>

সোমবার, ০৬ এপ্রিল ২০২০, ০৯:১৭ অপরাহ্ন

দর্শক চাহিদা পূরণে ৮২ কোটি টাকার যন্ত্রপাতি কিনবে বিটিভি

হাসিবুল ইসলাম :

দেশি-বিদেশি দর্শকদের চাহিদা পূরণে বাংলাদেশ টেলিভিশনের জন্য (বিটিভি) জন্য ৮২ কোটি ৮২ লাখ টাকার আধুনিক যন্ত্রপাতি কেনার উদ্যোগ নিয়েছে সরকার।

বিটিভি’র জন্য আইটিভিত্তিক অটোমেটেড পদ্ধতির যন্ত্রপাতি সন্নিবেশিত করে বিটিভি, বিটিভি ওয়ার্ল্ড, সংসদ বাংলাদেশ টেলিভিশনের অনুষ্ঠান ও সংবাদ ফুল হাইডেফিনেশন (এইচডি) পরিবেশন করা ও স্টুডিওতে এইচডি যন্ত্রপাতি স্থাপন করা হবে। এমন একটি প্রস্তাবনা যাচাই-বাছাইয়ের জন্য পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ে পাঠিয়েছে বিটিভি কর্তৃপক্ষ।

পরিকল্পনা মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, এর আগে ২০১৮ সালের জুন থেকে ২০২০ সালের জুন পর্যন্ত মেয়াদে যন্ত্রপাতিগুলো কেনার সময়সীমা নির্ধারণ করা হয়েছিল।  কিন্তু এখন এসব যন্ত্রপাতি কিনতে আরও এক বছর সময় চাওয়া হয়েছে।

এ বিষয়ে পরিকল্পনা মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, প্রকল্পের আওতায় আহ্বান করা দরপত্রের মাধ্যমে অটোমেটেড যন্ত্রপাতি তৈরি করতে প্রস্তৃত প্রতিষ্ঠানগুলোর কমপক্ষে ৬ মাস সময় প্রয়োজন।  এই হিসেবে চুক্তি স্বাক্ষর থেকে যন্ত্রপাতি ফাংশনিং করতে প্রায় এক বছর সময় প্রয়োজন। ব্যয় বৃদ্ধি বাদ দিয়ে ‘বাংলাদেশ টেলিভিশন কেন্দ্রীয় সম্প্রচার ব্যবস্থার আধুনিকায়ন, ডিজিটালাইজেশন ও অটোমেশন’ প্রকল্পের মেয়াদ এক বছর বৃদ্ধির আবেদন করা হয়েছে।  অর্থাৎ প্রকল্পের মেয়াদ জুন ২০২১ পর্যন্ত বৃদ্ধির সুপারিশ করা হয়েছে।

এ বিষয়ে প্রকল্প পরিচালক মনিরুল ইসলাম রাইজিংবিডিকে বলেন, প্রকল্পটির কাজ শুরু করতেই ছয় মাস চলে গেছে।  ফলে প্রকল্পের মেয়াদ আরো এক বছর লাগবে।  আশা করছি এই মেয়াদেই প্রকল্পটি শতভাগ সম্পন্ন হবে।   প্রকল্পটি বাস্তবায়নের ফলে দর্শকদের সব আকাঙ্ক্ষা পূরণ করতে পারবে বিটিভি।

তিনি বলেন, মাস্টার কন্ট্রোল রুম (এমসিআর) সাময়িকভাবে স্থানান্তরের সময় বিটিভির সুষ্ঠু সম্প্রচারে যেন কোনো ধরনের বিঘ্ন না ঘটে সেজন্য জরুরিভিত্তিতে যন্ত্রপাতি কেনার জন্য বরাদ্দ ৮৫ লাখ থেকে বেড়ে দেড় কোটি টাকা করা হচ্ছে।  যন্ত্রপাতি ও সম্প্রচার কার্যক্রম প্রাথমিকভাবে অন্যস্থানে সাময়িক স্থানান্তরের কাজটি চ্যালেঞ্জ। এরইমধ্যে পূর্ত কাজ সমাপ্ত হওয়ায় ইনজেন্ট রুমে এমসিআর যন্ত্রপাতি স্থানান্তর এবং শহীদ সরদার শওকত হামিদ স্টুডিওর ধারণ কার্যক্রম টক স্টুডিওতে এবং তৃতীয়তলার বিটিভি ওয়ার্ল্ড ও বিটিভি ন্যাশনালের স্থানান্তরের জন্য কিছু অপরিহার্য যন্ত্রপাতি সংগ্রহের প্রয়োজন।  এজন্য অনুমোদিত প্রকল্পে ৮৫ লাখ টাকার বরাদ্দ আছে।  তবে এই বরাদ্দ পর্যাপ্ত নয়, এখন আরো ৬৫ লাখ টাকা বরাদ্দ দাবি করা হয়েছে।

প্রকল্প পরিচালক মনিরুল বলেন, বিটিভি সম্প্রচার ব্যবস্থার যন্ত্রপাতি কার্যক্ষমতা কমে যাওয়ায় আধুনিক, ডিজিটাল ও অটোমেটেড পদ্ধতির যন্ত্রপাতি স্থাপন করা অপরিহার্য হয়ে পড়েছে।  আইটি নির্ভর ও ভবিষ্যৎ প্রযুক্তির সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলতে ডিজিটালাইজড সিস্টেম সংস্থাপনের সুস্পষ্ট ধারণা পাওয়ার জন্য প্রকল্পটি নেওয়া হয়েছে। ফলে প্রকল্পের আওতায় টেস্টিং অ্যান্ড কমিউনিকেশন অব ইক্যুপমেন্ট ফর এমসিআর, মিডিয়া অ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট (এমএএম) সিস্টেম, ভিডিও সার্ভার অ্যান্ড প্লে আউট সিস্টেম, সেন্ট্রাল স্টোরেজ সিস্টেম অন টার্নকে বেসিস যন্ত্রপাতি কেনা হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন





সর্বস্বত্ব © ২০১৯ মাতৃভূমির খবর কর্তৃক সংরক্ষিত
Design & Developed BY ThemesBazar