>

মঙ্গলবার, ৩১ মার্চ ২০২০, ০৮:১৬ পূর্বাহ্ন

জিম্বাবুয়েকে বিশাল টার্গেট দিলো বাংলাদেশ

ক্রীড়া ডেস্ক : সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে দ্বিতীয় ওয়ানডেতে টস জিতে বাংলাদেশ প্রথমে ব্যাট করতে নামে। তামিম ইকবালের অনবদ্য ১৫৮ রানের ইনিংসে ভর করে ৮ উইকেট হারিয়ে ৩২২ রান সংগ্রহ করেছে টাইগাররা। জিততে জিম্বাবুয়েকে করতে হবে ৩২৩ রান।

ব্যাট হাতে তামিম ইকবাল ক্যারিয়ার সেরা ১৫৮ রান করেন। ১৩৬ বল খেলে ২০ চার ও ৩ ছক্কায় এই রান করেন তিনি।  ৬ চারে ৫৫ রান করেন মুশফিকুর রহিম। মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ৪১ ও মোহাম্মদ মিথুন অপরাজিত ৩২ রান করেন।

বল হাতে জিম্বাবুয়ের কার্ল মুম্বা ও ডোনাল্ড টিরিপানো ২টি করে উইকেট নেন।

প্রথম ওয়ানডেতে ৩২২ রান তাড়া করতে নেমে ৩৯.১ ওভারে ১৫২ রানে অলআউট হয়েছিল। আজ তারা কেমন ফাইট দিতে পারে দেখার বিষয়।

 

সংক্ষিপ্ত স্কোর 

বাংলাদেশ : ৩২২/৮ (৫০ ওভারে)।

ব্যাটিং : মিথুন ৩২* ও শফিউল ৫*।

আউট : লিটন কুমার দাস (৯), নাজমুল হোসেন শান্ত (৬), মুশফিকুর রহিম (৫৫), মাহমুদউল্লাহ (৪১), তামিম ইকবাল (১৫৮), মেহেদী হাসান মিরাজ (৫), মাশরাফি বিন মুর্তজা (১), তাইজুল ইসলাম (০)।

 

৫ রানে ৩ উইকেট হারাল বাংলাদেশ

তামিম ইকবাল ২৯২ রানের মাথায় আউট হন। এরপর ৩০৭ রানের মাথায় ফেরেন মিরাজ। ৩১০ রানের মাথায় আউট হন মাশরাফি। আর ৩১১ রানে তাইজুল ইসলাম। ৩০৭ থেকে ৩০১১ রানে যেতে বাংলাদেশ হারায় ৩টি উইকেট। তামিমেরটা সহ হিসেব করলে ১৩ রানে ৪ উইকেট হারিয়েছে বাংলাদেশ।

নিজেকে ছাড়িয়ে ফিরলেন তামিম

ওয়ানডে ক্যারিয়ারে তার সর্বোচ্চ রানের ইনিংস ছিল ১৫৪। আজ সেটিকে ছাড়িয়ে করেছেন ১৫৬। ১৩২ বল খেলে ২০ চার ও ২ ছক্কায় ১৫০ পূর্ণ করেন। এরপর ছক্কা হাঁকিয়ে ছাড়িয়ে যান নিজের রেকর্ড। অবশ্য ইনিংসটিকে বেশি বড় করতে পারেননি। ১৫৮ রান করে আউট হন। এ সময় কার্ল মুম্বার বলে লং অফে মুতুমবোজির হাতে ধরা পড়ে তার মাস্টার ক্লাস ইনিংসের যবনিকাপাত ঘটে।

শতরানের জুটি গড়ে মাহমুদউল্লাহর বিদায়

তামিম ইকবালের সঙ্গে ১০৬ রানের জুটি গড়ে বিদায় নিয়েছেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। দলীয় ২৫৮ রানের মাথায় চার্লটন টিসুমার বলে ডিপ স্কয়ার লেগে ওয়েসলি মাধভেরের দুর্দান্ত এক ক্যাচে সাজঘরে ফেরেন তিনি। যাওয়ার আগে ৫৭ বল খেলে ৩ চারে ৪১ রান করে যান।

