ঢাকা ১২:৪৯ অপরাহ্ন, বুধবার, ২২ মার্চ ২০২৩, ৮ চৈত্র ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
সন্ধান চাই বাকেরগঞ্জ বন্দরে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা, ভাঙচুর ও লুটপাট, আহত-১ টাঙ্গাইলে এসপি’র কাছে থেকে বিনামূল্যে স্কুল ড্রেস ও চকলেট পেলো সুবিধাবঞ্চিত শিশুরাঠঠআণ টাঙ্গাইলে ডিবি পুলিশের ভুয়া পরিচয়দানকারী ৪ ডাকাত গ্রেফতার “আসলে বিএনপি নেতারা চায় না বেগম খালেদা জিয়া মুক্তি পাক : তথ্যমন্ত্রী “ “অভিনেতা খালেকুজ্জামানের মৃত্যুতে তথ্যমন্ত্রীর শোক বাকেরগঞ্জে সাহান আরা আবদুল্লার রুহের মাগফিরাত কামনায় দোয়া-মোনাজাত মুরাদনগরে ড্রেজার মেশিন জব্দসহ ৫শ পাইপ বিনষ্ট দেশের সকল ক্ষেত্রে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়ন আজ দৃশ্যমান – ড.আবদুস সোবহান গোলাপ,এমপি। মুরাদনগরে ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে ড্রেজার মেশিন জব্দসহ ৫০০ পাইপ বিশিষ্ট।

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ভারতের ঐতিহাসিক টেস্ট জয়

স্পোর্টস ডেস্ক :   অ্যাডিলেড টেস্টে ঐতিহাসিক জয় পেল ভারত। সোমবার ম্যাচের পঞ্চম দিনে অস্ট্রেলিয়াকে ৩১ রানে হারায় বিরাট কোহলিরা। এর আগে ২০০৩ সালে শেষবার অ্যাডিলেডে জিতেছিল সৌরভ গাঙ্গুলির নেতৃত্বাধীন ভারত। ১৫ বছর পর সেই রেকর্ড ছুঁলেন অধিনায়ক বিরাট কোহলি।

চার ম্যাচ সিরিজের প্রথম টেস্টে জিতে ভারত এগিয়ে গেল ১-০ ব্যবধানে। এখন কোহলির সামনে অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে রইল প্রথম সিরিজ জয়ের স্বপ্ন।

ভারতের পক্ষে বল হাতে ৩টি করে উইকেট নেন রবিচন্দ্রন অশ্বিন, জাসপ্রিত বুমরাহ ও মোহাম্মদ শামী। অন্য উইকেট যায় ইশান্ত শর্মার পকেটে। তবে ব্যাট হাতে প্রথম ইনিংসে ১২৩ ও দ্বিতীয় ইনিংসে ৭১ রান করে ম্যাচসেরার পুরষ্কার জিতেছেন চেতেশ্বর পুজারা।

পঞ্চম দিনে অস্ট্রেলিয়ার জয়ের জন্য করতে হতো ২১৯ রান, ভারতের প্রয়োজন ছিলো ৬টি উইকেট। স্বীকৃত ব্যাটসম্যানদের ২০০ রানের আগেই সাজঘরে ফিরিয়ে জয়ের সম্ভাবনা তৈরি করে ফেলে সফরকারীরা। কিন্তু শেষ তিন উইকেটে ছোট ছোট জুটি গড়ে তিনশর কাছাকাছি পৌঁছে যায় অস্ট্রেলিয়া।

আগের দিন ৩১ রানে অপরাজিত থাকা শন মার্শ এদিন ফেরেন ৬০ রান করে, দলীয় ১৫৬ রানের মাথায়। আশার প্রতীক হয়ে টিকে থাকা অধিনায়ক টিম পেইন সপ্তম ব্যাটসম্যান হিসেবে আউট হন দলের ১৮৭ রানের মাথায়। তার ব্যাট থেকে আসে ৪১ রান। তখনো জিততে বাকি ১৩৬ রান, উইকেট বাকি কেবল ৩টি।

প্রথমে মিচেল স্টার্ক ও প্যাট কামিনস, পরে প্যাট কামিনস ও নাথান লিয়ন এবং শেষে নাথান লিয়ন ও জশ হ্যাজেলউড মিলে ব্যাট হাতে জাগিয়ে তুলেছিলেন স্বাগতিকদের জয়ের আশা। অষ্টম উইকেট স্টার্ক-কামিনস ৪১, নবম উইকেটে কামিনস-লিয়ন ৩১ ও শেষ উইকেটে লিয়ন-হ্যাজলউড যোগ করেন ৩২ রান।

শেষের চারজনের ব্যাট থেকেই আসে সর্বমোট ১০৭ রান। এদের মধ্যে সর্বোচ্চ ৩৮ রান করে অপরাজিত থাকেন ম্যাচে মোট ৮ উইকেটে (২+৬) নেয়া লিয়ন। এছাড়া কামিনস ও স্টার্ক- উভয়েই করেন ২৮ রান। শেষ ব্যাটসম্যান হিসেবে আউট হওয়ার আগে হ্যাজলউড খেলেন ১৩ রানের ইনিংস।

