ঢাকা ০৪:১৯ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৭ জানুয়ারী ২০২৩, ১৪ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
মসজিদে নামাজের মধ্যদিয়ে মুসল্লিদের মাঝে হৃদ্যতা বাড়ে : আলহাজ্ব আ জ ম নাছির উদ্দিন শখ থেকে উদ্যোক্তা, কোয়েল পাখির ডিম বিক্রি করে মাসে আয় আড়াই লাখ। নড়াইল-২ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য মুফতি শহিদুল ইসলামের ইন্তেকাল বাউফলে সরকারি চাল বাজারজাত করার সময় বাবা-ছেলে আটক। থানায় আগত সেবা প্রত্যাশীদের যথাযথ আইনি সহায়তা প্রদান করুন: আইজিপি জননেত্রী শেখ হাসিনার আমলে বাংলাদেশের মানুষ শান্তিতে বসবাস করতে পারেঃ” আব্দুস সালাম মূর্শেদী এমপি” কলাপাড়ার মহিপুরে ৫০ মণ জাটকাসহ ট্রলার জব্দ। সমাজের কল্যাণে ইমামদের কাজ করার আহ্বান স্থানীয় সরকার মন্ত্রীর৷ গজারিয়ায় গাজা সহ দুই মাদক ব্যবসায়ী আটক শিক্ষায় বিনিয়োগ সর্বশ্রেষ্ঠ বিনিয়োগ: মেয়র স্মার্ট বাংলাদেশ গড়তে শিক্ষায় বিনিয়োগের মাধ্যমে সবচেয়ে ভালো ফলাফল পাওয়া সম্ভব বলে মন্তব্য করেছেন

ইভিএমে ভোট দিবে সোয়া ২১ লাখ ভোটার

মাতৃভূমির খবর ডেস্ক :  আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ৬টি সংসদীয় আসনে ইলেকট্রোনিক ভোটিং মেশিনের মাধ্যমে (ইভিএম) ভোটগ্রহণ করা হবে। এসব অাসনে ২১ লাখ ২৪ হাজার ৪১১ জন ভোটার প্রথমবারের মতো সংসদ নির্বাচনে ইভিএমে ভোট দেবেন। ৬টি আসনের ৮০০টি কেন্দ্রের ৪ হাজার ২৬৭টি ভোট কক্ষে ইভিএম থাকবে।

ইসির কর্মকর্তারা জানান, প্রতিটি কক্ষে একটি করে ইভিএম থাকবে। কোনো ধরনের ত্রুটি দেখা গেলে ‘স্ট্যান্ডবাই’ থাকবে তিনটি করে ইভিএম। সাধারণত প্রতিটি কেন্দ্রে গড়ে ৫টি ভোটকক্ষ থাকে, আর প্রতিটি ভোট কক্ষে গড়ে ৪০০ থেকে ৫০০ জন ভোটারের জন্য একটি ইভিএম ব্যবহার করা হবে। সে হিসাবে ৬টি আসনে সাড়ে চার হাজার ইভিএম লাগবে। তবে ইভিএমে কোনো ক্রটি দেখা দিলে তা মোকাবিলায় বিকল্প হিসাবে চাহিদার দ্বিগুণ পরিমাণ ইভিএম প্রস্তুত রাখা হবে।

যে ৬ আসনে ইভিএম ব্যবহার হবে তা হলো- ঢাকা-৬, ঢাকা-১৩, চট্টগ্রাম-৯, রংপুর-৩, খুলনা-২ এবং সাতক্ষীরা-২। এই ৬টি আসনের ৩টিতে বর্তমানে আওয়ামী লীগ ও বাকি ৩টিতে জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্য রয়েছেন। ভোটের অন্তত ২৫ দিন আগে এসব কেন্দ্রের তালিকা গেজেট আকারে প্রকাশ করা হবে।

এর আগে সোমবার বিকালে ইসির সম্মেলন কক্ষ দৈবচয়নের মাধ্যমে সারাদেশের ৪৮টি আসন থেকে ৬টি আসন চূড়ান্ত করা হয়। এর মধ্যে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন ৭টি আসন থেকে ১টি, ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ৭টি আসন থেকে ১টি, চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন থেকে ১টি, বাকি ১০ সিটি করপোরেশন থেকে ২টি এবং ২১টি জেলা সদর থেকে ১টি আসন দৈবচয়নের মাধ্যমে ইভিএম ব্যবহার করার জন্য বেছে নেওয়া হয়।