তামিম-মাহমুদউল্লাহ’র ১০০ রানের জুটি

তামিম ইকবালের সঙ্গে ৮৭ রানের জুটি গড়ে আউট হন মুশফিক। এরপর তামিমের সঙ্গে এসে জুটি বাঁধেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। এই জুটি ইতিমধ্যে ১০০ রান পেরিয়েছে। ১৬.১ ওভারে ৬.৩ গড়ে রান তুলেছে ১০২টি। যেখানে মাহমুদউল্লাহর অবদান ৪০ ও তামিম ইকবালের ৫৯।

তামিমের দ্বাদশ সেঞ্চুরি

২০১৮ সালের জুলাই মাসে সবশেষ সেঞ্চুরিটি করেছিলেন তামিম ইকবাল। মাঝে লম্বা সময় পাননি সেঞ্চুরির দেখা। অবশেষে ১ বছর ৭ মাস পর পেলেন সেঞ্চুরি। ৩৭তম ওভারে শন উইলিয়ামসের ষষ্ঠ বলে ২ রান নিয়ে ৯৯ থেকে ১০১ এ পৌঁছান তামিম। ১০৬ বল খেলে ১৪ চারে তিন অঙ্কের ম্যাজিক্যাল ফিগার স্পর্শ করেন ড্যাশিং এই ওপেনার। ৪২ বলে ১০ চারে ছুঁয়েছিলেন ফিফটি। এরপর ৬৪ বল খেলে ৪ চারে পরের ফিফটি রান করেন।

ফিফটি করে ফিরলেন মুশফিক

তামিম ইকবালের সঙ্গে ৮৭ রানের ‍জুটি গড়ে ফিরেছেন মুশফিকুর রহিম। ৫০ বল খেলে ৬ চারে ৫৫ রান করে গেছেন তিনি। এটি তার ওয়ানডে ক্যারিয়ারের ৩৮তম ফিফটি। দলীয় ১৫২ রানের মাথায় ওয়েসলি মাধভেরেকে উড়িয়ে মারতে গিয়ে বাউন্ডারির কাছে মুতুমবোজির হাতে ধরা পড়েন মিস্টার ডিপেন্ডাবল।

তামিম-মুশফিকের জুটি ৫০ ছাড়িয়ে

শান্ত ফেরার পর তামিম ইকবালের সঙ্গে এসে জুটি বাঁধেন মুশফিকুর রহিম। এই জুটি ইতিমধ্যে ৫০ পেরিয়েছে। ১১.৫ ওভারে তুলেছে ৬৫ রান। যেখানে মুশফিক করেছেন ৪২, তামিম ২১।

 

তামিমের ৪৮তম ফিফটি

লিটন ও শান্ত দুর্ভাগ্যজনক রান আউট হয়ে ফিরলেও তামিম ইকবাল আছেন মারমুখী মুডে। ৪২ বল খেলে ১০টি চারের সাহায্যে তুলে নিয়েছেন ওয়ানডে ক্যারিয়ারের ৪৮তম ফিফটি। ৭ ইনিংস পর পেলেন হাফ সেঞ্চুরির দেখা। ১ বছর ৭ মাস আগে করেছিলেন ওয়ানডেতে সবশেষ সেঞ্চুরি। আজ সেই অপেক্ষার পালা ঘুচবে কি?

এবার রান আউটের শিকার শান্ত

লিটন কুমার দুর্ভাগ্যজনক আউট হওয়ার পর এবার রান আউটে কাটা পড়েছেন নাজমুল হোসেন শান্ত। একাদশতম ওভারে ওয়েসলি মাধভেরের করা দ্বিতীয় বলটি শান্তর প্যাডে লেগে শর্ট ফাইন লেগে চলে যায়। শান্ত রান নিতে চাননি। তামিম দৌড়ে চলে যান স্ট্রাইকিং প্রান্তে। অনিচ্ছা সত্বেও শান্তকে বেরিয়ে আসতে হয়। টেলরের হাত ঘুরে বল যায় মাধভেরের হাতে। তিনি উচ্ছ্বাস নিয়ে ট্যাম্প ভাঙেন। শান্ত মাত্র ৬ রান করে ফেরেন।

