ঢাকা ০৬:২৩ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৭ জানুয়ারী ২০২৩, ১৪ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
সারা দেশব্যাপী কেন্দ্রীয় ফারিয়ার ৭ম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালনে কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন রেকর্ড গড়ল শাহরুখের ‘পাঠান’ বিদেশেও অপ্রতিরোধ্য সীমান্তে হত্যা এবং মাদকদ্রব্যসহ সকল চোরাচালান বন্ধের দাবিতে সমাবেশ ও কাঁটাতার মিছিল মসজিদে নামাজের মধ্যদিয়ে মুসল্লিদের মাঝে হৃদ্যতা বাড়ে : আলহাজ্ব আ জ ম নাছির উদ্দিন শখ থেকে উদ্যোক্তা, কোয়েল পাখির ডিম বিক্রি করে মাসে আয় আড়াই লাখ। নড়াইল-২ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য মুফতি শহিদুল ইসলামের ইন্তেকাল বাউফলে সরকারি চাল বাজারজাত করার সময় বাবা-ছেলে আটক। থানায় আগত সেবা প্রত্যাশীদের যথাযথ আইনি সহায়তা প্রদান করুন: আইজিপি জননেত্রী শেখ হাসিনার আমলে বাংলাদেশের মানুষ শান্তিতে বসবাস করতে পারেঃ” আব্দুস সালাম মূর্শেদী এমপি” কলাপাড়ার মহিপুরে ৫০ মণ জাটকাসহ ট্রলার জব্দ।

আটায় সুসময় থাকছে না

দীর্ঘ সময় ধরে বাজারে সস্তা পণ্যের কাতারে থাকা আটার দাম এবার বাড়ছে। পাইকারি বাজারে প্রতি বস্তা (৫০ কেজি) খোলা আটার দাম ১২০ টাকার মতো বেড়েছে। যার প্রভাবে খুচরা বাজারে পণ্যটির প্রতি কেজির দাম দুই থেকে তিন টাকা বেড়েছে বলে জানিয়েছেন ব্যবসায়ীরা। প্যাকেটজাত আটার দাম এখনো বাড়েনি। তবে অন্তত একটি কোম্পানি আগামী সপ্তাহে নতুন দামে আটা বাজারে ছাড়বে বলে জানা গেছে।

বিশ্ববাজারে ২০১৬ সাল থেকে গমের দাম বেশ কম। এর সঙ্গে মিলিয়ে দেশেও সস্তায় আটা কিনতে পেরেছে সাধারণ মানুষ। তবে কয়েক মাস ধরে বিশ্ববাজারে গমের দাম বাড়ছে। আন্তর্জাতিক সংবাদ সংস্থাগুলো গমের বাজার নিয়ে নেতিবাচক পূর্বাভাস দিচ্ছে।

দেশীয় ব্যবসায়ীরা বলছেন, আগামী দিনগুলোয় বিশ্ববাজারে গমের দাম আরও কিছুটা বাড়ার আশঙ্কা রয়েছে। যার প্রভাব দেশের বাজারেও পড়বে। অবশ্য দেশে দাম অসহনীয় হারে বাড়ার আশঙ্কা নেই। কারণ, চালের দাম কমে গেছে এবং গমের সরবরাহে কোনো সংকট নেই।

রাজধানীর কারওয়ান বাজারের খুচরা দোকানে গতকাল বৃহস্পতিবার খোলা আটা প্রতি কেজি ২৮ টাকা দরে বিক্রি করতে দেখা যায়। অন্যদিকে বিক্রেতারা প্যাকেটজাত আটা ৩০-৩২ টাকা দরে বিক্রি করছিলেন। সরকারি সংস্থা ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশের (টিসিবি) হিসাবে এক মাসে খোলা আটার দাম ২ টাকা ও প্যাকেটজাত আটার দাম ১ টাকা বেড়েছে।

একই বাজারে একটি বড় কোম্পানির বিক্রয় প্রতিনিধি জানান, তাঁরা আগামী সপ্তাহে এক কেজির প্যাকেটে দেড় টাকা ও দুই কেজির প্যাকেটের দর দুই টাকা বাড়িয়ে আটা বাজারে ছাড়বেন। কোম্পানির বিপণন বিভাগ থেকে এ-সংক্রান্ত চিঠি এসেছে।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স গত ২২ আগস্ট বৈশ্বিক গমের বাজার নিয়ে এক প্রতিবেদনে জানায়, আর্জেন্টিনা, অস্ট্রেলিয়া, কানাডা, ইউরোপীয় ইউনিয়ন, কাজাখস্তান, রাশিয়া, ইউক্রেন ও যুক্তরাষ্ট্রে খরার কারণে গমের আবাদ ভালো হয়নি। ২০১৮-১৯ অর্থবছরের শুরুতে বিশ্বব্যাপী গমের মজুত ছিল ২৭ কোটি ৩০ লাখ টন, যা বেশ ভালো। কিন্তু সমস্যা হলো এ মজুতের অর্ধেকের বেশি আছে চীনের হাতে, যা বিশ্ববাজারে আসার কোনো সম্ভাবনা নেই।

জানতে চাইলে দেশীয় একটি বড় আমদানিকারক প্রতিষ্ঠানের একজন কর্মকর্তা প্রথম আলোকে বলেন, দেশে এক মাসের মধ্যে মিল পর্যায়ে আটার দাম ৫০ কেজির বস্তায় ১৪০ টাকা পর্যন্ত বেড়েছিল। পরে বিশ্ববাজারে দাম কিছুটা কমায় তা আবার ৩০ টাকার মতো কমে যায়। অবশ্য বিশ্ববাজারে কয়েক দিন ধরে দাম বাড়ছে।