ইসি সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ বলেন, ‘আগামী ৩০ নভেম্বরের মধ্যে চাহিদা অনুযায়ী ইভিএম পেয়ে যাব। সেনাবাহিনীর টেকনিক্যাল কোরের সদস্যরা এবং নির্বাচন কমিশনের দক্ষ লোকজন ইভিএম পরিচালনা করবেন।’

ইসি সূত্রে জানা যায়, ইভিএম এলাকার ৬টি সংসদীয় আসনে এবার ৮০০ কেন্দ্রের বিপরীতে ৪ হাজার ২৬৭ ভোটকক্ষ রয়েছে। এর মধ্যে ঢাকা-৬ আসনে মোট ভোটার ২ লাখ ৬৯ হাজার ২৭৬ জন, ভোটকেন্দ্রের সংখ্যা ৯৮ টি, ভোটকক্ষ ৫৩৩টি।

ঢাকা-১৩ আসনে মোট ভোটার ৩ লাখ ৭২ হাজার ৭৬৯ জন, ভোটকেন্দ্র ১৩৪ টি, ভোটকক্ষ ৭০১ টি। চট্টগ্রাম-৯ আসনে ভোটার সংখ্যা ৩ লাখ ৯০ হাজার ৩৬৩ জন, ভোটকেন্দ্র ১৪৪, ভোটকক্ষ ৭৪৩টি।

এছাড়া রংপুর-৩ আসনে মোট ভোটার ৪ লাখ ৪১ হাজার ৬৭৩ জন, ভোটকেন্দ্র ১৩০টি, ভোটকক্ষ ৯১০টি। খুলনা-২ আসনে ভোটার সংখ্যা ২ লাখ ৯৪ হাজার ৬২ জন, ভোটকেন্দ্র ১৫৭টি, ভোটকক্ষ ৬৮২টি। সাতক্ষীরা-২ আসনে মোট ভোটার ৩ লাখ ৫৬ হাজার ২৬৮ জন। ভোটকেন্দ্র ১৩৭টি ভোটকক্ষ ৬৯৮টি।

৮ নভেম্বর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হয়। পুনর্নির্ধারিত তফসিল অনুযায়ী, মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ দিন ২৮ নভেম্বর; মনোনয়নপত্র বাছাইয়ের দিন ২ ডিসেম্বর, প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ দিন ৯ ডিসেম্বর ও ভোটের দিন ৩০ ডিসেম্বর।

Tag :
জনপ্রিয় সংবাদ

মসজিদে নামাজের মধ্যদিয়ে মুসল্লিদের মাঝে হৃদ্যতা বাড়ে : আলহাজ্ব আ জ ম নাছির উদ্দিন

ইভিএমে ভোট দিবে সোয়া ২১ লাখ ভোটার

আপডেট টাইম ০৭:০৫:০৭ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৭ নভেম্বর ২০১৮

মাতৃভূমির খবর ডেস্ক :  আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ৬টি সংসদীয় আসনে ইলেকট্রোনিক ভোটিং মেশিনের মাধ্যমে (ইভিএম) ভোটগ্রহণ করা হবে। এসব অাসনে ২১ লাখ ২৪ হাজার ৪১১ জন ভোটার প্রথমবারের মতো সংসদ নির্বাচনে ইভিএমে ভোট দেবেন। ৬টি আসনের ৮০০টি কেন্দ্রের ৪ হাজার ২৬৭টি ভোট কক্ষে ইভিএম থাকবে।