৮ ওভারে ৫০

লিটন কুমার দাস দুর্ভাগ্যজনক রান আউটের শিকার হয়ে বিদায় নিলেও ছন্দেই আছে বাংলাদেশ। নাজমুল হোসেন শান্তকে সঙ্গে নিয়ে মারকুটে ব্যাটিং করে যাচ্ছেন তামিম ইকবাল। তাতে ৮ ওভারেই বাংলাদেশের দলীয় সংগ্রহ ৫০ পেরিয়েছে।

দুর্ভাগ্যজনক রান আউটের শিকার লিটন

কার্ল মুম্বার করা সপ্তাম ওভারের তৃতীয় বলটি সোজা ব্যাটে খেলেন তামিম। তামিমের ব্যাট ছুঁয়ে আসা বল মুম্বার হাত ছুঁয়ে নন স্ট্রাইক প্রান্তের স্ট্যাম্প এলোমেলো করে দেয়। বল যখন স্ট্যাম্পে লাগে তখন পপিং ক্রিজের বাইরে ছিল লিটনের ব্যাট। চেষ্টা করেও তিনি লাইনের ভেতরে ব্যাট নিয়ে যেতে পারেননি। দুর্ভাগ্যজনকভাবে আগের ম্যাচের সেঞ্চুরিয়ান রান আউট হয়ে ফিরে যান মাত্র ৯ রান করে।

পরিবর্তন

বাংলাদেশ দলে আজ দুটি পরিবর্তন আনা হয়েছে। মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন ও মুস্তাফিজুর রহমানকে বিশ্রাম দেওয়া হয়েছে। একাদশে সুযোগ পেয়েছেন শফিউল ইসলাম ও আল-আমিন হোসেন।

জিম্বাবুয়ে দলেও দুটি পরিবর্তন এসেছে। প্রথম ম্যাচে জিম্বাবুয়েকে নেতৃত্ব দেওয়া চামু চিবাবা ইনজুরির কারণে দলে নেই। তবে দলে ফিরেছেন নিয়মিত অধিনায়ক শন উইলিয়ামস। অসুস্থতার কারণে একাদশে নেই ক্রেইগ আরভিন। তার পরিবর্তে সুযোগ দেওয়া হয়েছে চার্লটন টিসুমাকে।

একাদশ 

বাংলাদেশের একাদশ

লিটন কুমার দাস (উইকেটরক্ষক), তামিম ইকবাল, নাজমুল হোসেন শান্ত, মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, মোহাম্মদ মিথুন, মেহেদী হাসান মিরাজ, মাশরাফি বিন মুর্তজা, তাইজুল ইসলাম, শফিউল ইসলাম ও আল-আমিন হোসেন।

জিম্বাবুয়ের একাদশ

তিনাশে কামুনহুকামউয়ি, রেগিস চাকাবা, ব্রেন্ডন টেলর, শন উইলিয়ামস, সিকান্দার রাজা, ওয়েসলি মাদভেরে, রিচমন্ড মুতুম্বামি, তিনোতেন্দা মুতুমবোজি, ডোনাল্ড টিরিপানো, কার্ল মুম্বা ও চার্লটন টিসুমা।

টস

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে দ্বিতীয় ওয়ানডেতে টস জিতেছেন মাশরাফি বিন মুর্তজা। তিনি অবশ্য ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

প্রথম ওয়ানডেতে জিম্বাবুয়েকে ১৬৯ রানের বড় ব্যবধানে হারিয়েছিল বাংলাদেশ। আজ জিতলে এক ম্যাচ হাতে রেখেই সিরিজ জিতে নিবে মাশরাফিবাহিনী।

নিউজটি শেয়ার করুন





সর্বস্বত্ব © ২০১৯ মাতৃভূমির খবর কর্তৃক সংরক্ষিত
Design & Developed BY ThemesBazar