বৃহস্পতিবার, ১৭ জুন ২০২১, ০৭:৫৪ পূর্বাহ্ন

আখাউড়ায় তুচ্ছ ঘটনায় সংঘর্ষে সাংবাদিকসহ আহত ১০

মোঃ শাহাব উদ্দিন রিফাত
আখাউড়া উপজেলা প্রতিনিধি।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়ায় তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে দুইপক্ষের সংঘর্ষে সাংবাদিক সহ ১০ জন আহত হয়েছে।গত মঙ্গলবার রাত সাড়ে আটটায় পৌরসভার মসজিদপাড়ায় এ সংঘর্ষ হয়েছে।

জানা যায়,মসজিদপাড়ার বাসিন্দা শরীফের ভাতিজার সাথে আওয়াল মিয়ার ছেলের মধ্যে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে কথা কাটাকাটি হয়।কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে উভয়পক্ষের লোকজন উত্তেজিত হয়ে দেশীয় অস্ত্রসস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে।

সংঘর্ষের খবর পেয়ে সংবাদ সংগ্রহ করতে গেলে সাংবাদিকদের উপর উত্তেজিত হয়ে অতর্কিত হামলা চালায় উভয়পক্ষের লোকজন।আহত সাংবাদিকরা হলেন এশিয়ান টেলিভিশনের আখাউড়া প্রতিনিধি মোহাম্মদ অমিত হাসান আবির,বঙ্গ টিভির আখাউড়া প্রতিনিধি রুবেল আহমেদ এবং দৈনিক আমাদের বাংলা পত্রিকার আখাউড়া প্রতিনিধি মো.ইসমাইল হোসেন।এ ঘটনায় সাংবাদিক রুবেল আহমেদ বাদী হয়ে আখাউড়া থানায় অভিযোগ দায়ের করেন।

এবিষয়ে জানতে চাইলে আখাউড়া উপজেলা ছাত্রলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি শেখ আশিকুর রহমান নাইম জানান,’আমার ভাগিনাকে ইসমাইল মিয়ার ছেলেরা,শিপু, বাছির, আরিফ ও রাজিব মিলে মারধর করে হাত পা বেঁধে ঘরের মধ্যে বন্দী করে রাখে।আমার চাচাতো ভাই বাবু জিগাইতে গেলে তাকে ও মারধর করে তারা।খবর পেয়ে আমরা যাওয়ার পর তারা লাঠিসোঁটা,দা নিয়ে হামলা করে।সাংবাদিকদের উপর ও এরা আক্রমণ করে।’

পেশাগত দায়িত্ব পালন কালে সাংবাদিকদের উপর অতর্কিতভাবে এই নেক্কারজনক হামলার তীব্র নিন্দা,প্রতিবাদ ও ক্ষোভ জানান স্থানীয় সাংবাদিকরা।সাংবাদিক নির্যাতনের ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করে আখাউড়া উপজেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি মো.জুয়েল মিয়া বলেন,সাংবাদিকরা যখনই দেশ ও জনগণের কল্যানে অন্যায়, অনিয়ম আর দূর্ণীতির বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করে তখনই তারা মামলা,হামলার শিকার হয়।হামলাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করে অতিদ্রুত তাদের আইনের আওতায় আনার দাবি জানান তিনি।
আখাউড়া থানার ওসি রসুল আহমেদ নিজামী বলেন,সংঘর্ষের খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন।সাংবাদিকের অভিযোগ অনুসারে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন





সর্বস্বত্ব © ২০১৯ মাতৃভূমির খবর কর্তৃক সংরক্ষিত

Design & Developed BY ThemesBazar