখা যাবে। বললেন, ‘এই ছবির ট্যাগ লাইন হচ্ছে ফ্যামিলি ফার্স্ট। তার মানে, ছবিতে শুরুতে দেখা যাবে, ছেলেটা তার পরিবারের প্রতি সবচেয়ে আন্তরিক। একসময় নম্র-ভদ্র এই ছেলে বেপরোয়া হয়ে যায়। বাকিটা সবাইকে ছবিঘরে গিয়ে দেখার অনুরোধ করব।’

অ্যাকশন-রোমান্স ঘরানার ‘বেপরোয়া’ ছবির পরিচালক কলকাতার রাজা চন্দ। এর আগে তিনি বাংলাদেশ-ভারত যৌথ প্রযোজনায় ‘ব্ল্যাক’ ছবিটি পরিচালনা করেন। এটি তাঁর পরিচালনায় নির্মিত প্রথম বাংলাদেশি চলচ্চিত্র। এই পরিচালক জানান, এটি তাঁর স্বপ্ন ছিল। কলকাতার টালিউডের ‘চ্যালেঞ্জ ২’, ‘রংবাজ’, ‘বেশ করেছি প্রেম করেছি’ ছবিগুলোর এই নির্মাতা বলেন, ‘আমার আদি বাড়ি বরিশাল। তাই বাংলাদেশের প্রতি দুর্বলতা আমার সব সময়। স্বপ্ন ছিল, বাংলাদেশের ছবিতে কাজ করব। এবার সেই স্বপ্ন পূরণ হয়েছে।’

গত বছর ৫ অক্টোবর ঢাকার এফডিসিতে ‘বেপরোয়া’ ছবির শুটিং শুরু হয়। রোশান ছাড়া এই ছবিতে আরও অভিনয় করেছেন ববি, কাজী হায়াৎ, তারিক আনাম খান, নিমা রহমান, শহিদুল আলম সাচ্চু, সাদেক বাচ্চু, রেবেকা, নানা শাহ, শিবা সানু প্রমুখ।

Tag :
আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

মাধবপুরে চা বাগানের শিশুদের শতভাগ ভর্তি নিশ্চিত ও জন্ম নিবন্ধনে উদ্বুদ্ধকরণ বিষয়ক বিশেষ সভা অনুষ্ঠিত

এবার রোশানের নতুন ঈদ

আপডেট টাইম ১২:৩৮:৩১ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৬ জুলাই ২০১৮

সময় যত ঘনিয়ে আসছে, ঈদের ছবির হিসাব-নিকাশ ততই পাল্টে যাচ্ছে। কদিন আগে জাজ মাল্টিমিডিয়ার পক্ষ থেকে জানানো হয়, ‘দহন’ ছবিটি ঈদে মুক্তি দেওয়া হবে। গতকাল মঙ্গলবার প্রতিষ্ঠানটি সিদ্ধান্ত নিয়েছে, এবার ঈদে ‘দহন’ নয়, মুক্তি পাবে ‘বেপরোয়া’। এই ছবির প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেছেন এ প্রজন্মের আলোচিত নায়ক রোশান।

ওয়াজেদ আলী সুমন পরিচালিত ‘রক্ত’ সিনেমা দিয়ে ঢালিউডে অভিষেক ঘটে রোশানের। ছবিতে সহশিল্পী ছিলেন এ সময়ের আরেক আলোচিত নায়িকা পরীমনি। ‘রক্ত’ ছবিটি ছিল নায়িকানির্ভর। এবারই প্রথম নিজের মনের মতো একটি ছবি হতে যাচ্ছে রোশানের। ‘রক্ত’ দিয়ে অভিষেক হলেও রোশান ‘ধ্যাত্‌তেরিকি’ ও ‘ককপিট’ নামের আরও দুটি ছবিতে অভিনয় করেন। শারীরিক গঠন, সুদর্শন আর নাচে পারদর্শী হওয়ার কারণে শুরু থেকেই রোশানকে নিয়ে ঢালিউডে আলোচনা ছিল।

ঈদের মতো বড় উৎসবে তরুণ এই নায়কের ছবি মুক্তি পেতে যাচ্ছে, তাতে ভীষণ খুশি রোশান। প্রথম আলোকে তিনি বলেন, ‘ঈদে “বেপরোয়া” মুক্তির ঘোষণার মধ্য দিয়ে অনেক দিনের অপেক্ষার অবসান হলো। ধৈর্য ধরেছিলাম, অপেক্ষার প্রহর গুনছিলাম। মনে বিশ্বাস ছিল, একটা বড় বাজেটের আর ভালো নির্মাতার চমৎকার নির্মাণের একটা ছবি আমার অভিনয়জীবনে যোগ হবে। এটি তেমনই একটি ছবি।’

