সোমবার, ১২ এপ্রিল ২০২১, ০১:৪২ পূর্বাহ্ন

আজ থেকে হার্ডলাইনে জেলা প্রশাসন চট্টগ্রামের সব বিনোদনকেন্দ্র বন্ধ ঘোষণা

চট্টগ্রাম সংবাদদাতা:

করোনা সংক্রমণ রোধে মাস্ক পরা, মাস্ক বিতরণ, জরিমানা ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলায় সতর্ক করার পর এবার হার্ডলাইনে যাচ্ছে জেলা প্রশাসন। এক মাসের ঢিলেঢালা অভিযানের পর এবার কঠোর অভিযানে যাচ্ছে প্রশাসন। বিনোদনকেন্দ্র বন্ধ ও বিয়ে-সামাজিক অনুষ্ঠানে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে।

চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মমিনুর রহমান বলেন, ‘আজ থেকে সকল বিনোদনকেন্দ্র বন্ধ করে দেওয়া হল। এছাড়াও সকল কমিউনিটি সেন্টার ও কনভেনশন হলে বিয়ে-সামাজিক অনুষ্ঠান নিষেধ করা হয়েছে। তবে হোটেল-রেস্টুরেন্টে সেমিনার করতে পারবে, সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে। খেতে পারবেন ৫০ শতাংশ লোক। স্বাস্থ্যবিধি মেনেই তা করতে হবে। করোনা পরিস্থিতি বিবেচনায় আগামী ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত এসব কার্যক্রম বন্ধ থাকবে।’

গত মাস থেকে মাঠে নেমেছে জেলা প্রশাসন। মূলত স্বাস্থ্যবিধি মানায় সচেতনতাসহ অনেকটা ঢিলেঢালা কর্মসূচিতে কার্যক্রম পরিচালিত হয়ে আসছিল। তবে বিনোদনকেন্দ্রের বিষয়ে কিছুটা কঠোর ছিল জেলা প্রশাসনের ভ্রাম্যমাণ টিম।

গতকাল জেলা প্রশাসনের চারটি টিম মাঠে ছিল। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট প্রতীক দত্ত জিইসি মোড়, জিল্লুর রহমান কোতোয়ালী, ফাহমিদা আফরোজ এ কে খান মোড় ও আবদুল্লাহ আল নোমান চকবাজার এলাকায় অভিযান পরিচালনা করেন। আজ বৃহস্পতিবার থেকে সকাল ও বিকেলে পাঁচটি করে ১০টি টিম মাঠে থাকবে।

জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট গালিব চৌধুরী বলেন, ‘মানুষের মধ্যে মাস্ক পরা, মাস্ক বিতরণ, স্বাস্থ্যবিধি মানা ও অর্থদন্ড প্রদান করে এখনো সচেতন করা হচ্ছে। তবে চট্টগ্রামে যে হারে সংক্রমণ বাড়ছে, তাতে হার্ডলাইনে না যাওয়ার কোন বিকল্প নেই। মানুষের আয়-রোজগার স্বাভাবিক রেখে স্বাস্থ্যবিধি মানার বিষয়ে কঠোর অবস্থানে যাবে প্রশাসন। কয়েকদিনের মধ্যেই আমরা হার্ডলাইনে যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছি।’

করোনা সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় ১৮ দফা নির্দেশনা দিয়েছে সরকার। তবে সেই নির্দেশনার পরও হার্ডলাইনে যাওয়ার পরিকল্পনা নেয়নি প্রশাসন। তবে প্রধানমন্ত্রীর দিকনির্দেশনার পর এবার কঠোর অবস্থানে যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছে জেলা প্রশাসন।

জেলা প্রশাসন সূত্র জানায়, গতকাল প্রধানমন্ত্রী চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার ও জেলা প্রশাসনের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সে কথা বলেন। প্রধানমন্ত্রী করোনা সংক্রমণ রোধে দিকনির্দেশনা দিয়েছেন বলে জানান জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মমিনুর রহমান।

জেলা প্রশাসক বলেন, যানবাহনের যাত্রী পরিবহনের বিষয়ে সরকার বিধি-নিষেধ জারি করেছে। তা মেনে চলতে হবে। অপ্রয়োজনে ঘর থেকে বের না হওয়ার জন্য মানুষকে অনুরোধ করেছেন তিনি।

চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মমিনুর রহমান বলেন, ‘সরকারের ১৮ দফা নির্দেশনায় জনসমাগমসহ সামাজিক ও রাজনৈতিক অনুষ্ঠান নিরুৎসাহিত করা হয়েছে। দেশের অর্থনৈতিক অবস্থা স্বাভাবিক রেখে করোনা সংক্রমণরোধের উদ্যোগ নেব আমরা।’

জেলা প্রশাসন সূত্র জানায়, ইতিমধ্যেই আমাদের আট জন কর্মকর্তা করোনা সংক্রমণে আক্রান্ত হয়েছে। তারপরও মাঠে কাজ করছেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটরা।

তবে নগরীর তিনটি প্রবেশমুখে চেকপোস্ট বসানোর কথা বলেছিলেন জেলা প্রশাসক। কিন্তু এখনো সেই চেকপোস্ট বসানো হয়নি।

জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট উমর ফারুক বলেন, ‘প্রথমদিকে আমরা স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা ও সচেতন করেছিলাম। সরকার ও স্বাস্থ্য বিভাগ স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা, মাস্ক পরাসহ নানা নির্দেশনা দিয়েছে। সরকারের এসব নির্দেশনা প্রতিপালনে মাঠে কাজ করছেন জেলা প্রশাসন। সরকারের নির্দেশনা পেলে আগের মতো হার্ডলাইনে যাবে প্রশাসন।’

নিউজটি শেয়ার করুন





সর্বস্বত্ব © ২০১৯ মাতৃভূমির খবর কর্তৃক সংরক্ষিত

Design & Developed BY ThemesBazar