ভারতের পক্ষে বল হাতে ৩টি করে উইকেট নেন রবিচন্দ্রন অশ্বিন, জাসপ্রিত বুমরাহ ও মোহাম্মদ শামী। অন্য উইকেট যায় ইশান্ত শর্মার পকেটে। তবে ব্যাট হাতে প্রথম ইনিংসে ১২৩ ও দ্বিতীয় ইনিংসে ৭১ রান করে ম্যাচসেরার পুরষ্কার জিতেছেন চেতেশ্বর পুজারা।

Tag :
জনপ্রিয় সংবাদ

সন্ধান চাই

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ভারতের ঐতিহাসিক টেস্ট জয়

আপডেট টাইম ১০:৫৩:৪৪ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১০ ডিসেম্বর ২০১৮

স্পোর্টস ডেস্ক :   অ্যাডিলেড টেস্টে ঐতিহাসিক জয় পেল ভারত। সোমবার ম্যাচের পঞ্চম দিনে অস্ট্রেলিয়াকে ৩১ রানে হারায় বিরাট কোহলিরা। এর আগে ২০০৩ সালে শেষবার অ্যাডিলেডে জিতেছিল সৌরভ গাঙ্গুলির নেতৃত্বাধীন ভারত। ১৫ বছর পর সেই রেকর্ড ছুঁলেন অধিনায়ক বিরাট কোহলি।

চার ম্যাচ সিরিজের প্রথম টেস্টে জিতে ভারত এগিয়ে গেল ১-০ ব্যবধানে। এখন কোহলির সামনে অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে রইল প্রথম সিরিজ জয়ের স্বপ্ন।

ভারতের পক্ষে বল হাতে ৩টি করে উইকেট নেন রবিচন্দ্রন অশ্বিন, জাসপ্রিত বুমরাহ ও মোহাম্মদ শামী। অন্য উইকেট যায় ইশান্ত শর্মার পকেটে। তবে ব্যাট হাতে প্রথম ইনিংসে ১২৩ ও দ্বিতীয় ইনিংসে ৭১ রান করে ম্যাচসেরার পুরষ্কার জিতেছেন চেতেশ্বর পুজারা।

পঞ্চম দিনে অস্ট্রেলিয়ার জয়ের জন্য করতে হতো ২১৯ রান, ভারতের প্রয়োজন ছিলো ৬টি উইকেট। স্বীকৃত ব্যাটসম্যানদের ২০০ রানের আগেই সাজঘরে ফিরিয়ে জয়ের সম্ভাবনা তৈরি করে ফেলে সফরকারীরা। কিন্তু শেষ তিন উইকেটে ছোট ছোট জুটি গড়ে তিনশর কাছাকাছি পৌঁছে যায় অস্ট্রেলিয়া।

আগের দিন ৩১ রানে অপরাজিত থাকা শন মার্শ এদিন ফেরেন ৬০ রান করে, দলীয় ১৫৬ রানের মাথায়। আশার প্রতীক হয়ে টিকে থাকা অধিনায়ক টিম পেইন সপ্তম ব্যাটসম্যান হিসেবে আউট হন দলের ১৮৭ রানের মাথায়। তার ব্যাট থেকে আসে ৪১ রান। তখনো জিততে বাকি ১৩৬ রান, উইকেট বাকি কেবল ৩টি।

প্রথমে মিচেল স্টার্ক ও প্যাট কামিনস, পরে প্যাট কামিনস ও নাথান লিয়ন এবং শেষে নাথান লিয়ন ও জশ হ্যাজেলউড মিলে ব্যাট হাতে জাগিয়ে তুলেছিলেন স্বাগতিকদের জয়ের আশা। অষ্টম উইকেট স্টার্ক-কামিনস ৪১, নবম উইকেটে কামিনস-লিয়ন ৩১ ও শেষ উইকেটে লিয়ন-হ্যাজলউড যোগ করেন ৩২ রান।

শেষের চারজনের ব্যাট থেকেই আসে সর্বমোট ১০৭ রান। এদের মধ্যে সর্বোচ্চ ৩৮ রান করে অপরাজিত থাকেন ম্যাচে মোট ৮ উইকেটে (২+৬) নেয়া লিয়ন। এছাড়া কামিনস ও স্টার্ক- উভয়েই করেন ২৮ রান। শেষ ব্যাটসম্যান হিসেবে আউট হওয়ার আগে হ্যাজলউড খেলেন ১৩ রানের ইনিংস।

ভারতের পক্ষে বল হাতে ৩টি করে উইকেট নেন রবিচন্দ্রন অশ্বিন, জাসপ্রিত বুমরাহ ও মোহাম্মদ শামী। অন্য উইকেট যায় ইশান্ত শর্মার পকেটে। তবে ব্যাট হাতে প্রথম ইনিংসে ১২৩ ও দ্বিতীয় ইনিংসে ৭১ রান করে ম্যাচসেরার পুরষ্কার জিতেছেন চেতেশ্বর পুজারা।