‘বেপরোয়া’ ইউনিটের সঙ্গে কাজ করে সন্তুষ্ট রোশান। বললেন, ‘নিজে যেমন সন্তুষ্ট হয়েছি, তেমনি কাজ দিয়ে পুরো ইউনিটকে সন্তুষ্ট করতে পেরেছি। পরিচালকও খুশি। তাই “বেপরোয়া” নিয়ে আত্মবিশ্বাস একটু বেশি। আমি তো বলব, একজন নায়কের জীবনের শুরুতে যে ধরনের ছবির দরকার, তার অন্যতম উদাহরণ “বেপরোয়া”। যদিও তা পেতে আমাকে দুই বছর অপেক্ষা করতে হয়েছে।’

‘বেপরোয়া’ ছবির নায়ক রোশানের অভিনয়জীবন মাত্র দুই বছর। অন্যদিকে এবার ঈদে মুক্তি পাচ্ছে বাংলাদেশের চলচ্চিত্রের শীর্ষ নায়ক শাকিব খানের ছবি। আর শাকিব খানের ছবি যখন বাংলাদেশের প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পায়, তখন অন্য নায়কের ছবির নির্মাতাদের একটু চাপের মধ্যে থাকতে হয়। এ ব্যাপারে রোশান বললেন, ‘শাকিব খানের সঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বিতার কোনো প্রশ্নই আসে না। আমাদের চলচ্চিত্রের সবচেয়ে বড় বিজ্ঞাপন তিনি। তাঁর তুলনা তিনি নিজেই, তাঁর প্রতিদ্বন্দ্বীও তিনি। আমি শাকিব ভাইয়ের সহকর্মী হতে পারছি, এটাই আনন্দের। তাঁর দেখানো পথে হাঁটতে চাই। তাঁকে অনেক ভালোবাসি। বড় ভাইয়ের ছোট ভাই হয়ে এবারের ঈদে আসব—এটাই আমার জন্য আনন্দের। এবার ঈদ হবে আমার জন্য খুব বিশেষ। একবারে নতুন ঈদ।’

ঈদের সময় বাংলাদেশের প্রেক্ষাগৃহে দর্শকের ভিড় অন্য সময়ের চেয়ে থাকে বেশি। আর তাই তো ঈদের মতো বড় উৎসবে নিজের একটা ছবির থাকবে, সেই প্রত্যাশা ছিল রোশানের। সেটা তিনি পেয়েছেন। ছবিটি দর্শকপ্রিয় হবে, এমনই আশা করছেন তিনি। বললেন, ‘শাকিব ভাইয়ের ছবি তো মানুষ এমনিতেই ভালোবাসে। তাই তাঁর ছবি দেখতে প্রেক্ষাগৃহে ভিড় থাকে বেশি। তবে তার সঙ্গে ভালো নির্মাণ আর আয়োজনের জন্য বিনোদনের মাধ্যম হিসেবে এগিয়ে থাকবে “বেপরোয়া”, আমি এটা বিশ্বাস করি।’

‘বেপরোয়া’ ছবিতে রোশানকে ইতিবাচক ও নেতিবাচক—দুই চরিত্রেই দেখা যাবে। বললেন, ‘এই ছবির ট্যাগ লাইন হচ্ছে ফ্যামিলি ফার্স্ট। তার মানে, ছবিতে শুরুতে দেখা যাবে, ছেলেটা তার পরিবারের প্রতি সবচেয়ে আন্তরিক। একসময় নম্র-ভদ্র এই ছেলে বেপরোয়া হয়ে যায়। বাকিটা সবাইকে ছবিঘরে গিয়ে দেখার অনুরোধ করব।’

অ্যাকশন-রোমান্স ঘরানার ‘বেপরোয়া’ ছবির পরিচালক কলকাতার রাজা চন্দ। এর আগে তিনি বাংলাদেশ-ভারত যৌথ প্রযোজনায় ‘ব্ল্যাক’ ছবিটি পরিচালনা করেন। এটি তাঁর পরিচালনায় নির্মিত প্রথম বাংলাদেশি চলচ্চিত্র। এই পরিচালক জানান, এটি তাঁর স্বপ্ন ছিল। কলকাতার টালিউডের ‘চ্যালেঞ্জ ২’, ‘রংবাজ’, ‘বেশ করেছি প্রেম করেছি’ ছবিগুলোর এই নির্মাতা বলেন, ‘আমার আদি বাড়ি বরিশাল। তাই বাংলাদেশের প্রতি দুর্বলতা আমার সব সময়। স্বপ্ন ছিল, বাংলাদেশের ছবিতে কাজ করব। এবার সেই স্বপ্ন পূরণ হয়েছে।’

গত বছর ৫ অক্টোবর ঢাকার এফডিসিতে ‘বেপরোয়া’ ছবির শুটিং শুরু হয়। রোশান ছাড়া এই ছবিতে আরও অভিনয় করেছেন ববি, কাজী হায়াৎ, তারিক আনাম খান, নিমা রহমান, শহিদুল আলম সাচ্চু, সাদেক বাচ্চু, রেবেকা, নানা শাহ, শিবা সানু প্রমুখ।