ইসির কর্মকর্তারা জানান, প্রতিটি কক্ষে একটি করে ইভিএম থাকবে। কোনো ধরনের ত্রুটি দেখা গেলে ‘স্ট্যান্ডবাই’ থাকবে তিনটি করে ইভিএম। সাধারণত প্রতিটি কেন্দ্রে গড়ে ৫টি ভোটকক্ষ থাকে, আর প্রতিটি ভোট কক্ষে গড়ে ৪০০ থেকে ৫০০ জন ভোটারের জন্য একটি ইভিএম ব্যবহার করা হবে। সে হিসাবে ৬টি আসনে সাড়ে চার হাজার ইভিএম লাগবে। তবে ইভিএমে কোনো ক্রটি দেখা দিলে তা মোকাবিলায় বিকল্প হিসাবে চাহিদার দ্বিগুণ পরিমাণ ইভিএম প্রস্তুত রাখা হবে।

যে ৬ আসনে ইভিএম ব্যবহার হবে তা হলো- ঢাকা-৬, ঢাকা-১৩, চট্টগ্রাম-৯, রংপুর-৩, খুলনা-২ এবং সাতক্ষীরা-২। এই ৬টি আসনের ৩টিতে বর্তমানে আওয়ামী লীগ ও বাকি ৩টিতে জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্য রয়েছেন। ভোটের অন্তত ২৫ দিন আগে এসব কেন্দ্রের তালিকা গেজেট আকারে প্রকাশ করা হবে।

এর আগে সোমবার বিকালে ইসির সম্মেলন কক্ষ দৈবচয়নের মাধ্যমে সারাদেশের ৪৮টি আসন থেকে ৬টি আসন চূড়ান্ত করা হয়। এর মধ্যে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন ৭টি আসন থেকে ১টি, ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ৭টি আসন থেকে ১টি, চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন থেকে ১টি, বাকি ১০ সিটি করপোরেশন থেকে ২টি এবং ২১টি জেলা সদর থেকে ১টি আসন দৈবচয়নের মাধ্যমে ইভিএম ব্যবহার করার জন্য বেছে নেওয়া হয়।

ইসি সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ বলেন, ‘আগামী ৩০ নভেম্বরের মধ্যে চাহিদা অনুযায়ী ইভিএম পেয়ে যাব। সেনাবাহিনীর টেকনিক্যাল কোরের সদস্যরা এবং নির্বাচন কমিশনের দক্ষ লোকজন ইভিএম পরিচালনা করবেন।’

ইসি সূত্রে জানা যায়, ইভিএম এলাকার ৬টি সংসদীয় আসনে এবার ৮০০ কেন্দ্রের বিপরীতে ৪ হাজার ২৬৭ ভোটকক্ষ রয়েছে। এর মধ্যে ঢাকা-৬ আসনে মোট ভোটার ২ লাখ ৬৯ হাজার ২৭৬ জন, ভোটকেন্দ্রের সংখ্যা ৯৮ টি, ভোটকক্ষ ৫৩৩টি।

ঢাকা-১৩ আসনে মোট ভোটার ৩ লাখ ৭২ হাজার ৭৬৯ জন, ভোটকেন্দ্র ১৩৪ টি, ভোটকক্ষ ৭০১ টি। চট্টগ্রাম-৯ আসনে ভোটার সংখ্যা ৩ লাখ ৯০ হাজার ৩৬৩ জন, ভোটকেন্দ্র ১৪৪, ভোটকক্ষ ৭৪৩টি।

এছাড়া রংপুর-৩ আসনে মোট ভোটার ৪ লাখ ৪১ হাজার ৬৭৩ জন, ভোটকেন্দ্র ১৩০টি, ভোটকক্ষ ৯১০টি। খুলনা-২ আসনে ভোটার সংখ্যা ২ লাখ ৯৪ হাজার ৬২ জন, ভোটকেন্দ্র ১৫৭টি, ভোটকক্ষ ৬৮২টি। সাতক্ষীরা-২ আসনে মোট ভোটার ৩ লাখ ৫৬ হাজার ২৬৮ জন। ভোটকেন্দ্র ১৩৭টি ভোটকক্ষ ৬৯৮টি।

৮ নভেম্বর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হয়। পুনর্নির্ধারিত তফসিল অনুযায়ী, মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ দিন ২৮ নভেম্বর; মনোনয়নপত্র বাছাইয়ের দিন ২ ডিসেম্বর, প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ দিন ৯ ডিসেম্বর ও ভোটের দিন ৩০ ডিসেম্বর।