এ খাতের শীর্ষস্থানীয় প্রতিষ্ঠান সিটি গ্রুপের মহাব্যবস্থাপক (হিসাব ও অর্থ) বিশ্বজিৎ সাহা প্রথম আলোকে বলেন, ‘বিশ্ববাজারে গমের দাম বেশ বেড়েছে। তবে আমরা এখন দামে পরিবর্তন আনছি না।’

Tag :
আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

সারা দেশব্যাপী কেন্দ্রীয় ফারিয়ার ৭ম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালনে কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন

আটায় সুসময় থাকছে না

আপডেট টাইম ০৯:২৩:১৮ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮

দীর্ঘ সময় ধরে বাজারে সস্তা পণ্যের কাতারে থাকা আটার দাম এবার বাড়ছে। পাইকারি বাজারে প্রতি বস্তা (৫০ কেজি) খোলা আটার দাম ১২০ টাকার মতো বেড়েছে। যার প্রভাবে খুচরা বাজারে পণ্যটির প্রতি কেজির দাম দুই থেকে তিন টাকা বেড়েছে বলে জানিয়েছেন ব্যবসায়ীরা। প্যাকেটজাত আটার দাম এখনো বাড়েনি। তবে অন্তত একটি কোম্পানি আগামী সপ্তাহে নতুন দামে আটা বাজারে ছাড়বে বলে জানা গেছে।

বিশ্ববাজারে ২০১৬ সাল থেকে গমের দাম বেশ কম। এর সঙ্গে মিলিয়ে দেশেও সস্তায় আটা কিনতে পেরেছে সাধারণ মানুষ। তবে কয়েক মাস ধরে বিশ্ববাজারে গমের দাম বাড়ছে। আন্তর্জাতিক সংবাদ সংস্থাগুলো গমের বাজার নিয়ে নেতিবাচক পূর্বাভাস দিচ্ছে।

দেশীয় ব্যবসায়ীরা বলছেন, আগামী দিনগুলোয় বিশ্ববাজারে গমের দাম আরও কিছুটা বাড়ার আশঙ্কা রয়েছে। যার প্রভাব দেশের বাজারেও পড়বে। অবশ্য দেশে দাম অসহনীয় হারে বাড়ার আশঙ্কা নেই। কারণ, চালের দাম কমে গেছে এবং গমের সরবরাহে কোনো সংকট নেই।

রাজধানীর কারওয়ান বাজারের খুচরা দোকানে গতকাল বৃহস্পতিবার খোলা আটা প্রতি কেজি ২৮ টাকা দরে বিক্রি করতে দেখা যায়। অন্যদিকে বিক্রেতারা প্যাকেটজাত আটা ৩০-৩২ টাকা দরে বিক্রি করছিলেন। সরকারি সংস্থা ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশের (টিসিবি) হিসাবে এক মাসে খোলা আটার দাম ২ টাকা ও প্যাকেটজাত আটার দাম ১ টাকা বেড়েছে।

একই বাজারে একটি বড় কোম্পানির বিক্রয় প্রতিনিধি জানান, তাঁরা আগামী সপ্তাহে এক কেজির প্যাকেটে দেড় টাকা ও দুই কেজির প্যাকেটের দর দুই টাকা বাড়িয়ে আটা বাজারে ছাড়বেন। কোম্পানির বিপণন বিভাগ থেকে এ-সংক্রান্ত চিঠি এসেছে।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স গত ২২ আগস্ট বৈশ্বিক গমের বাজার নিয়ে এক প্রতিবেদনে জানায়, আর্জেন্টিনা, অস্ট্রেলিয়া, কানাডা, ইউরোপীয় ইউনিয়ন, কাজাখস্তান, রাশিয়া, ইউক্রেন ও যুক্তরাষ্ট্রে খরার কারণে গমের আবাদ ভালো হয়নি। ২০১৮-১৯ অর্থবছরের শুরুতে বিশ্বব্যাপী গমের মজুত ছিল ২৭ কোটি ৩০ লাখ টন, যা বেশ ভালো। কিন্তু সমস্যা হলো এ মজুতের অর্ধেকের বেশি আছে চীনের হাতে, যা বিশ্ববাজারে আসার কোনো সম্ভাবনা নেই।

জানতে চাইলে দেশীয় একটি বড় আমদানিকারক প্রতিষ্ঠানের একজন কর্মকর্তা প্রথম আলোকে বলেন, দেশে এক মাসের মধ্যে মিল পর্যায়ে আটার দাম ৫০ কেজির বস্তায় ১৪০ টাকা পর্যন্ত বেড়েছিল। পরে বিশ্ববাজারে দাম কিছুটা কমায় তা আবার ৩০ টাকার মতো কমে যায়। অবশ্য বিশ্ববাজারে কয়েক দিন ধরে দাম বাড়ছে।

এ খাতের শীর্ষস্থানীয় প্রতিষ্ঠান সিটি গ্রুপের মহাব্যবস্থাপক (হিসাব ও অর্থ) বিশ্বজিৎ সাহা প্রথম আলোকে বলেন, ‘বিশ্ববাজারে গমের দাম বেশ বেড়েছে। তবে আমরা এখন দামে পরিবর্তন আনছি না।’